বাংলাদেশ

১০ ভিক্ষুক পেলেন ‘বিকল্প কর্মসংস্থান ব্যবস্থা’

বিকল্প কর্মসংস্থান ও পুনর্বাসন কর্মসূচির অংশ হিসেবে তাদের এই দোকানঘরগুলো বরাদ্দ দেওয়া হয়েছে বলে জানিয়েছে সমাজসেবা কার্যালয়।
জাতীয় শোক দিবসে সমাজসেবা অধিদপ্তর থেকে বগুড়ায় ১০ জন ভিক্ষুককে দোকান উপহার দেওয়া হয়। ছবি: সংগৃহীত

বগুড়ায় জাতীয় শোক দিবসে সমাজসেবা অধিদপ্তর থেকে ১০ জন ভিক্ষুককে মালামালসহ মনোহারি টিনের দোকান উপহার দেওয়া হয়েছে।

বিকল্প কর্মসংস্থান ও পুনর্বাসন কর্মসূচির অংশ হিসেবে তাদের এই দোকানঘরগুলো বরাদ্দ দেওয়া হয়েছে বলে জানিয়েছে সমাজসেবা কার্যালয়।

আজ মঙ্গলবার বগুড়া জিলা স্কুল প্রাঙ্গণে দুপুর ১২টার দিকে এ উপহার তুলে দেওয়া হয়। জেলা সমাজ সেবা অফিস থেকে জানানো হয় যে এ বছর মোট ২৭ জন ভিক্ষুককে দোকানঘর দেওয়া হবে। এর পরে তারা দোকানগুলো নিজ নিজ ঠিকানায় নিয়ে যান।

দোকান পেয়ে মো. ফজর আলী (৬৫), দ্য ডেইলি স্টারকে বলেন, চার মেয়ের মধ্যে তিন মেয়ের বিয়ে দিয়েছি। এখন আর কাজ করতে পারি না। গত ৫-৬ বছর ধরে ভিক্ষা করতাম। এখন স্যারেরা একটা দোকান দিয়েছে। এখন আর ভিক্ষা করার কোনো ইচ্ছে নেই।'

বগুড়ার গাবতলীর মোছা. আসমা গত ৩০ বছর ধরে ভিক্ষা করছেন। ৩০ বছর আগে স্বামী মারা যান। দুই ছেলে বাড়ি-ঘর বিক্রি করে মাকে বাড়িতে রেখে ঢাকায় চলে গেছে। আসমার বয়স হয়েছে এখন আর তেমন ভিক্ষা করতে পারেন না। দোকানটা তার জীবিকার উৎস হবে বলেন আসমার ভাতিজা আমিরুল ইসলাম রঞ্জু।

জেলা সমাজসেবা অধিদপ্তরের উপ-পরিচালক আবু সাঈদ মো. কাওছার রহমান বলেন, 'সরকারের একটি লক্ষ্য হলো পিছিয়ে পড়া জনগোষ্ঠীকে মূলধারায় নিয়ে আসা। আজকে জাতীয় শোক দিবসে ১০ জন ভিক্ষুককে ৫০ হাজার টাকা মূল্যের (প্রতিটি দোকান ও মালামাল) উপহার দেওয়া হলো। এ বছর আরো ১৭ জনকে দেওয়া হবে যাতে তারা ভিক্ষাবৃত্তি ছেড়ে আসতে পারে।

দোকান বরাদ্দ অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন বগুড়া জেলা প্রশাসক মো. সাইফুল ইসলাম। প্রধান অতিথি ছিলেন বগুড়া-৬ (সদর) আসনের সংসদ সদস্য রাগেবুল আহসান রিপু।

Comments