মধুপুর

চলন্ত বাসে ডাকাতি, ছুরিকাঘাতে আহত ৭

আহতদের মধ্যে জামালপুর সদর উপজেলার মেষ্টা গ্রামের মসির উদ্দিনের ছেলে তারা মিয়া (৪০) ও সরিষাবাড়ী উপজেলার সাতপোয়া গ্রামের রবিউল ইসলামের স্ত্রী কাকলি বেগমকে (৩৫) উন্নত চিকিৎসার জন্য ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠা‌নো হ‌য়ে‌ছে।
বাসে ডাকাতি
জামালপুরের মাদারগঞ্জগামী মাদারগঞ্জ স্পেশাল পরিবহনের এই বাসটিতে ডাকাতদের ছুরিকাঘাতে ৭ যাত্রী আহত হ‌য়েছেন। ছবি: সংগৃহীত

টাঙ্গাইলের মধুপুরে যাত্রীবাহী বা‌সে ডাকাতির ঘটনা ঘটেছে। সেসময় ডাকাতদের এলোপাথাড়ি ছুরিকাঘাতে বাসটির ৭ যাত্রী আহত হ‌ন।

আজ মঙ্গলবার ভোররাত দেড়টার দিকে টাঙ্গাইল-ময়মনসিংহ মহাসড়‌কের র‌ক্তিপাড়া এলাকায় এই ঘটনা ঘ‌টে।

আহতদের মধ্যে জামালপুর সদর উপজেলার মেষ্টা গ্রামের মসির উদ্দিনের ছেলে তারা মিয়া (৪০) ও সরিষাবাড়ী উপজেলার সাতপোয়া গ্রামের রবিউল ইসলামের স্ত্রী কাকলি বেগমকে (৩৫) উন্নত চিকিৎসার জন্য ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠা‌নো হ‌য়ে‌ছে।

আহত অপর ৫ জন প্রাথমিক চিকিৎসা নিয়েছেন।

বাসের যাত্রী রবিউল ইসলাম দ্য ডেইলি স্টারকে বলেন, 'ঢাকার মহাখালী বাস টার্মিনাল থেকে রাত ১০টায় ৩০/৪০ যাত্রী নিয়ে মাদারগঞ্জ স্পেশাল পরিবহনের বাসটি জামালপুরের মাদারগঞ্জের উদ্দেশ্যে ছেড়ে আসে। পথে আশুলিয়া বাইপাইল টিকেট কাউন্টারে এসে বাসটি বিরতি নেয়।'

'সে সময় সেই কাউন্টার থেকে ৮/১০ জন টিকিট কেটে গাড়িতে ওঠেন। বাসটি মধুপুরের দেওলাবাড়ি পার হলে যাত্রীবেশী ডাকাতরা বাসটির নিয়ন্ত্রণ নেয়। যাত্রীদের জিম্মি করে নগদ টাকা, মোবাইল ফোন ও স্বর্ণালংকার লুট করে।'

তিনি আরও বলেন, 'বাধা দিলে ডাকাতরা ৭ যাত্রীকে পিটিয়ে ও ছুরিকাঘাতে আহত করে মধুপুরের নরকোণা এলাকায় নেমে পালিয়ে যায়।'

আহত যাত্রীদের চিকিৎসার জন্য চালক গাড়ি চালিয়ে মধুপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যায় বলে জানান তিনি।

মধুপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মাজহারুল আমিন ডেইলি স্টারকে বলেন, 'ডাকাতরা ৫ লাখ টাকার বেশি দামের মালামাল লুটে নিয়েছে বলে যাত্রীরা জানিয়েছেন। এ ঘটনায় মামলা দায়ের প্রক্রিয়াধীন।'

'জড়িতদের ধরতে অভিযান অব্যাহত আছে,' যোগ করেন তিনি।

Comments

The Daily Star  | English

Situation still tense at Shanir Akhra

Protesters, cops hold positions after hours of clashes; one feared dead; six wounded by shotgun pellets; Hanif Flyover toll plaza, police box set on fire

6h ago