রাখাইনে অস্ত্রবিরতি ও রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসন নিয়ে যা বললেন চীনা রাষ্ট্রদূত

তিনি কক্সবাজারে আশ্রয় নেওয়া রোহিঙ্গাদের ফিরিয়ে নিতে বাংলাদেশ, মিয়ানমার এবং চীনের যৌথ সহযোগিতার বিষয়ে আস্থা রাখার জন্য সবাইকে আহ্বান জানান।
ঢাকায় চীনের রাষ্ট্রদূত ইয়াও ওয়েন। ছবি: সংগৃহীত

মিয়ানমারের রাখাইন রাজ্যে দেশটির সেনাবাহিনী ও আরাকান আর্মির মধ্যে সংঘাত বন্ধে অস্ত্রবিরতির জন্য মধ্যস্থতা করছে চীন। অস্ত্রবিরতি হলে রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসন নিয়ে আবার আলোচনার পথ সুগম হবে বলে জানিয়েছেন ঢাকায় চীনের রাষ্ট্রদূত ইয়াও ওয়েন।

আজ রোববার পররাষ্ট্রমন্ত্রী হাছান মাহমুদের সঙ্গে সৌজন্য সাক্ষাতের পর সাংবাদিকদের এ তথ্য জানান তিনি।

তিনি বলেন, 'আমাদের অবশ্যই চীনের মধ্যস্থতায় মিয়ানমার সরকারের তিনটি অস্ত্রবিরতির বিষয় মনে রাখতে হবে। আমরা রাখাইনেও অস্ত্রবিরতি প্রতিষ্ঠার জন্য কাজ করছি। আমরা আশা করি, রাখাইনে অস্ত্রবিরতি হলে তা রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসনের আলোচনা আবার শুরুর পথ সুগম করবে এবং তা সেখানে শান্তি ও স্থিতিশীলতা প্রতিষ্ঠায় সহায়ক হবে।'

তিনি কক্সবাজারে আশ্রয় নেওয়া রোহিঙ্গাদের ফিরিয়ে নিতে বাংলাদেশ, মিয়ানমার এবং চীনের যৌথ সহযোগিতার বিষয়ে আস্থা রাখার জন্য সবাইকে আহ্বান জানান।

নতুন পররাষ্ট্রমন্ত্রী হাছান মাহমুদের সঙ্গে তার প্রথম সাক্ষাতের বিষয়ে ইয়াও ওয়েন জানান, তারা চীন-বাংলাদেশ সম্পর্কের বর্তমান অবস্থা এবং ভবিষ্যৎ নিয়ে আলোচনা করেছেন। রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসন ইস্যুতেও তারা আলোচনা করেছেন বলে জানান তিনি।

পররাষ্ট্রমন্ত্রী হাছান মাহমুদ সাংবাদিকদের বলেন, 'রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসনে চীন মিয়ানমার কর্তৃপক্ষের সঙ্গে কাজ করছে। প্রত্যাবাসনের জন্য এটি খুব একটা অনুকূল সময় নয় তবে আশা করা হচ্ছে যে প্রত্যাবাসন শিগগিরই শুরু হবে।'

অন্যদিকে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে দ্রুততম সময়ে চীন সফরের আমন্ত্রণ জানানো হয়েছে উল্লেখ করে মন্ত্রী বলেন, 'আগেও চীন আমাদের প্রধানমন্ত্রীকে আমন্ত্রণ জানিয়েছিল। বাংলাদেশে নিযুক্ত চীনা রাষ্ট্রদূত আজ আবারও আমন্ত্রণ জানান।'

Comments

The Daily Star  | English

Dhaka footpaths, a money-spinner for extortionists

On the footpath next to the General Post Office in the capital, Sohel Howlader sells children’s clothes from a small table.

9h ago