নতুন বই ছাপাতে কোনো সংকট নেই, ১ জানুয়ারিতেই বই উৎসব: শিক্ষামন্ত্রী

‘গত বছর কাগজ, বিদ্যুৎসহ অন্য সংকট থাকলেও এ বছর তা নেই। ইতোমধ্যে প্রাথমিকের বই ছাপানোর টেন্ডার প্রক্রিয়া সম্পন্ন হয়েছে। মাধ্যমিকেরও টেন্ডার কাজ চলছে।'
শিক্ষামন্ত্রী দীপু মনি। স্টার ফাইল ছবি

আগামী শিক্ষাবর্ষে বই ছাপাতে কোনো ধরনের সংকট কিংবা সমস্যা নেই বলে মন্তব্য করেছেন শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি।

শিক্ষামন্ত্রী বলেন, 'গত বছর কাগজ, বিদ্যুৎসহ অন্য সংকট থাকলেও এ বছর তা নেই। ইতোমধ্যে প্রাথমিকের বই ছাপানোর টেন্ডার প্রক্রিয়া সম্পন্ন হয়েছে। মাধ্যমিকেরও টেন্ডার কাজ চলছে। টেন্ডার কাজ সম্পন্ন করার জন্য কমিটি রয়েছে। সেসব কমিটিতে এসব টেন্ডারগুলো যাচ্ছে এবং অনুমোদন হয়ে আসছে। আশা করছি, আগামী শিক্ষাবর্ষে যথাসময়ে সব বই উপজেলাগুলোতে পৌঁছে যাবে এবং জানুয়ারির ১ তারিখেই আমরা বই উৎসব করতে পারব।'

আজ শুক্রবার দুপুরে চাঁদপুর সার্কিট হাউজে জেলার আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি ও উন্নয়ন কর্মকাণ্ড নিয়ে প্রশাসনের সাথে মতবিনিময় অনুষ্ঠান শেষে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে তিনি এসব কথা বলেন।

আওয়ামী লীগের বিভিন্ন পর্যায়ে দ্বন্দ্ব নিরসনের বিষয়ে ডা. দীপু মনি বলেন, 'এই প্রতিকূলতা মূলত সব জায়গাতেই আছে। আওয়ামী লীগ একটি বড় দল। সাফল্যের সাথে একটানা গত ১৫ বছর প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে দেশ পরিচালনা করে আসছে। তার নেতৃত্বে দেশকে উন্নয়নের মহাসড়কে নেওয়া, মানুষের জীবনযাত্রার মান উন্নত, দেশের মান মর্যাদা বৃদ্ধি, প্রতিটি ক্ষেত্রে আমরা উন্নত হয়েছি এবং আমরা একটি উন্নত বিশ্বে যাওয়ার স্বপ্ন দেখছি। এখন আমাদের উন্নত দেশ গঠনের সব ধরনের সক্ষমতা তৈরি হয়েছে।'

শিক্ষামন্ত্রী আরও বলেন, 'তৃণমূল পর্যায় থেকে আমাদের যে সংগঠন, তা খুবই শক্তিশালী। কারণ আওয়ামী লীগের প্রাণ তৃণমূল। সামনে জাতীয় সংসদ নির্বাচন। আওয়ামী লীগ একটি বড় দল। সেই বড় দলে অনেক যোগ্য প্রার্থী আছে। যে কারণে স্বাভাবিকভাবেই রাজনৈতিক প্রতিযোগিতা থাকবে। সেক্ষেত্রে সুস্থ প্রতিযোগিতা থাকা উচিত। কোথাও কোথাও সেটা দ্বন্দ্বের সৃষ্টি করে। এটি সারা পৃথিবী ও সব রাজনৈতিক দলেই থাকে। কিন্তু সেটি যেন আমাদের রাজনৈতিক কর্মকাণ্ডকে কিংবা নির্বাচনের ফলাফলকে কোনোভাবে নেতিবাচক প্রভাব ফেলতে না পারে।'

'দ্বন্দ্ব নিরসনের জন্য কেন্দ্রীয়ভাবে কমিটি করে দেওয়া হয়েছে। এই কমিটি বিভাগ এবং প্রয়োজনে জেলা থেকেও উপজেলা পর্যায়ে দ্বন্দ্ব নিরসনে কাজ করছে। সারাদেশেই এই কাজ চলমান। এখন নির্বাচন আরও ঘনিয়ে আসছে, তাই এই ধরনের ছোটখাট দ্বন্দ্ব নিরসণে আওয়ামী লীগ সচেষ্ট,' যোগ করেন তিনি।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন চাঁদপুর জেলা প্রশাসক কামরুল হাসান, পুলিশ সুপার মোহাম্মদ সাইফুল ইসলাম, চাঁদপুর পৌরসভার মেয়র মো. জিল্লুর রহমান, ফরিদগঞ্জ উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান মো. জাহিদুল ইসলাম, জেলা মহিলা আওয়ামী লীগ সভানেত্রী মাসুদা নুর খানসহ আরও অনেকে।

Comments

The Daily Star  | English

Getting the price right for telecom consumers

In a price-sensitive market like Bangladesh, the price of telecom services quite often makes the headlines

2h ago