বাজারে ৮ ধরনের এয়ার কন্ডিশনার নিয়ে এসেছে গ্রি

ইলেক্ট্রো মার্ট গ্রুপ গত ২৫ বছর ধরে বাংলাদেশে গ্রির পণ্য বাজারজাত করছে। বর্তমানে ৫০টি বিক্রয়কেন্দ্রে গ্রির ১০০টিরও বেশি সিরিজের এসি পাওয়া যায়। এ ছাড়া, ১ হাজারেরও বেশি খুচরা ও পার্টনার আউটলেট ও শোরুমে গ্রির পণ্য পাওয়া যাচ্ছে।

তীব্র গরমে এয়ার কন্ডিশনারের (এসি) প্রয়োজন ও চাহিদা দিন দিন বাড়ছে। একটি ভালো মানের এসির পেছনে ব্যয় অনেকটা বিনিয়োগের মতোই। তাই কেনার আগে ভালো মানের এসি কেনাই উত্তম।

বর্তমানে বাংলাদেশে যেসব ব্র্যান্ডের এসি পাওয়া যাচ্ছে তার মধ্যে অন্যতম গ্রি। বিশ্বব্যাপী ১ লাখ ২৭ হাজার মডেলের আবাসিক এয়ার কন্ডিশনার এবং ১ হাজার মডেলের কমার্শিয়াল এয়ার কন্ডিশনার তৈরি ও সরবরাহ করছে গ্রি। বিশ্বের ২০০টিরও বেশি দেশে গ্রির ৪০০ মিলিয়ন ব্যবহারকারী রয়েছে।

ইলেক্ট্রো মার্ট গ্রুপ গত ২৫ বছর ধরে বাংলাদেশে গ্রির পণ্য বাজারজাত করছে। বর্তমানে ৫০টি বিক্রয়কেন্দ্রে গ্রির ১০০টিরও বেশি সিরিজের এসি পাওয়া যায়। এ ছাড়া, ১ হাজারেরও বেশি খুচরা ও পার্টনার আউটলেট ও শোরুমে গ্রির পণ্য পাওয়া যাচ্ছে।

আবাসিক ভবনগুলোর জন্য গ্রি ক্যাসেট, সিলিং, ফ্লোর স্ট্যান্ডিং, স্প্লিট ওয়াল মাউন্ট এবং পোর্টেবল টাইপ এসি তৈরি করে।

১. স্প্লিট ওয়াল মাউন্টেড

এ ধরনের এসি সাধারণত বাসা-বাড়িতে বেশি দেখা যায়।

স্প্লিট ওয়াল মাউন্টেডের ১ টন থেকে শুরু করে ৩ টন পর্যন্ত ২৪টি মডেলের এসি বাজারে পাওয়া যাচ্ছে। এর বাজারমূল্য ৫০ হাজার ৫০০ টাকা থেকে শুরু করে ১ লাখ ৬৪ হাজার টাকা পর্যন্ত।

এর মধ্যে উল্লেখযোগ্য কয়েকটি মডেল হলো-

জিএস-১২ এমইউ৪১০-মিউজ-স্প্লিট-১ টন

মূল্য: ৫০ হাজার ৫০০ টাকা

প্রাপ্তিস্থান: ইলেক্ট্রো মার্ট লিমিটেড

ধরন: নন-ইনভার্টার

কমপ্রেসার: রোটারি

আকার: ৮৮৯×২৯৪×২১২ এমএম (ইনডোর ইউনিট)

নেট ওজন: ১০-১২ কেজি (ইনডোর ইউনিট)

পাওয়ার সাপ্লাই: সিঙ্গেল, ২২০ থেকে ২৪০ ভোল্ট, ৫০ হার্জ

কুলিং ক্যাপাসিটি: ১২ হাজার বিটিউ বা ব্রিটিশ থার্মাল ইউনিট

কুলিং পাওয়ার ইনপুট: ১০৭০ ওয়াট

জিএস-১২ এক্সপিইউভি৩২-১ টন

মূল্য: ৫৮ হাজার ৪০০ টাকা

প্রাপ্তিস্থান: ইলেক্ট্রো মার্ট লিমিটেড

ধরন: ইনভার্টার

কমপ্রেসার: রোটারি

আকার: ৮২৫×২৯৩×১৯৬ এমএম (ইনডোর ইউনিট)

