দক্ষিণ এশিয়া

ইমরান খানের বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা

পাকিস্তান তেহরিক-ই-ইনসাফ (পিটিআই) নেতা ও দেশটির সাবেক প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানের বিরুদ্ধে আদালত অবমাননার মামলায় জামিনযোগ্য গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি করেছে পাকিস্তানের নির্বাচন কমিশন (ইসিপি)।
পাকিস্তান তেহরিক-ই-ইনসাফ, পিটিআই, ইমরান খান, পাকিস্তান,
ইমরান খান। রয়টার্স ফাইল ফটো

পাকিস্তান তেহরিক-ই-ইনসাফ (পিটিআই) নেতা ও দেশটির সাবেক প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানের বিরুদ্ধে আদালত অবমাননার মামলায় জামিনযোগ্য গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি করেছে পাকিস্তানের নির্বাচন কমিশন (ইসিপি)।

ইসিপি পিটিআই নেতা আসাদ উমর এবং ফাওয়াদ চৌধুরীর বিরুদ্ধেও একই মামলায় গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি করেছে।

আজ মঙ্গলবার ইসিপি এ গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি করে বলে জিও নিউজ ও ডনের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে।

পাকিস্তানি সংবাদমাধ্যমের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, নিসার দুরানির নেতৃত্বে ইসিপি'র ৪ সদস্যের বেঞ্চ এই পরোয়ানা জারি করেন। গত বছরের আগস্টে বিভিন্ন প্রকাশ্য সভা, সংবাদ সম্মেলন এবং বেশ কয়েকটি সাক্ষাত্কারের সময় কমিশন এবং এর প্রধানকে অপমানের অভিযোগে পিটিআই নেতাদের বিরুদ্ধে অবমাননার নোটিশ জারি করেছিল ইসিপি।

নোটিশে বলা হয়েছিল, পিটিআই'র এই রাজনীতিকদের বিরুদ্ধে বিভিন্ন সময়ে ইসিপি'র বিরুদ্ধে অসংসদীয়, অসহিষ্ণু ও অবমাননাকর মন্তব্য করার অভিযোগ আছে।

আজকের শুনানিতে বেঞ্চ পিটিআই নেতাদের অব্যাহতির আবেদন প্রত্যাখ্যান করে এবং পরবর্তী শুনানিতে হাজির হওয়ার নির্দেশ দিয়েছে। পরবর্তী শুনানির জন্য আগামী ১৭ জানুয়ারি দিন নির্ধারণ করা আছে।

রায়ের পরপরই পিটিআই নেতা ফাওয়াদ চৌধুরী জানিয়েছেন, তিনি এই পরোয়ানার বিরুদ্ধে হাইকোর্টে চ্যালেঞ্জ করবেন এবং ইসিপির বিরুদ্ধে অবমাননার আবেদন করবেন।

ফাওয়াদ বলেন, ইসিপি'র গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারির সিদ্ধান্ত হাইকোর্টের সিদ্ধান্তকে অবমাননা করা। ১৭ জানুয়ারি মামলাটির দিন ধার্য ছিল এবং আজ নিয়ম লঙ্ঘন করে রায় ঘোষণা করা হয়েছে। এটি ইসিপির 'পক্ষপাতদুষ্ট' সিদ্ধান্ত।

চলতি মাসের শুরুর দিকে সুপ্রিম কোর্টও ইমরান খান, উমর এবং ফাওয়াদের বিরুদ্ধে আদালত অবমাননার মামলা চালিয়ে যেতে নির্বাচনী সংস্থাকে অনুমতি দিয়েছিল।

Comments