২০২৩ সালে যাদের হারিয়েছি

তারা হারিয়ে গেলেও, বেঁচে আছেন তাদের আপন সৃষ্টিতে। চলচ্চিত্র, টেলিভিশন নাটক, নৃত্য ও সংগীতে থেকে যাবে তাদের অসামান্য অবদান।
ছবি: স্টার

শোবিজ অঙ্গনের অনেককেই আমরা ২০২৩ সালে হারিয়েছি। তারা হারিয়ে গেলেও, বেঁচে আছেন তাদের আপন সৃষ্টিতে। চলচ্চিত্র, টেলিভিশন নাটক, নৃত্য ও সংগীতে থেকে যাবে তাদের অসামান্য অবদান।

এই তালিকায় আছে নায়ক ফারুক, চলচ্চিত্র পরিচালক সোহানুর রহমান সোহান, সালাউদ্দিন জাকী, নৃত্যশিল্পী জিনাত বরকতউল্লাহ, টেলিভিশন অভিনেত্রী হুমায়রা হিমু, গীতিকার রাজীব আশরাফ।

চিত্রনায়ক ফারুক

খ্যাতিমান নায়ক, সংসদ সদস্য, বীর মুক্তিযোদ্ধা আকবর হোসেন পাঠান ফারুক মারা গেছেন ২০২৩ সালের ১৫ মে। সিঙ্গাপুরের মাউন্ট এলিজাবেথ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয়।

'মিয়া ভাই'খ্যাত নায়ক ফারুক ১৯৪৮ সালের ১৮ আগস্ট ঢাকায় জন্মগ্রহণ করেন। এইচ আকবর পরিচালিত 'জলছবি' সিনেমার  মাধ্যমে ১৯৭১ সালে ঢাকাই সিনেমার প্রথম অভিষেক। এরপর ১৯৭৩ সালে মুক্তিযুদ্ধভিত্তিক চলচ্চিত্র খান আতাউর রহমানের পরিচালিত 'আবার তোরা মানুষ হ' ও ১৯৭৪ সালে নারায়ণ ঘোষ মিতার 'আলোর মিছিল' সিনেমায় অভিনয় করেন তিনি।

নায়ক ফারুক অভিনীত উল্লেখযোগ্য সিনেমার মধ্যে রয়েছে- 'সারেং বৌ', 'লাঠিয়াল', 'সুজন সখী', 'নয়নমণি', 'মিয়া ভাই', 'গোলাপী এখন ট্রেনে', 'সাহেব', 'আবার তোরা মানুষ হ', 'আলোর মিছিল', 'দিন যায় কথা থাকে', 'সখী তুমি কার', 'কথা দিলাম' ও 'সূর্য গ্রহণ' ইত্যাদি।

'লাঠিয়াল' সিনেমায় অভিনয়ের জন্য ১৯৭৫ সালে শ্রেষ্ঠ পার্শ্ব অভিনেতা হিসেবে জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার পান। ২০১৬ সালে তাকে জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কারের আসরে আজীবন সম্মাননা দেয়া হয়। ২০১৮ সালের একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে ঢাকা-১৭ আসন থেকে আওয়ামী লীগ থেকে সংসদ সদস্য নির্বাচিত হয়েছিলেন তিনি। 

নির্মাতা সোহানুর রহমান সোহান

সোহানুর রহমান সোহান
সোহানুর রহমান সোহান। সংগৃহীত

২০২৩ সালের ১৩ সেপ্টেম্বর মারা যান চলচ্চিত্র পরিচালক সোহানুর রহমান সোহান। নিজ বাসায় ঘুমের মধ্যে মৃত্যু হয় এই পরিচালকের। 

