দুর্ঘটনা ও অগ্নিকাণ্ড

অসুস্থ বাবাকে দেখতে যাওয়ার পথে সড়ক দুর্ঘটনায় মেয়ে নিহত, আহত স্বামী-ছেলে

মাদারীপুরের শিবচরে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এক্সপ্রেসওয়েতে বৃহস্পতিবার রাতে এ দুর্ঘটনা ঘটে।
শিবচরে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এক্সপ্রেসওয়েতে বৃহস্পতিবার রাতে ট্রাকের সঙ্গে বাসের সংঘর্ষ হয়। এ দুর্ঘটনায় নুসরাত (ইনসেটে) সহ ৪ জন নিহত হন। ছবি: সংগৃহীত

স্ট্রোক করে বরিশাল শের-ই-বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন বাবা। স্বামী ও সন্তানসহ বাবাকে দেখতে ঢাকা থেকে বাসে যাচ্ছিলেন নুসরাত জাহান। 

কিন্তু একটি ট্রাকের সঙ্গে বাসটির সংঘর্ষে নিহত হন নুসরাত। এ দুর্ঘটনায় আরও ৩ জন নিহত ও নুসরাতের স্বামী আমিনুল ও তিন বছরের ছেলে মুনতাসীরসহ ৮ জন আহত হয়।

গতকাল বৃহস্পতিবার রাতে মাদারীপুরের শিবচরে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এক্সপ্রেসওয়েতে এ দুর্ঘটনা ঘটে।

নিহতরা হলেন-পটুয়াখালীর বাউফল উপজেলার নুসরাত (২৫), ঝালকাঠির নলছিটি উপজেলার মো. রিয়াজুল ইসলাম (৩৮), বরিশালের উজিরপুর উপজেলার স্বপন বাড়ৈ (৪৪) ও সিরাজগঞ্জ সদরের মাহাবুবুর রহমান (২৮)।

শিবচর হাইওয়ে পুলিশের পরিদর্শক মো. শাকিল দ্য ডেইলি স্টারকে এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

তিনি জানান, বৃহস্পতিবার রাত পৌনে ৮টার দিকে এক্সপ্রেসওয়ের সূর্যনগর বাসস্ট্যান্ড সংলগ্ন এলাকায় ট্রাকের পেছনে যাত্রীবাহী বাস ধাক্কা দিলে এ দুর্ঘটনা ঘটে।

নিহত নুসরাতের স্বামী আহত আমিনুলের চাচাতো ভাই আবদুল বারেক ডেইলি স্টারকে বলেন, 'ছেলে মুনতাসীর ও প্রকৌশলী স্বামী আমিনুলকে নিয়ে ঢাকায় থাকতেন নুসরাত। মঙ্গলবার নুসরাতের বাবা মো. জাকির হোসেন তালুকদার স্ট্রোক করে বরিশাল শের–ই–বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি হন। খবর পেয়ে স্বামী-সন্তানকে নিয়ে গতকাল সন্ধ্যায় ঢাকা থেকে বরিশালের উদ্দেশে রওনা হন নুসরাত। পথে এ দুর্ঘটনা হলো।'

আমিনুল ও শিশু মুনতাসীর বর্তমানে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন বলে জানান তিনি।

বারেক আরও বলেন, 'হাসপাতালে চিকিৎসাধীন নুসরাতের বাবা এখনো জানেন না যে তার একমাত্র মেয়ে আর বেঁচে নেই। নুসরাতের স্বামীকেও জানানো হয়নি স্ত্রীর মৃত্যুর সংবাদ।'

হাইওয়ে পুলিশ কর্মকর্তা শাকিল জানান, বাসটি দ্রুতগতিতে চলছিল বলে ধারণা করা হচ্ছে। এ দুর্ঘটনার বিষয়ে সড়ক দুর্ঘটনা আইনে মামলার প্রস্তুতি নেওয়া হচ্ছে।

Comments