বাংলাদেশ

বিমানবন্দর স্টেশন থেকে ওঠা ৩ ব্যক্তি আগুন দিতে পারে, সন্দেহ পিবিআইর

মোহনগঞ্জ এক্সপ্রেস ট্রেনে আজ ভোরে আগুনের ঘটনা ঘটে। ট্রেনের একটি বগি থেকে ৪ জনের মরদেহ উদ্ধার করেছে ফায়ার সার্ভিস।
পুড়ে যাওয়া মোহনগঞ্জ এক্সপ্রেস ট্রেনের বগি। ছবি: এস কে এনামুল হক/ স্টার

তেজগাঁওয়ে ট্রেনে আগুনের ঘটনাকে নাশকতামূলক কাজ বলে প্রাথমিকভাবে জানিয়েছে পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশন (পিবিআই)।

পিবিআই পুলিশ সুপার মো. মিজানুর রহমান আজ মঙ্গলবার ডেইলি স্টারকে বলেন, 'প্রাথমিক তদন্ত প্রমাণ করে যে এটি একটি নাশকতামূলক কাজ।'

তিনি আরও বলেন, 'আমরা সন্দেহ করছি যে তিন ব্যক্তি বিমানবন্দর স্টেশন থেকে ট্রেনের তিনটি বগিতে উঠেছিলেন তারা পেট্রোল ঢেলে আগুন লাগিয়ে দিতে পারেন। তদন্ত সাপেক্ষে এ বিষয়ে আমরা স্পষ্ট বলতে পারব।'

তিনি জানান, তারা এখন বিমানবন্দর স্টেশনের সিসিটিভি ফুটেজ সংগ্রহ করছেন এবং কারা সেখান থেকে ট্রেনে উঠেছিলেন এবং তেজগাঁও স্টেশন থেকে কারা নেমেছেন তা জানার চেষ্টা করছেন।

তেজগাঁও রেলওয়ে স্টেশনের ভারপ্রাপ্ত স্টেশন মাস্টার পার্বত আলী দ্য ডেইলি স্টারকে জানান, ট্রেনটি গতকাল রাত ১১টার দিকে মোহনগঞ্জ স্টেশন থেকে ছেড়ে ভোর ৪টা ৫০ মিনিটে বিমানবন্দর স্টেশনে পৌঁছায়।

মোহনগঞ্জ এক্সপ্রেস ট্রেনের পুড়ে যাওয়া বগি। ছবি: স্টার

তিনি বলেন, ট্রেনটি সরাসরি কমলাপুর রেলস্টেশনে যাওয়ার কথা ছিল এবং এর জন্য সবুজ সংকেত দেওয়া হয়েছিল।

ঘটনার প্রত্যক্ষদর্শী পার্বত বলেন, ভোর ৪টা ৫৮ মিনিটের দিকে তেজগাঁও স্টেশনে পৌঁছালে ট্রেনের বগি থেকে ধোঁয়া বের হতে দেখি।

'আমি তখনই জরুরি সুইচ চালু করে ট্রেন থামিয়ে দিই। লাল বাতি দেখে ট্রেনটি থেমে গেলেও ট্রেন তেজগাঁও রেলগেটে পৌঁছে গেছে সে সময়।'

পার্বত জানান, চ, বর্গিও জ ‌এবং ঝ নং বগিতে আগুন লেগেছে। 'আমরা স্টেশনে ফায়ার ফাইটিং টুল দিয়ে আগুন নেভানোর চেষ্টা করি এবং একই সাথে জরুরি সেবা নম্বর ৯৯৯ এ কল করে ফায়ার সার্ভিসকে জানাই, বলেন তিনি।

মোহনগঞ্জ এক্সপ্রেস ট্রেনেের পুড়ে যাওয়া বগি। ছবি: স্টার

সকাল সোয়া ৬টার দিকে আগুন নিয়ন্ত্রণে আসে এবং ট্রেনটি কমলাপুরের উদ্দেশে ছেড়ে যায়।

রাজধানীর তেজগাঁওয়ে মোহনগঞ্জ এক্সপ্রেস ট্রেনে আজ ভোরে আগুনের ঘটনা ঘটে। ট্রেনের একটি বগি থেকে চার জনের মরদেহ উদ্ধার করেছে ফায়ার সার্ভিস।

তেজগাঁও রেলওয়ে স্টেশনের স্টেশন মাস্টার শফিকুল ইসলাম দ্য ডেইলি স্টারকে বলেন, ট্রেনের চাকায় আগুন লেগে গেলেও ট্রেনের বাইরে কোনো আগুন লাগেনি।

'আগুন শুধুমাত্র ট্রেনের বগির ভিতরে ছিল, তাই আমরা সন্দেহ করছি যে এটি ভিতর থেকেই লেগে থাকতে পারে, বলেন তিনি।

কমলাপুরে ঘটনাস্থল থেকে বোমা নিষ্ক্রিয়করণ ইউনিট আলামত সংগ্রহ করেছে। প্রাথমিক তদন্তে বলা হচ্ছে, পেট্রোল ব্যবহার না করলে এত দ্রুত আগুন ছড়ানো সম্ভব নয়।

 

Comments