সোহানুর রহমান সোহান পরিচালিত আলোচিত সিনেমাগুলো হলো—'কেয়ামত থেকে কেয়ামত', 'আমার দেশ আমার প্রেম', 'স্বজন', 'আমার ঘর আমার বেহেশত', 'অনন্ত ভালোবাসা', 'স্বামী ছিনতাই', 'আমার জান আমার প্রাণ', 'পরাণ যায় জ্বলিয়া রে', 'কোটি টাকার প্রেম', 'সে আমার মন কেড়েছে', 'দ্য স্পিড' ও 'লোভে পাপ পাপে মৃত্যু' ইত্যাদি।

চলচ্চিত্রের নির্মাতা সোহানুর রহমান সোহান পরিচালিত প্রথম চলচ্চিত্র 'বিশ্বাস অবিশ্বাস'। এ নির্মাতার হাত ধরেই চলচ্চিত্রে আসেন সালমান শাহ, মৌসুমী, পপি ও ইরিন জামান। শাকিব খান অভিনীত প্রথম মুক্তিপ্রাপ্ত 'অনন্ত ভালোবাসা' সিনেমার পরিচালকও ছিলেন তিনি।  

নির্মাতা সালাউদ্দিন জাকী

সৈয়দ সালাহউদ্দীন জাকী। ছবি: সংগৃহীত

খ্যাতিমান নির্মাতা সৈয়দ সালাহউদ্দিন জাকী ১৯ সেপ্টেম্বর ৭৭ বছর বয়সে মারা যান। 'ঘুড্ডি' সিনেমা পরিচালনা করে আলোচিত তিনি। ১৯৪৬ সালের ২৬ আগস্ট তিনি জন্মগ্রহণ করেন এই নির্মাতা। ১৯৮০ সালে মুক্তিপ্রাপ্ত 'ঘুড্ডি' সিনেমা দিয়ে দর্শকদের মন জয় করেছিলেন।

এই সিনেমার জন্য তিনি শ্রেষ্ঠ সংলাপ রচয়িতা হিসেবে জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার পান। ২০২১ সালে একুশে পদক লাভ করেন তিনি। 'লাল বেনারসি', 'আয়না বিবির পালা'সহ কয়েকটি চলচ্চিত্র নির্মাণ করেন তিনি। 

নৃত্যশিল্পী জিনাত বরকতউল্লাহ

জিনাত বরকতউল্লাহ

একুশে পদকপ্রাপ্ত নৃত্যশিল্পী জিনাত বরকতউল্লাহ ২০২৩ সালের ২০ সেপ্টেম্বর নিজ বাসায় মারা যান। মৃত্যুকালে তার বয়স হয়েছিল ৭২ বছর। নৃত্যচর্চায় অসামান্য অবদানের জন্য ২০২২ সালে রাষ্ট্রীয় সম্মাননা একুশে পদকে ভূষিত হন। নৃত্যশিল্পী ছাড়াও একজন অভিনয়শিল্পী ছিলেন তিনি। 

অভিনেত্রী হুমায়রা হিমু

হুমায়রা হিমু
হুমায়রা হিমু। ছবি: স্টার

টেলিভিশন নাটকের অভিনেত্রী হুমায়রা হিমু ২০২৩ সালের ২ নভেম্বর মারা যান। 

মঞ্চ নাটকের মাধ্যমে ২০০৬ সালে অভিনয়ে আসেন তিনি। টেলিভিশনে 'ছায়াবীথি' নাটকে প্রথম অভিনয় করেন তিনি। একই বছর 'প্রাইভেট ইনভেস্টিগেটর' নামের একটি টিভি সিরিয়ালে অভিনয় করেন।

এছাড়া 'বাড়ি বাড়ি সারি সারি', 'হাউসফুল', 'গুলশান এভিনিউ'সহ অনেক নাটকে অভিনয় করে আলোচিত হয়েছিলেন। কিছুদিন আগে 'চাপাবাজ', 'বাকেরখনি', 'বউ বিরোধ', 'গোলমাল', 'নানান রঙের মানুষ' ও 'গিনিস বুকে নাম' নাটকগুলোতে অভিনয় করেছেন তিনি।