নেট ওজন: ১০ কেজি (ইনডোর ইউনিট)

পাওয়ার সাপ্লাই: ১ পিএইচ, ২২০ থেকে ২৪০ ভোল্ট, ৫০ হার্জ

কুলিং ক্যাপাসিটি: ১২ হাজার ৯৬৫ বিটিউ বা ব্রিটিশ থার্মাল ইউনিট

কুলিং পাওয়ার ইনপুট: ১১৬২ ওয়াট

২. পোর্টেবল এসি

পোর্টেবল এসিগুলো ইন্সটল করা অনেক সহজ এবং এগুলো বেশ বিদ্যুৎ সাশ্রয়ী হয়। নাম থেকেই আন্দাজ করা যায় যে পোর্টেবল এসিগুলো প্রয়োজন অনুসারে সহজেই এক জায়গা থেকে অন্য জায়গায় সরানো যায়।

জিপি-১২এনএলএফ ৪১০-১ টন

মূল্য: ৫১ হাজার ৫০০ টাকা

প্রাপ্তিস্থান: ইলেক্ট্রো মার্ট লিমিটেড

ধরন: নন-ইনভার্টার

কমপ্রেসার: রোটারি

আকার: ৩৯০×৮২০×৪০৫ এমএম (ইনডোর ইউনিট)

নেট ওজন: ৩৯ কেজি (ইনডোর ইউনিট)

পাওয়ার সাপ্লাই: ১ পিএইচ, ২২০ থেকে ২৪০ ভোল্ট, ৫০ হার্জ

কুলিং ক্যাপাসিটি: ১২ হাজার বিটিউ বা ব্রিটিশ থার্মাল ইউনিট

কুলিং পাওয়ার ইনপুট: ১৫৫০ ওয়াট

৩. সিলিং এসি

সিলিং এসিগুলো তুলনামূলক বড় আকৃতির রুমের জন্যে উপযোগী। এগুলো খুব দ্রুত রুম ঠাণ্ডা করতে সক্ষম।

বর্তমানে বাংলাদেশের বাজারে গ্রি সিলিং এসির ৩ টন থেকে শুরু করে ৫ টন পর্যন্ত ৩টি মডেল পাওয়া যাচ্ছে। যেগুলোর বাজারমূল্য ১ লাখ ৫৯ হাজার ৯৯০ টাকা থেকে শুরু করে ২ লাখ ৫৯ হাজার ৯৯০ টাকা পর্যন্ত।

জিএস-৬০এক্সডিডাব্লিউভি৩২-৫ টন

মূল্য: ২ লাখ ৫৯ হাজার ৯৯০ টাকা

প্রাপ্তিস্থান: ইলেক্ট্রো মার্ট লিমিটেড

ধরন: ইনভার্টার

কুলিং ক্যাপাসিটি: ৬০ হাজার বিটিউ বা ব্রিটিশ থার্মাল ইউনিট

৪. ক্যাসেট এসি

ক্যাসেট এসিগুলোও সিলিং এসির মতো দেয়ালের পরিবর্তে সিলিংয়ে লাগানো হয়। এগুলো সাধারণত অফিস, ক্লাসরুম কিংবা বড় অ্যাপার্টমেন্টে লাগানো হয়। ক্যাসেট এসিগুলো সাধারণত বর্গাকার আকারের হয়ে থাকে এবং কেন্দ্র থেকে চারপাশে বাতাস দিতে পারে।

বাংলাদেশের বাজারে গ্রির ক্যাসেট এসির ১ দশমিক ৫ টন থেকে শুরু করে ৫ টন পর্যন্ত ৬টি মডেল পাওয়া যাচ্ছে। যেগুলো সবগুলোই ইনভার্টার এসি। এগুলোর বর্তমান বাজারমূল্য ৯৭ হাজার ৯৯০ টাকা থেকে শুরু করে ২ লাখ ৪৯ হাজার ৯৯০ টাকা পর্যন্ত।

