বাংলাদেশ

এই সরকার না থাকলে ডিসি-এসপিদের চাকরি থাকবে না: নারায়ণগঞ্জের আ. লীগ কাউন্সিলর

কাউন্সিলর ইফতেখার আলম খোকন নারায়ণগঞ্জ মহানগর আওয়ামী লীগের সহ-প্রচার সম্পাদক ও মহানগর কৃষকলীগের যুগ্ম-আহ্বায়ক।
কাউন্সিলর ইফতেখার আলম খোকন। ছবি: সংগৃহীত

'এই সরকার না থাকলে ডিসি-এসপিদের চাকরি থাকবে না' এমন মন্তব্য করেছেন নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশনের ১০ নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর ইফতেখার আলম খোকন। তিনি নারায়ণগঞ্জ মহানগর আওয়ামী লীগের সহ-প্রচার সম্পাদক ও মহানগর কৃষকলীগের যুগ্ম-আহ্বায়ক।

সম্প্রতি স্থানীয় একটি গণমাধ্যমে দেওয়া সাক্ষাৎকারে এমন মন্তব্য করেন তিনি। ওই সাক্ষাৎকারের একটি ভিডিও ইতোমধ্যে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ছড়িয়ে পড়েছে। 

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, গত ১২ সেপ্টেম্বর এ সাক্ষাৎকার দেন কাউন্সিলর খোকন। স্থানীয়ভাবে তিনি নারায়ণগঞ্জ-৪ আসনের সংসদ সদস্য এ কে এম শামীম ওসমানের অনুসারী বলে পরিচিত।

ভিডিওতে কাউন্সিলর খোকনকে বলতে শোনা যায়, 'সারা নারায়ণগঞ্জে বিএনপির লোকজন আওয়ামী লীগরে বকতেছে, শেখ হাসিনারে উচ্চবাচ্য করতেছে, আর বড় বড় নেতারা (আওয়ামী লীগের) পোস্ট লইয়া বইসা রইছে।'

তিনি বলেন, 'মেয়র কয়, এসপি-ডিসি তার কথা শোনে না। শুনব কেন? আপনারে পাশ করাইলে কী লাভ হয় দেশের? আজকে এসপি জানে এই সরকার না থাকলে আমার চাকরি থাকব না, ডিসি মনে মনে জানে এই সরকার না থাকলে আমারে ট্রান্সফার কইরা দিব, কোন জায়গায় কোন শাস্তি দিব।'

সাক্ষাৎকারে কাউন্সিলর খোকন নারায়ণগঞ্জের সিটি মেয়র ডা. সেলিনা হায়াৎ আইভীর বিষোদগারও করেন।

মেয়র আইভীকে উদ্দেশ্যে তিনি বলেন, 'এই সরকার না থাকলেও আপনার (মেয়র) মধ্যে তো কোনো ভয় নাই।'

'৩৬টা কাউন্সিলরের সঙ্গে আপনার ভালো সম্পর্ক থাকলে আমরা শামীম ওসমানের রাজনীতি করতাম না, আপনার নেতৃত্বে রাজনীতি করতাম। শামীম ওসমান এ কথা শুনলে আমারে বাইর কইরা দিব,' বলেন তিনি।

সাক্ষাৎকারে এক প্রশ্নের জবাবে তিনি আরও বলেন, 'অন্যান্য আওয়ামী লীগের নেতারা বাংলাদেশে থাকতে পারলে শামীম ওসমানও থাকতে পারবে। আমি তো আগে নিজে বাঁচব। দেশ ছেড়ে পালায় বা আত্মগোপন করে কারা, যাদের কারও সঙ্গে কোনো লিয়াজোঁ নেই।'  

এমন বক্তব্যের বিষয়ে জানতে চাইলে কাউন্সিলর ইফতেখার আলম খোকনের টেলিফোনে দ্য ডেইলি স্টারকে বলেন, 'আমি ঠিক ওইভাবে বলিনি, আমার সম্পূর্ণ বক্তব্য প্রকাশিত হয়নি। আমি বলেছি, যারা শিক্ষিত-মেধাবী, যারা মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাস সম্পর্কে জানে তারা স্বাভাবিকভাবে এই সরকারের পক্ষ নেয়, তারা সত্যের পক্ষে কথা বলেন। যারা সঠিক ইতিহাসের পক্ষে থাকে অন্য সরকার এলে তাদের চাকরি নাও থাকতে পারে। যারা সত্য বলেননি তাদের চাকরি যাবে না।'

তবে প্রজাতন্ত্রের কর্মচারীদের নিয়ে আওয়ামী লীগ নেতার এমন বক্তব্য 'ক্ষমতাসীন দল যে সরকারি কর্মকর্তাদের ব্যবহার করছে' সেটাই প্রমাণিত হয় বলে মন্তব্য করেছেন সুশাসনের জন্য নাগরিক (সুজন) সংগঠনের নারায়ণগঞ্জে জেলা সভাপতি ধীমান সাহা জুয়েল।

তিনি ডেইলি স্টারকে বলেন, 'ক্ষমতাসীন দল পুলিশ ও প্রশাসনকে অর্থাৎ প্রজাতন্ত্রের কর্মচারীদের তার সুবিধার্থে ব্যবহার করেছে এবং করছে। খোদ আওয়ামী লীগের একজন কাউন্সিলর তার বক্তব্যে সেটাই প্রমাণ করেছেন। আমরা দেখেছি, ডিসিও আওয়ামী লীগের পক্ষে ভোট চান। এক্ষেত্রে জনগণের আর কিছু বলারও থাকে না, করারও থাকে না। এটা দেশ ও জনগণের জন্য সুখকর নয়।'

Comments