অপরাধ ও বিচার

বিমানের পাইলট নিয়োগ ও ফ্লাইট পরিচালনায় অনিয়ম তদন্তে আইনি নোটিশ

বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের পাইলট নিয়োগ ও ফ্লাইট পরিচালনায় অনিয়মের বিষয়টি ৫ দিনের মধ্যে স্বাধীন কমিটির মাধ্যমে তদন্ত করতে সরকারকে আইনি নোটিশ পাঠিয়েছেন সুপ্রিম কোর্টের এক আইনজীবী।
র‍্যানসমওয়্যারের আক্রমণে বিমানের ই-মেইল সার্ভার ডাউন

বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের পাইলট নিয়োগ ও ফ্লাইট পরিচালনায় অনিয়মের বিষয়টি ৫ দিনের মধ্যে স্বাধীন কমিটির মাধ্যমে তদন্ত করতে সরকারকে আইনি নোটিশ পাঠিয়েছেন সুপ্রিম কোর্টের এক আইনজীবী।

সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী তানভীর আহমেদ সরকারের সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষকে ওই আইন নোটিশ পাঠিয়েছেন। আইনি নোটিশে তিনি বলেছেন, অনিয়ম তদন্তে কমিটি গঠন না করা হলে তাদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

এর আগে, গত ১ মার্চ দ্য ডেইলি স্টারে বিমানের পাইলট নিয়োগ ও ফ্লাইট পরিচালনায় অনিয়ম নিয়ে প্রতিবেদন প্রকাশিত হয়। ওই প্রতিবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে তিনি এ আইনি নোটিশ পাঠান।

আইনি নোটিশে তানভীর আহমেদ বলেন, 'আমাদের জাতীয় উড়োজাহাজ সংস্থা যেভাবে চলছে তা জেনে আমি অবাক হয়েছি।'

এতে আরও বলা হয়, 'গত বছরের ফেব্রুয়ারিতে বিমান বোয়িং ৭-৩০০ইআর উড়োজাহাজের জন্য চুক্তিভিত্তিক পাইলটদের একটি ব্যাচ নিয়োগ দিয়েছিল। দাবি করা হয়েছিল, পাইলট ঘাটতির কারণে দ্রুত পাইলট নিয়োগ দেওয়া প্রয়োজন।'

'এক বছর পরে ১৪ জন পাইলটের ব্যাচের মধ্যে মাত্র ৫ জন ফ্লাইট পরিচালনা করতে পেরেছিলেন। বাকিরা জাল সার্টিফিকেট, অযোগ্যতা এবং লাইসেন্স পরীক্ষায় ফেল করার চক্রে হারিয়ে যান। তাদের বাড়তি বেতন ও প্রশিক্ষণের জন্য বিমান বিপুল পরিমাণ অর্থ ব্যয় করা হয়েছে, যা সবগুলোই অপচয় হয়েছে।'

আইনি নোটিশে 'নিয়োগপ্রাপ্ত ১৪ পাইলটের মাত্র ৫ জন বোয়িং ৭৭৭ এর যোগ্য' উল্লেখ করে ওই আইনজীবী বলেন, 'বিমানের প্রশিক্ষণ পরিচালক তার পাইলট স্ত্রীকেও রক্ষায় আইন লঙ্ঘন করেছেন।'

Comments