মারধরের প্রতিবাদে পাবনা হাসপাতালের ইন্টার্ন-স্টুডেন্ট নার্সদের বিক্ষোভ

পাবনার ২৫০ শয্যা বিশিষ্ট জেনারেল হাসপাতালে দালালদের অপসারণসহ ৮ দফা দাবিতে বিক্ষোভ ও কর্মবিরতি পালন করছেন ইন্টার্ন ও স্টুডেন্ট নার্সরা।
বিক্ষোভ ও কর্মবিরতি পালন করছেন পাবনা হাসপাতালের ইন্টার্ন-স্টুডেন্ট নার্সরা। ছবি: স্টার

পাবনার ২৫০ শয্যা বিশিষ্ট জেনারেল হাসপাতালে দালালদের অপসারণসহ ৮ দফা দাবিতে বিক্ষোভ ও কর্মবিরতি পালন করছেন ইন্টার্ন ও স্টুডেন্ট নার্সরা।

গত মঙ্গলবার বিকেলে এক রোগীর কাছ থেকে অতিরিক্ত টাকা নেওয়ার প্রতিবাদ জানানোয় স্টুডেন্ট নার্সকে মারধর করার অভিযোগ ওঠে সাদ্দাম হোসেন নামে এক দালালের বিরুদ্ধে।

হাসপাতালের মহিলা ওয়ার্ডে কর্মরত এক নার্স নাম প্রকাশ না করার শর্তে বলেন, 'মঙ্গলবার বিকেলে সাদ্দাম এক রোগীর কাছ তেকে অতিরিক্ত টাকা চেয়ে দর কষাকষি শুরু করেন। সেসময় একটি বেসরকারি নার্সিং কলেজের দ্বিতীয় বর্ষের শিক্ষার্থী এর প্রতিবাদ করলে ক্ষিপ্ত হয়ে এক পর্যায়ে তাকে মারধর করেন সাদ্দাম।'

এ ঘটনার প্রতিবাদেই হাসপাতাল থেকে দালালদের অপসারণসহ ৮ দফা দাবিতে ইন্টার্ন ও স্টুডেন্ট নার্সরা কাজ বন্ধ করে বিক্ষোভ শুরু করেন। আজ টানা তৃতীয় দিনের মতো তারা এ কর্মসূচি পালন করেন। এতে হাসপাতালে স্বাভাবিক সেবা কার্যক্রমেও বিঘ্ন ঘটে।

স্টুডেন্ট নার্স অ্যাসোসিয়েশন সূত্রে জানা গেছে, হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের আশ্বাসে আপাতত তারা বিক্ষোভ বন্ধ রেখেছেন। কিন্তু, দাবি আদায়ের আগ পর্যন্ত তারা কাজে যোগ দেবেন না বলেও জানিয়েছেন।

হাসপাতালের নার্সিং সুপারভাইজার আক্তার বানু পপি দ্য ডেইলি স্টারকে বলেন, 'পাবনা জেনারেল হাসপাতালে বিভিন্ন বেসরকারি ক্লিনিক ও ডায়াগনস্টিক সেন্টারের অনেক এজেন্ট রয়েছে, যারা হাসপাতালে রোগীদের চিকিৎসা সেবা দিতেন।'

ডেইলি স্টারের পাবনা সংবাদদাতা জানিয়েছেন, বিষয়টি সমাধানের জন্য আজ দুপুর ২টায় হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ ও স্থানীয় প্রশাসন বৈঠকে বসেছে।

Comments