কেরানীগঞ্জে বাকপ্রতিবন্ধী নারীকে ধর্ষণের পর পুড়িয়ে হত্যার অভিযোগ

কেরানীগঞ্জ কদমতলি সুভাঢ্যা এলাকায় এক বাকপ্রতিবন্ধী নারীকে (৩৫) ধর্ষণের পর পুড়িয়ে হত্যার অভিযোগ পাওয়া গেছে।
মিরপুরে নির্মাণাধীন ভবন থেকে পড়ে ২ শ্রমিকের মৃত্যু
প্রতীকী ছবি। স্টার ডিজিটাল গ্রাফিক্স

কেরানীগঞ্জ কদমতলি সুভাঢ্যা এলাকায় এক বাকপ্রতিবন্ধী নারীকে (৩৫) ধর্ষণের পর পুড়িয়ে হত্যার অভিযোগ পাওয়া গেছে।

মঙ্গলবার রাত ৮টার দিকে চিকিৎসাধীন অবস্থায় শেখ হাসিনা জাতীয় বার্ন ইনস্টিটিউটের আইসিইউতে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান তিনি।

দক্ষিণ কেরানীগঞ্জের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শাহজামাল বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

তিনি দ্য ডেইলি স্টারকে বলেন, 'সোমবার রাত ১১টায় ওই নারীকে অচেতন অবস্থায় উদ্ধার করে বার্ন ইনস্টিটিউটে ভর্তি করে কয়েকজন পুলিশ সদস্য। তখনো আমরা বুঝতে পারিনি যে তিনি বাকপ্রতিবন্ধী। পরে তার ফিঙ্গারপ্রিন্ট নিয়ে পরিচয় শনাক্ত করা হয়। পরিবারে খবর দিলে তারা জানায় তিনি কয়েকদিন ধরে নিখোঁজ ছিলেন।'

তার শরীরের ৬৫ শতাংশ দগ্ধ হয়েছিল বলে জানান তিনি।

ওসি আরও বলেন, 'বিষয়টি তদন্ত চলছে। নিহতের ভাই থানায় একটি হত্যা মামলা করেছে। ওই নারীকে ধর্ষণ করা হয়েছে বলে অভিযোগ এসেছে। ময়নাতদন্তের পর বিষয়টি জানা যাবে।'

Comments