দুর্ঘটনা ও অগ্নিকাণ্ড

নোয়াখালীর বেগমগঞ্জে মডেল মসজিদে বিস্ফোরণ

গত ১৬ মার্চ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এই মসজিদটি উদ্বোধন করেন।
বিস্ফোরণের পর ঘটনাস্থল। ছবি: সংগৃহীত

নোয়াখালীর বেগমগঞ্জে উপজেলা মডেল মসজিদের ভেতর বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটেছে। এতে মসজিদের দ্বিতীয় তলার একটি কক্ষের ২টি দরজা, ২টি জানালা, মেঝে ও সিলিং ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। তবে এই ঘটনায় কেউ হতাহত হয়নি।

মঙ্গলবার রাত ১১টার দিকে এ বিস্ফোরণ ঘটে বলে দ্য ডেইলি স্টারকে নিশ্চিত করেছেন জেলা পুলিশ সুপার (এসপি) মো. শহিদুল ইসলাম।

তিনি জানান, বিস্ফোরণের কারণ জানতে র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়ন (র‌্যাব) সদর দপ্তর থেকে একটি বিশেষজ্ঞ দল বেগমগঞ্জে যাচ্ছে।

পুলিশ জানিয়েছে, গতকাল রাত ১১টার দিকে চৌমুহনী পৌরসভাধীন আলীপুর মহল্লার সরকারি মডেল মসজিদের দ্বিতীয় তলায় মোয়াজ্জিন ও মসজিদের খাদেমের কক্ষে এই বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটে।

ইসলামিক ফাউন্ডেশনের পক্ষে বেগমগঞ্জ মডেল মসজিদের দায়িত্বে থাকা ফিল্ড সুপারভাইজার আব্দুল হালিম ডেইলি স্টারকে বলেন, 'গতকাল রাত ১০টার দিকে আমি মুয়াজ্জিন ও খাদেমের থাকার কক্ষে একটি কাপড়ের ব্যাগ ও দাপ্তরিক কিছু ফাইলপত্র রেখে আসি। রাত ১১টার পরে বিস্ফোরণের শব্দ পাই। ঘটনার সময় আমি মসজিদের তৃতীয় তলার একটি কক্ষে অন্যান্য কর্মচারীদের নিয়ে আসবাবপত্র গোছাচ্ছিলাম। সে সময় মসজিদের আশেপাশের লোকজন আগুন বলে এগিয়ে আসেন। তখন আমিও দ্রুত মসজিদ থেকে বেরিয়ে যাই। পরে আবার এসে দেখি দ্বিতীয় তলায় খাদেম ও মুয়াজ্জিনদের থাকার কক্ষে আগুন জ্বলছে। তাৎক্ষণিক বিষয়টি ইউএনওকে জানাই।'

বিস্ফোরণের পর ঘটনাস্থল। ছবি: সংগৃহীত

মসজিদটির নির্মাণকাজের ঠিকাদার প্রতিষ্ঠানের ম্যনেজার মহিন উদ্দিন ডেইলি স্টারকে বলেন, 'গতকাল রাত ১১টার দিকে মসজিদের দারোয়ান লেদু মিয়া (৬০) ফোনে আমাকে জানান মসজিদে আগুন লেগেছে। খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে গিয়ে মসজিদের দ্বিতীয় তলায় মোয়াজ্জিন ও খাদেমের থাকার কক্ষে বিস্ফোরণের ধোঁয়া দেখতে পাই। এতে মসজিদের কক্ষটির ২টি দরজা ও ২টি জানালা ক্ষতিগ্রস্ত হয়। জানালার গ্লাসগুলো ভেঙে যায়।'

আজ সরেজমিনে দেখা গেছে, মসজিদের দ্বিতীয় তলার ওই কক্ষটির মাঝামাঝি স্থানে আগুনে পোড়া জিনিসপত্রের ধ্বংসাবশেষ ছড়িয়ে আছে। বিস্ফোরণে ক্ষতিগ্রস্ত জানালার গ্লাস পড়ে ছিল মেঝেতে। বিস্ফোরণে সৃষ্ট অগ্নিকাণ্ডের ধোঁয়ায় পুরো কক্ষ বিবর্ণ হয়ে গেছে।

এসপি মো. শহিদুল ইসলাম ডেইলি স্টারকে বলেন, 'প্রাথমিকভাবে মডেল মসজিদের একটি কক্ষে বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটেছে বলে মোটামুটি নিশ্চিত হওয়া গেছে। তবে বিস্ফোরণের উৎস সম্পর্কে এখনো সুনির্দিষ্ট কোনো তথ্য পাওয়া যায়নি। ঘটনার সময় ওই কক্ষে কেউ ছিল কি না, সে বিষয়েও তথ্য পাওয়া যায়নি। বিস্ফোরণের উৎস সম্পর্কে নিশ্চিত হওয়ার জন্য এরই মধ্যে বিশেষজ্ঞ দলকে খবর পাঠানো হয়েছে। তারা পরীক্ষা-নিরীক্ষার পর প্রতিবেদন দিলে এ বিষয়ে দ্রুত পরবর্তী আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।'

র‌্যাব-১১ নোয়াখালীর কোম্পানী ক্যমান্ডার লে. কমান্ডার মাহমুদুল হাসান বলেন, 'মসজিদে বিস্ফোরণের ঘটনার অনুসন্ধানে র‌্যাব সদর দপ্তর থেকে বম্ব ডিসপোসাল ইউনিটের একটি দল বেগমগঞ্জের উদ্দেশে ঢাকা থেকে রওনা দিয়েছে। রাতে তারা ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে এই ব্যাপারে বিস্তারিত জানাবেন।'

বেগমগঞ্জের মডেল মসজিদ। ছবি: সংগৃহীত

নোয়াখালী জেলা প্রশাসক দেওয়ান মাহবুবুর রহমান বলেন, 'মসজিদের খাদেম ও ইমামকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে। ঢাকা থেকে র‌্যাবের বিশেষজ্ঞ দল নোয়াখালীর উদ্দেশে রওনা দিয়েছেন। তারা আসার পর বিস্তারিত বলা যাবে।'

গত ১৬ মার্চ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এই মসজিদটি উদ্বোধন করেন।

Comments

The Daily Star  | English

Extreme heat sears the nation

The scorching heat continues to disrupt lives across the country, forcing the authorities to close down all schools and colleges till April 27.

6h ago