বরিশালে বাসা থেকে ৫ বছরের মেয়েসহ বাবার মরদেহ উদ্ধার

সকাল সাড়ে ১০টার দিকে কাউনিয়া থানা পুলিশ মরদেহ দুটি উদ্ধার করে।
বরিশাল নগরীতে বাসা থেকে বাবা ও পাঁচ বছরের মেয়ের মরদেহ উদ্ধার করা হয় আজ সকালে। ছবি: টিটু দাস/ স্টার

বরিশাল নগরীর দুই নম্বর ওয়ার্ডের কাউনিয়া মেইন রোডের একটি ভাড়া বাসা থেকে পাঁচ বছরের মেয়েসহ বাবার রক্তাক্ত মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ।

আজ বুধবার সকাল সাড়ে ১০টার দিকে কাউনিয়া থানা পুলিশ মরদেহ দুটি উদ্ধার করে।

মৃতরা হলেন- নাঈম হাওলাদার (৩৫) ও তার পাঁচ বছরের মেয়ে রোজা।

নাঈমের বাড়ি বরিশালের উজিরপুর উপজেলার বড়াকোঠা ইউনিয়নে।

ঘটনাস্থল একটি রক্তমাখা বটি উদ্ধার করেছে পুলিশ।

পুলিশ জানায় নাঈম বরিশালের একটি ওষুধ কোম্পানির গাড়ির ড্রাইভার হিসেবে কাজ করতেন। বেশ কয়েক মাস আগে তার চাকরি চলে যায়।

বাড়ির মালিক বাবুল হাওলাদার জানান, গত এক মাস আগে নাঈম হাওলাদার এই বাড়ি ভাড়া নেযন। কিছুদিন আগে তার চাকরি চলে গেছে বলে জানায়, কোরবানিতে তার নতুন চাকরি হওয়ার কথাও বলেছিল।

বাড়িওয়ালার ছেলে নাঈমুর রহমান পলাশ জানান, সকাল ৯টার দিকে, নাঈমের বোন আঁখি আক্তার আমাদের খবর দিলে আমরা পুলিশকে জানাই।

বরিশাল মেট্রোপলিটন পুলিশের সহকারী কমিশনার মো. সারোয়ার হোসেন বলেন, গত ছয় মাস আগে নাঈম হাওলাদার ও তার স্ত্রীর ডিভোর্স হয়েছে। স্ত্রী সন্তানকে তার কাছে নিতে চাইলেও, নাঈম তাকে দিতে ইচ্ছুক ছিলেন না। এই নিয়ে তাদের মধ্যে কথা কাটাকাটি হতো বলে নাঈমের পরিবার জানিয়েছে। আমরা প্রাথমিকভাবে ধারণা করছি, পারিবারিক হতাশা থেকে নাঈম প্রথমে তার শিশু কন্যাকে হত্যা ও পরে নিজের গলা কেটে আত্মহত্যা করেছেন।

পুলিশে ক্রাইম সিন ও সিআইডি ঘটনাস্থল থেকে আলামত সংগ্রহ করেছেন। তারা জানান, চার রুমের ওই বাসার একটি কক্ষের খাটের নিচ থেকে নাঈম হাওলাদারের গলাকাটা মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। অপর একটি কক্ষে তার মেয়ের মরদেহ ছিল।

পুলিশ জানায়, নাঈম ছাড়াও এই ফ্লাটে তার মা, বাবা, বোন ও তার মেয়ে ছিলেন। অন্যান্যদের জিজ্ঞাসাবাদ চলছে। সিসিটিভি ক্যামেরা উদ্ধার করে পুলিশ খতিয়ে দেখছে এটি হত্যা নাকি আত্মহত্যা।

Comments