ভাষানটেকে গ্যাস সিলিন্ডারের লিকেজ থেকে আগুন, দগ্ধ ৬

আজ ভোর ৪টার দিকে ভাষানটেক নতুন বাজার এলাকার একটি বাসায় এ ঘটনা ঘটে। দগ্ধরা সবাই একই পরিবারের সদস্য।
cylinder-blast.jpg
প্রতীকী ছবি: স্টার অনলাইন গ্রাফিক্স

রাজধানীর ভাষানটেকে একটি বাসায় গ্যাস সিলিন্ডারের লিকেজ থেকে আগুনে একই পরিবারের ছয় জন দগ্ধ হয়েছেন।

গুরুতর দগ্ধ অবস্থায় তাদের শেখ হাসিনা জাতীয় বার্ন ও প্লাস্টিক সার্জারি ইনস্টিটিউটে ভর্তি করা হয়েছে।

শুক্রবার ভোর ৪টার দিকে ভাষানটেক নতুন বাজার কালভার্ট রোডের ৪/১৩ নম্বর বাসায় এই দুর্ঘটনা ঘটে।

দগ্ধরা হলেন, মো. লিটন (৪৮), তার স্ত্রী সূর্য বানু (৩৫), তাদের ৩ সন্তান লিজা (১৮), লামিয়া (৭), সুজন (৯), ও লিটনের শাশুড়ি মেহরুন্নেছা (৭০)।

তাদের প্রতিবেশী ভাড়াটিয়া ময়না বেগম জানান, লিটনের বাড়ি ময়মনসিংহ। পরিবার নিয়ে কালভার্ট রোডের দোতলা বাড়িটির নিচ তলায় ভাড়া থাকেন। এলাকাতেই ফার্নিচার ব্যবসা রয়েছে। ভোরে লিটন মশার কয়েল জ্বালানোর জন্য দিয়াশলাই জ্বালাতেই আগুনের ঘটনা ঘটে। এতে পরিবারটির ছয় জনই দগ্ধ হন।

তিনি জানান, বাসাটিতে গ্যাস সিলিন্ডার দিয়ে রান্না করতেন তারা। সবাই ধারণা করছেন, সিলিন্ডারে লিকেজের কারণে বাসায় গ্যাস জমে ছিল।

ফায়ার সার্ভিসের ডিউটি অফিসার শফিকুল ইসলাম দ্য ডেইলি স্টারকে বলেন, স্থানীয়রা জানিয়েছেন সিলিন্ডার গ্যাসের লিকেজ থাকায় মশার কয়েল জ্বালানোর জন্য দিয়াশলাই জ্বালানোর কারণে আগুনের ঘটনা ঘটে। খবর পেয়ে ফায়ার সার্ভিসের দুটি ইউনিট সেখানে যায়। তবে আমরা পৌঁছানোর আগেই স্থানীয়রা তাদের হাসপাতালে নিয়ে যায়।  

বার্ন ইনস্টিটিউটের জরুরি বিভাগের আবাসিক সার্জন ডা. তরিকুল ইসলাম জানান, লিটনের শরীরের ৬৭ শতাংশ, স্ত্রী সূর্য বানুর ৮২ শতাংশ, লিজার ৩০ শতাংশ, লামিয়ার ৫৫ শতাংশ, সুজনের ৪৩ শতাংশ ও মেহরুন্নেছার ৪৭ শতাংশ দগ্ধ হয়েছে। তাদের সবার অবস্থাই আশঙ্কাজনক।

Comments