বাংলাদেশ

প্রীতি উরাংয়ের মৃত্যুর সুষ্ঠু তদন্ত ও ন্যায়বিচার দাবি

এক বিবৃতিতে গৃহকর্মীদের সুরক্ষায় একটি আইন প্রণয়নের দাবিও জানিয়েছে এইচআরএফবি।
প্রীতি উরাংয়ের মৃত্যুর নিরপেক্ষ তদন্তের দাবিতে ১১ ফেব্রুয়ারি মৌলভীবাজারের কমলগঞ্জ উপজেলায় মানববন্ধন করেছেন চা-শ্রমিকরা। ছবি: সংগৃহীত

দ্য ডেইলি স্টারের নির্বাহী সম্পাদকের নবমতলার ফ্ল্যাট থেকে পড়ে গৃহকর্মী প্রীতি উরাংয়ের মৃত্যুর ঘটনায় নিরপেক্ষ তদন্ত ও সুষ্ঠু বিচার নিশ্চিত করার দাবি জানিয়েছে ২০টি মানবাধিকার সংগঠনের প্ল্যাটফর্ম হিউম্যান রাইটস ফোরাম বাংলাদেশ (এইচআরএফবি)।

এক বিবৃতিতে গৃহকর্মীদের সুরক্ষায় একটি আইন প্রণয়নের দাবিও জানিয়েছে এইচআরএফবি।

গত ৬ ফেব্রুয়ারি ডেইলি স্টারের নির্বাহী সম্পাদক সৈয়দ আশফাকুল হকের মোহাম্মদপুরের ফ্ল্যাট থেকে পড়ে মারা যান মৌলভীবাজারের কমলগঞ্জ উপজেলার প্রীতি উরাং (১৫)।

এ ঘটনায় পরদিন প্রীতির বাবা ও মিতিংগা চা বাগানের শ্রমিক লোকেশ উরাং বাদী হয়ে সৈয়দ আশফাকুল হক ও তার স্ত্রী তানিয়া খন্দকারকে আসামি করে মামলা করেন। পরে ওই দম্পতিকে কারাগারে পাঠানো হয়।

মামলার তদন্ত কর্মকর্তা, মোহাম্মদপুর থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) নাজমুল হাসান গতকাল রাতে ডেইলি স্টারকে জানান, আদালতের নির্দেশনা অনুযায়ী পুলিশ গতকাল দুজনকে কারাগেটে জিজ্ঞাসাবাদ করেছে এবং আজ আদালতে প্রতিবেদন জমা দিতে পারে।

বিবৃতিতে গৃহকর্মী সুরক্ষা ও কল্যাণ নীতি ২০১৫ যথাযথভাবে বাস্তবায়ন করার এবং এ নীতির আলোকে গৃহকর্মীদের সুরক্ষায় আইন প্রণয়ন করার দাবি জানিয়েছে এইচআরএফবি।

একইসঙ্গে গৃহকর্মীদের কাজকে 'ঝুঁকিপূর্ণ' কাজের তালিকায় অর্ন্তভূক্ত করার দাবি জানিয়েছে তারা। পাশাপাশি সরকারি-বেসরকারি প্রতিষ্ঠানগুলোকে ঝুঁকিপূর্ণ কাজে কোনো অপ্রাপ্তবয়স্ক কাউকে নিয়োগ না দেওয়ার বিষয়টি নিশ্চিত করার আহ্বান জানিয়েছে এইচআরএফবি।

সেইসঙ্গে গৃহকর্মীদের নিবন্ধন এবং এ ধরনের মৃত্যুর পুনরাবৃত্তি রোধে কার্যকর পদক্ষেপ নেওয়ারও আহ্বান জানিয়েছে ফোরামটি।

আইন ও সালিশ কেন্দ্র (আসক) কার্যালয়ে অবস্থিত এই ফোরামের সদস্যরা হলো—অ্যাসিড সারভাইভার্স ফাউন্ডেশন (এএসএফ), অ্যাসোসিয়েশন ফর ল্যান্ড রিফর্ম অ্যান্ড ডেভেলপমেন্ট, বন্ধু সোশ্যাল ওয়েলফেয়ার সোসাইটি (বিএসডব্লিউএস), বাংলাদেশ আদিবাসী ফোরাম, বাংলাদেশ দলিত অ্যান্ড এক্সক্লুডেড রাইটস মুভমেন্ট, বাংলাদেশ ইনস্টিটিউট অব লেবার স্টাডিজ (বিলস), বাংলাদেশ লিগ্যাল এইড অ্যান্ড সার্ভিসেস ট্রাস্ট (ব্লাস্ট), বাংলাদেশ মহিলা পরিষদ (বিএমপি), ফেয়ার, কাপেং ফাউন্ডেশন, কর্মজীবী নারী (কেএন), মানুষের জন্য ফাউন্ডেশন (এমজেএফ), নাগরিক উদ্যোগ, নারীপক্ষ, ন্যাশনাল অ্যালায়েন্স অব ডিসঅ্যাবল্ড পিপলস অর্গানাইজেশন (এনএডিপিও), নিজেরা করি, স্টেপস টুওয়ার্ডস ডেভেলপমেন্ট (স্টেপস), ট্রান্সপারেন্সি ইন্টারন্যাশনাল বাংলাদেশ (টিআইবি) ও উইমেন উইথ ডিজঅ্যাবিলিটি ডেভেলপমেন্ট ফাউন্ডেশন (ডব্লিউডিডিএফ)।

ফোরামে সাত সদস্যের একটি স্টিয়ারিং কমিটি রয়েছে। কমিটির সদস্যরা হলেন—আসকের নির্বাহী পরিচালক ফারুক ফয়সল, মানুয়ের জন্য ফাউন্ডেশনের নির্বাহী পরিচালক শাহীন আনাম, নাগরিক উদ্যোগের নির্বাহী প্রধান জাকির হোসেন, ব্লাস্টের অবৈতনিক নির্বাহী পরিচালক সারা হোসেন, স্টেপস টুওয়ার্ডস ডেভেলপমেন্টের নির্বাহী পরিচালক রঞ্জন কর্মকার, বাংলাদেশ আদিবাসী ফোরামের মহাসচিব সঞ্জীব দ্রং ও বন্ধু সোশ্যাল ওয়েলফেয়ার সোসাইটির নির্বাহী পরিচালক সালেহ আহমেদ।

গতকাল পৃথক এক বিবৃতিতে এই ঘটনায় ন্যায়বিচার নিশ্চিত করতে নিরপেক্ষ তদন্তের দাবি জানিয়েছে নারীপক্ষ।

বিবৃতিতে তারা বলেছে, কেউ যাতে প্রভাব খাটিয়ে কিংবা আইনি ফাঁকফোকরের মাধ্যমে সুবিধা নিতে না পারে, তা নিশ্চিত করতে হবে।

এ ধরনের ঘটনার পুনরাবৃত্তি রোধে কার্যকর ব্যবস্থা নেওয়ারও দাবি জানিয়েছে নারী অধিকার সংগঠনটি।

Comments

The Daily Star  | English

Consumers brace for price shocks

Consumers are bracing for multiple price shocks ahead of Ramadan that usually marks a period of high household spending.

2h ago