জিএস-১৮এক্সটিডাব্লিউভি৩২-১.৫ টন

মূল্য: ৯৭ হাজার ৯৯০

প্রাপ্তিস্থান: ইলেক্ট্রো মার্ট লিমিটেড

ধরন: ইনভার্টার

কমপ্রেসার: রোটারি

আকার: ৫৭০×২৬৫×৫৭০ এমএম (ইনডোর ইউনিট)

নেট ওজন: ১৭-২১ কেজি (ইনডোর ইউনিট)

পাওয়ার সাপ্লাই: ১ পিএইচ, ২২০ থেকে ২৪০ ভোল্ট, ৫০ হার্জ

কুলিং ক্যাপাসিটি: ১ হাজার ৮০০ বিটিউ বা ব্রিটিশ থার্মাল ইউনিট

কুলিং পাওয়ার ইনপুট: ১৬০০ ওয়াট

৫. ফ্লোর স্ট্যান্ডিং এসি

এই ধরনের এসি সিলিং কিংবা দেয়ালের পরিবর্তে লম্বালম্বিভাবে মেঝেতে দাঁড় করানো অবস্থায় ইন্সটল করা হয়। এগুলো বেশ দ্রুত ইন্সটল করা যায় এবং রক্ষণাবেক্ষণও সহজ।

বাজারে গ্রির ৯টি মডেলের ফ্লোর স্ট্যান্ডিং এসি পাওয়া যাচ্ছে। ২ টন থেকে শুরু করে ৭ দশমিক ৫ টন পর্যন্ত বিভিন্ন মডেলের এসিগুলোর বর্তমান বাজারমূল্য ১ লাখ ৯ হাজার ৯৯০ টাকা থেকে শুরু করে ৪ লাখ ৮৯ হাজার ৯৯০ টাকা পর্যন্ত।

জিএফ-৩৬এক্সটিএস৪১০-৩ টন

মূল্য: ১ লাখ ৭৪ হাজার ৯৯০

প্রাপ্তিস্থান: ইলেক্ট্রো মার্ট লিমিটেড

কুলিং ক্যাপাসিটি: ৩৬ হাজার বিটিউ বা ব্রিটিশ থার্মাল ইউনিট

৬. গ্রি এয়ার কুলার

গ্রির বেশ কয়েক ধরনের এয়ার কুলার রয়েছে। যেগুলোয় ২০, ৪০ ও ৬০ লিটারের পানির ট্যাংক রয়েছে।

বাংলাদেশের বাজারে গ্রি এয়ার কুলারের ৬টি মডেল পাওয়া যাচ্ছে। যেগুলোর বাজারমূল্য ১৫ হাজার ৯৯০ টাকা থেকে শুরু করে ১৯ হাজার ৯৯০ টাকার পর্যন্ত।

কেএসডাব্লিউকে-২০০১ডিজিএল

মূল্য: ১৫ হাজার ৯৯০

প্রাপ্তিস্থান: ইলেক্ট্রো মার্ট লিমিটেড

ট্যাঙ্ক: ২০ লিটার

আকার: ৩৯০×৩৫০×৮৮০ এমএম

নেট ওজন: ১৬ কেজি

পাওয়ার সাপ্লাই: ২২০ থেকে ২৪০ ভোল্ট, ৫০ হার্জ

এয়ার স্পিড: ৯ এম/এস

৭. ডাক্ট স্প্লিট টাইপ, মাল্টি ভিআরএফ এবং চিলার এসি

অনাবাসিক বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান, যেমন: মার্কেট, হাসপাতাল, বড় অফিস, ইন্ডাস্ট্রিয়াল প্ল্যান্ট ইত্যাদির জন্য গ্রি ডাক্ট স্প্লিট টাইপ, মাল্টি ভিআরএফ এবং চিলার এয়ার কন্ডিশনার সিস্টেম তৈরি করে থাকে। এই সেন্ট্রাল এসিগুলো অত্যন্ত শক্তিশালী হয়।

