মানিকগঞ্জ

শিশুপুত্রকে বিষপানে হত্যার পর নারী চিকিৎসকের আত্মহত্যার চেষ্টা

মানিকগঞ্জে সাত বছরের শিশুকে বিষ খাইয়ে হত্যার পর তা পান করে বেসরকারি হাসপাতালের এক নারী চিকিৎসক আত্মহত্যার চেষ্টা করেছেন বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে।
স্টার অনলাইন গ্রাফিক্স

মানিকগঞ্জে সাত বছরের শিশুকে বিষ খাইয়ে হত্যার পর তা পান করে বেসরকারি হাসপাতালের এক নারী চিকিৎসক আত্মহত্যার চেষ্টা করেছেন বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে।

আজ শনিবার সকালে জেলা শহরের গঙ্গাধরপট্টি এলাকার খান মজলিশ টাওয়ারে ওই নারী চিকিৎসকের ভাড়া করা ফ্ল্যাটে এ ঘটনা ঘটে।

পারিবারিক সূত্রে জানা গেছে, অভিযুক্ত ডা. মিতা সরকার মানিকগঞ্জে ট্রমা সেন্টার নামে একটি বেসরকারি হাসপাতালে কর্মরত। সম্প্রতি স্বামী ডা. রঞ্জন কুমার মণ্ডলের সঙ্গে তার বিচ্ছেদ হয়। এরপর থেকে তিনি শিশুপুত্র রসু মণ্ডলকে নিয়ে জেলা শহরের খান মজলিশ টাওয়ারের একটি ফ্ল্যাটে ভাড়ায় থাকতেন।

ডা. মিতা সরকারের সাবেক স্বামীর বাবা ডা. রঞ্জিত কুমার মণ্ডল দ্য ডেইলি স্টারকে বলেন, 'আজ সকাল সাড়ে ৮টার দিকে ওই বাসার কাজের মেয়ের মাধ্যমে জানতে পারি যে, আমার নাতিকে বিষ খাইয়ে হত্যার পর মিতা নিজেও বিষপানে আত্মহত্যার চেষ্টা চালায়।'

মানিকগঞ্জ ২৫০ শয্যাবিশিষ্ট জেনারেল হাসপাতালের চিকিৎসক ডা. সাহরিন গীতা ডেইলি স্টারকে বলেন, 'ডা. মিতা সরকারের শিশুপুত্র রসু মণ্ডলকে আজ সকালে মৃত অবস্থায় হাসপাতালে আনা হয়। ডা. মিতার সরকারের অবস্থা আশঙ্কাজনক হওয়ায় তাকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়েছে।'

এ বিষয়ে মানিকগঞ্জ সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আব্দুর রউফ সরকার ডেইলি স্টারকে বলেন, 'এ ঘটনায় থানায় এখন পর্যন্ত কেউ কোনো অভিযোগ করেননি। অভিযোগ পেলে তদন্ত করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে।'

Comments