বাংলাদেশ

এবারের বিশ্ব ইজতেমায় সাইবার নিরাপত্তা থাকবে: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

বিশ্ব ইজতেমায় নিরাপত্তার নিয়ে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল বলেছেন, বিশ্ব ইজতেমায় নিরাপত্তা ব্যবস্থা সব সময় যেমন থাকে, এবারও তাই থাকবে।
বিশ্ব ইজতেমা
শুক্রবার বিকেলে ইজতেমা ময়দানে ২ পর্বের বিশ্ব ইজতেমার প্রস্তুতি পর্যালোচনা সংক্রান্ত ফলোআপ সভায় সাংবাদিকদের সঙ্গে কথা বলেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল। ছবি: সংগৃহীত

বিশ্ব ইজতেমায় নিরাপত্তার নিয়ে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল বলেছেন, বিশ্ব ইজতেমায় নিরাপত্তা ব্যবস্থা সব সময় যেমন থাকে, এবারও তাই থাকবে।

সাইবার নিরাপত্তা যুক্ত করার প্রসঙ্গে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, 'আমরা যাকে সাইবার নিরাপত্তা বলি, সেই জায়গাতে কাজ করছি। সেখানে যেন কোনো ঝুঁকি না থাকে তা আমাদের পুলিশ বাহিনী তা কাভার করবে। আমাদের নিরাপত্তা বাহিনী পুলিশ, র‌্যাব, আনসার সবাই এখানে নিরাপত্তার কাজে যুক্ত থাকবে। প্রয়োজনে বিজিবিও প্রস্তুত থাকবে।'

আজ শুক্রবার বিকেলে টঙ্গীর ইজতেমা ময়দানে ২ পর্বের বিশ্ব ইজতেমার প্রস্তুতি পর্যালোচনা সংক্রান্ত ফলোআপ সভায় সাংবাদিকদের এসব বলেন তিনি।

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, 'বিশ্বইজতেমায় সবাই মিলিতভাবে আমাদের সব নিরাপত্তা বাহিনী এবং সামরিকবাহিনীও সহযোগিতা করছে। এখানে প্রতিবারই সামরিক বাহিনীর সদস্যরা তুরাগের ওপর পন্টুন ব্রিজ নির্মাণ করে থাকে। কাজেই সবারই এখানে দৃষ্টি আছে। আমি মনে করি এবারও অত্যন্ত সুন্দরভাবেই বিশ্ব ইজতেমা সম্পন্ন হবে।'

তিনি আরও বলেন, 'খোঁজ নিয়ে জানতে পারলাম ইতোমধ্যে বিশ্ব ইজতেমার প্রস্তুতি কাজের প্রায় ৯৫ ভাগ সম্পন্ন হয়েছে।'

২ পর্বের বিশ্বইজতেমা নিয়ে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, 'তারা আগেও ইজতেমা আয়োজন করেছেন, নতুন করে তাদের মধ্যে ভুল বোঝাবুঝি হওয়ার কিছু নেই। আমার মনে হয় তারা উভয়পক্ষই সুন্দরভাবে ইজতেমা শেষ করবেন। বিদেশি মেহমানরা (মুসল্লিরা) আগেও যেভাবে আসতেন, যেভাবে সুযোগ সুবিধা পেতেন এবারও তা অব্যাহত থাকবে। সেবার পরিধি আরও বৃদ্ধি ও সেবা যেন আরও সুন্দর ও দ্রুততার সঙ্গে পায়, সে ব্যাপারে আমরা ব্যবস্থা গ্রহণ করেছি।'

'বিদেশি মেহমানদের জন্য এবারে আরেকটু সুন্দর ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে। প্রথম পর্ব শেষে তারা ইজতেমাস্থল ত্যাগ করে আমাদের হাজি ক্যাম্পে অবস্থান করবে। আর দ্বিতীয় পর্বে বিদেশি মেহমান যারা আসবেন তারা ইজতেমা মাঠেই অবস্থান করবেন এবং ইজতেমা শেষে যার যার গন্তব্যে চলে যাবেন,' বলেন তিনি।

আগামী ১৩ জানুয়ারি থেকে ১৫ জানুয়ারি পর্যন্ত টঙ্গীর তুরাগ তীরে প্রথম দফায় এবং ২০ জানুয়ারি থেকে ২২ জানুয়ারি দ্বিতীয় দফায় এবারের বিশ্বইজতেমা অনুষ্ঠিত হবে। প্রতি পর্বেই শেষ দিন আখেরি মোনাজাত অনুষ্ঠিত হবে।

Comments