বাংলাদেশের বাজারে গ্রির ডাক্ট স্প্লিট টাইপের ৩টি মডেলের এসি পাওয়া যাচ্ছে। যেগুলো ৫ দশমিক ৫ টন থেকে শুরু করে ১০ দশমিক ৮ টন পর্যন্ত হয়ে থাকে। মডেলভেদে এগুলোর বাজার মূল্য ৪ লাখ ৭৪ হাজার টাকা থেকে শুরু করে ৫ লাখ ৪৯ হাজার ৯৯০ টাকা পর্যন্ত হয়ে থাকে।

এফজিআর৪০/বিএনএ-এম-১০.৮ টন

মূল্য: ৫ লাখ ৪৯ হাজার ৯৯০ টাকা

প্রাপ্তিস্থান: ইলেক্ট্রো মার্ট লিমিটেড

ধরন: নন-ইনভার্টার

কমপ্রেসার: রোটারি

আকার: ১৭০০×৬৫০×১১০০ এমএম (ইনডোর ইউনিট)

নেট ওজন: ২০৫-২৫৫ কেজি (ইনডোর ইউনিট)

পাওয়ার সাপ্লাই: ৩ পিএইচ, ৩৮০ গুণ ৪১৫ ভোল্ট, ৫০ হার্জ

কুলিং ক্যাপাসিটি: ১ লাখ ৩৪ হাজার ৭৭৪ থেকে ১ লাখ ৪৩ হাজার ৩০৪ বিটিউ বা ব্রিটিশ থার্মাল ইউনিট

কুলিং পাওয়ার ইনপুট: ১৫৮০ ওয়াট

৮. মাল্টি ভিআরএফ

মাল্টি ভিআরএফ এয়ার কন্ডিশনার আরও বড়। বাংলাদেশের বাজারে গ্রির ভিআরএফের ৩টি মডেল পাওয়া যাচ্ছে। এগুলো হলো মাল্টি ভিআরএফ (৮টিআর-৬৮টিআর), জিএমভি৫, জিএমভি৬ ইত্যাদি।

গ্রির বৃহৎ আকৃতির বেশ কিছু চিলার রয়েছে। বাংলাদেশের বাজারে গ্রির ৫টি মডেলের চিলার রয়েছে। এগুলো হলো: এয়ার কুলড স্ক্রু চিলার, এয়ার কুলড স্ক্রোল চিলার, মিনি চিলার, ওয়াটার কুলড সেন্ট্রিফিউগাল চিলার, ওয়াটার কুলড স্ক্রু চিলার ইত্যাদি।

গ্রি এসিতে বেশ কিছু বিশেষ ফিচার পাবেন। যার মধ্যে রয়েছে, শ্বাস-প্রশ্বাস পরিষ্কার রাখার জন্য ঠাণ্ডা প্লাজমা, অটো ক্লিন, স্মার্ট এআই কন্ট্রোল, ওয়াইফাই রিমোট কন্ট্রোল, ধোয়া সম্ভব এমন এয়ার পিউরিফাই ফিল্টার, থ্রিডি এয়ার ফ্লো, ফোর-ওয়ে এয়ার সুইং, আই-ফিল টেকনোলজি, সেলফ-ডায়াগনোসিস, গোল্ডেন জিন, ইন্টেলিজেন্ট ডিফ্রস্টিং, লো ভোল্টেজ স্টার্ট আপ, পরিবেশবান্ধব গ্যাস আর৩২ এর ব্যবহারসহ আরও বিস্তৃত সব ফিচার।

গ্রি ১০ বছরের কম্প্রেসার ওয়ারেন্টি, ১ বছরের খুচরা যন্ত্রাংশ ওয়ারেন্টি এবং ১ বছরের বিক্রয়োত্তর পরিষেবা প্রদান করে থাকে।

Comments

The Daily Star  | English
Facebook automatically logs out

Timeline not loading: Facebook hit with widespread outage

Facebook is reportedly experiencing technical difficulties, with several users unable to access their timelines. Complaints began surfacing around 10:30 AM Bangladesh time today, with users reporting a loading error that prevents anything from appearing on their timelines.

52m ago