নির্মাতা শফি বিক্রমপুরী

পরিচালক ও প্রযোজক শফি বিক্রমপুরী। ছবি: সংগৃহীত

চলচ্চিত্রকার শফি বিক্রমপুরী ব্যাংককের একটি হাসপাতালে ২০২৩ সালের ১৮ অক্টোবর চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান। তার প্রথম পরিচালিত সিনেমা 'রাজদুলারি'। এরপর 'আলাদিন আলিবাবা সিন্দাবাদ', 'দেনমোহর'সহ কয়েকটি ছবি পরিচালনা করেছেন। তার প্রযোজিত ও পরিবেশিত সিনেমার মধ্যে রয়েছে 'অরুণোদয়ের অগ্নিসাক্ষী', 'ডাকু মনসুর', 'বাহাদুর', 'বন্দুক', 'সবুজ সাথী'।

গীতিকার রাজীব আশরাফ

রাজীব আশরাফ। ছবি: সংগৃহীত
রাজীব আশরাফ। ছবি: সংগৃহীত

অর্ণবের গাওয়া শ্রোতানন্দিত 'হোক কলরব' গানের গীতিকার রাজীব আশরাফ ২০২৩ সেপ্টেম্বর ১ মারা গেছেন। মাত্র ৩৮ বছর বয়সে মারা যান তিনি। 

রাজীব আশরাফের লেখা উল্লেখযোগ্য গানের মধ্যে 'হোক কলরব' ছাড়াও রয়েছে—'রোদ বলেছে হবে', 'একটা মেয়ে', 'মন খারাপ', 'নাম ছিল না', 'প্রকৃত জল', 'ঘুম', 'ধূসর মেঘ', 'প্রতিধ্বনি', 'মন খারাপের একটা বিকেল' ইত্যাদি। এ ছাড়া 'আইসক্রিম' সিনেমায় অর্ণবের গাওয়া 'বোকা চাঁদ' গানটিও তার লেখা ছিল।

বুলবুল মহলানবীশ

স্বাধীন বাংলা বেতার কেন্দ্রের শব্দসৈনিক বুলবুল মহলানবীশ ২০২৩ সালের ১৪ জুলাই মারা যান। ১৭ জুলাই রাষ্ট্রীয় সম্মান ও ফুলেল শ্রদ্ধায় শেষ বিদায় জানানো হয় তাকে।

মিতা চৌধুরী

খ্যাতিমান নাট্যশিল্পী মিতা চৌধুরী ২০২৩ সালের ২৯ জুন মারা গেছেন। ক্যান্সারে আক্রান্ত হয়ে লন্ডনে চিকিৎসাধীন ছিলেন তিনি।

মোহন খান

পরিচালক, নাট্যকার মোহন খান মারা গেছেন ৩০ মে। তার পরিচালিত প্রথম নাটক 'আমার দুধ মা' বিটিভিতে প্রচারিত হয়। তার লেখা ও পরিচালনায় নাটক 'সমুদ্রে গাঙচিল', 'সেই আমরা', 'নীড়ের খোঁজে গাঙচিল', 'জেগে উঠো সমুদ্র', 'মেঘবালিকা', 'দূরের মানুষ', 'আঙ্গুর লতা', 'হৃদয়পুরের গল্প' ইত্যাদি।

নাদিরা বেগম

ভাওয়াইয়া গানের কণ্ঠশিল্পী ও মুক্তিযোদ্ধা নাদিরা বেগম ৬ নভেম্বর বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান। তার বয়স হয়েছিল ৭৩ বছর।

Comments

The Daily Star  | English

Attack on Rafah would be 'nail in coffin' of Gaza aid: UN chief

A full-scale Israeli military operation in Rafah would deliver a death blow to aid programmes in Gaza, where humanitarian assistance remains "completely insufficient", the UN chief warned today

16m ago