বাংলাদেশ

পাবনায় যানজট নিরসনে সড়কের অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ সওজের

পাবনা শহরকে যানজট মুক্ত করতে রাস্তা ও ফুটপাতের অবৈধ দখলদারদের বিরুদ্ধে উচ্ছেদ অভিযান শুরু করেছে সড়ক ও জনপথ বিভাগ (সওজ)। 
পাবনা শহরের প্রধান সড়কে সকাল থেকে এ অভিযান শুরু হয়। ছবি: সংগৃহীত

পাবনা শহরকে যানজট মুক্ত করতে রাস্তা ও ফুটপাতের অবৈধ দখলদারদের বিরুদ্ধে উচ্ছেদ অভিযান শুরু করেছে সড়ক ও জনপথ বিভাগ (সওজ)। 

১০ দিনব্যাপী এ অভিযান ১ জানুয়ারি থেকে শুরু হওয়ার কথা থাকলেও, সেদিন মাইকিং করে অবৈধ স্থাপনা সরিয়ে নেওয়ার নির্দেশ দিয়েছিল সওজ। নির্দেশ অমান্য করে অনেক অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ না হওয়ায় আজ রোববার সকাল থেকে এ উচ্ছেদ অভিযান শুরু হয়। 

পাবনা সড়ক ও জনপথ বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলী আবুল মনসুর আহমেদ দ্য ডেইলি স্টারকে বলেন, 'নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেটের নেতৃত্বে রোববার সকাল থেকে পাবনা শহরের প্রধান সড়কে এ অভিযান শুরু করা হয়। অভিযানে প্রায় ১ কিলোমিটার এলাকায় ছোটবড় মিলিয়ে প্রায় ১০০ অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ করা হয়।' 

অভিযানে বিভিন্ন মার্কেট ও দোকানের অতিরিক্ত শেড, ফুটপাতের দোকান এবং রাস্তার পাশে অবৈধভাবে গড়ে তোলা দোকানপাট উচ্ছেদ করা হয়। 

ছোটবড় মিলিয়ে প্রায় ১০০ অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ করা হয়। ছবি: সংগৃহীত

উচ্ছেদ হওয়া দোকানদাররা ডেইলি স্টারকে জানান, তাদের অনেকেই অভিযানের আগে দোকান ও মালামাল সরাতে পারেননি। 

পাবনা শহরের সিএনজি স্ট্যান্ডের ফুটপাতের ভাতের হোটেল মালিক আব্দুর রশিদ বলেন, 'অভিযান শুরু হওয়ায় দোকান পুরোটা সরাতে না পারায় আমার ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে।' 

চায়ের দোকানদার বেলাল হোসেন বলেন, 'রাস্তার জায়গা ছেড়ে দোকান করেছিলাম। কিন্তু আমার দোকানের কিছুটা ছাউনি রাস্তার ওপর চলে যাওয়ায় সেটি ভাঙা হয়েছে।'

সড়ক ও জনপথ বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলী আবুল মনসুর আহমেদ বলেন, 'কারও ক্ষতি করার জন্য অভিযান চালানো হয়নি। জেলা উন্নয়ন সমন্বয় কমিটির সিদ্ধান্ত অনুযায়ী পাবনা শহরকে যানজটমুক্ত করতে এর আগেই ১০ দিনের অভিযানের উদ্যোগ নেওয়া হয়েছিল।' 

'এ ব্যাপারে বারবার মাইকিং করে সচেতন করা হয়েছে। কিন্তু অনেকেই তাদের অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ না করায় অভিযান চালানো হয়েছে,' যোগ করেন তিনি।

Comments