অপরাধ ও বিচার
নাটোর

স্কুলশিক্ষার্থীকে বাড়ি থেকে ডেকে নিয়ে হত্যা, সহপাঠীসহ আটক ৪

আটককৃতরা প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে হত্যাকাণ্ডের সঙ্গে জড়িত থাকার কথা স্বীকার করেছে বলে পুলিশ জানিয়েছে।
শিশু চুরি
স্টার অনলাইন গ্রাফিক্স

নাটোরে বাড়ি থেকে ডেকে নিয়ে এক স্কুলশিক্ষার্থীকে পিটিয়ে ও ছুরিকাঘাতে হত্যার ঘটনায় ওই শিক্ষার্থীর দুই সহপাঠীসহ ৪ জনকে আটক করেছে পুলিশ। 

নিহত হিমেল হোসেন (১৫) নলডাঙ্গা থানার পিপরুল গ্রামের ফারুক সরদারের ছেলে এবং পাটুল-হাঁপানিয়া উচ্চ বিদ্যালয়ের নবম শ্রেণীর শিক্ষার্থী ছিল।

বৃহস্পতিবার বিকেল থেকে হিমেল নিখোঁজ ছিল। পরে দিবাগত রাত দেড়টার দিকে পিপরুল ইউনিয়ন পরিষদের পরিত্যক্ত ভবনের পাশে একটি খেত থেকে তার মরদেহ উদ্ধার করা হয়।

এ ঘটনায় তার দুই সহপাঠী পার্থ ও মেহেদীসহ ৪ জনকে আটক করে পুলিশ।

আজ শুক্রবার নাটোরের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (প্রশাসন ও অর্থ) এটিএম মাইনুল ইসলাম দ্য ডেইলি স্টারকে এসব তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

আটককৃতরা প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে হত্যাকাণ্ডের সঙ্গে জড়িত থাকার কথা স্বীকার করেছে বলে জানায় পুলিশ।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, বৃহস্পতিবার বিকেলে হিমেলকে বাড়ি থেকে ডেকে নিয়ে যায় পার্থ। এরপর থেকে নিখোঁজ ছিল সে। এ ঘটনায় হিমেলের বাবা ফারুক সরদার নলডাঙ্গা থানায় অভিযোগ করেন।

পরে তথ্য প্রযুক্তির সহায়তায় পুলিশ রাতেই পিপরুল গ্রামের বাসিন্দা পার্থকে আটক করে। পরে তার দেওয়া তথ্য অনুযায়ী অপর সহপাঠী হাপানিয়ার মেহেদী, সুজন ও শিমুলকে আটক করে পুলিশ। 

পুলিশ কর্মকর্তা মাইনুল ইসলাম বলেন, 'বাড়ি থেকে ডেকে নিয়ে যাওয়ার পর হিমেলের ফোনে কল দিলে রিসিভ হচ্ছিল না। বিষয়টি পুলিশকে জানালে তথ্য-প্রযুক্তি ব্যবহার করে মরদেহ উদ্ধার করা হয়।'

তিনি আরও বলেন, 'গ্রেপ্তার চারজন হত্যাকাণ্ডের সঙ্গে জড়িত থাকার কথা স্বীকার করেছে। নলডাঙ্গা থানায় একটি হত্যা মামলা হয়েছে।'

Comments