বাংলাদেশ

উন্নয়ন হয়েছে, আপনার চশমা ঠিক থাকলে দেখতে পারবেন: অর্থমন্ত্রী

‘যারা গণতান্ত্রিক প্রক্রিয়ায় অংশ নিতে চায় না, বিশ্বব্যাংকের প্রতিনিধিরা তাদের সঙ্গেও কথা বলেছে এবং বাংলাদেশের মেগাপ্রকল্পগুলোকে অ্যাপ্রিশিয়েট করেছে।’
বিশ্বব্যাংকের ব্যবস্থাপনা পরিচালক (অপারেশনস) আন্না বেজার্ড ও বিশ্বব্যাংকের দক্ষিণ এশিয়া অঞ্চলের ভাইস প্রেসিডেন্ট মার্টিন রাইসাসের সঙ্গে অর্থমন্ত্রী আবুল হাসান মাহমুদ আলীর বৈঠক। ছবি: স্টার

বাংলাদেশ যে সমস্যাগুলো মোকাবিলা করছে, এগুলো নতুন কোনো সমস্যা নয়। বাংলাদেশ যেভাবে এই সমস্যাগুলো মোকাবিলা করছে, বিশ্বব্যাংকের প্রতিনিধিরা সেগুলোর প্রশংসা করেছেন এবং এতে কোনো সন্দেহ নেই বলে জানিয়েছেন অর্থমন্ত্রী আবুল হাসান মাহমুদ আলী।

আজ রোববার রাজধানীর আগারগাঁওয়ের ইআরডি ভবনে বিশ্বব্যাংকের ব্যবস্থাপনা পরিচালক (অপারেশনস) আন্না বেজার্ড ও বিশ্বব্যাংকের দক্ষিণ এশিয়া অঞ্চলের ভাইস প্রেসিডেন্ট মার্টিন রাইসাসের সঙ্গে বৈঠক শেষে এ কথা বলেন তিনি।

এসময় অর্থমন্ত্রী জানান, যারা গণতান্ত্রিক প্রক্রিয়ায় অংশ নিতে চায় না, বিশ্বব্যাংকের প্রতিনিধিরা তাদের সঙ্গেও কথা বলেছে এবং বাংলাদেশের মেগাপ্রকল্পগুলোকে অ্যাপ্রিশিয়েট করেছে।

'সেজন্য আমি বলেছি, বেগম খালেদা জিয়া যে কমেন্ট করেছিলেন, এটা একেবারে বাতুলতা। তিনি বলেছিলেন, "আওয়ামী লীগ সরকার যেভাবে পদ্মা সেতু তৈরি করেছে, এটা তো জোড়াতালি দিয়ে করেছে, যেকোনো সময় ভেঙে পড়তে পারে।" যিনি প্রধানমন্ত্রী ছিলেন, নিজেদের প্রধান বিরোধীদল হিসেবে দাবি করেন তার মুখ থেকে আমরা এ ধরনের কথা আশা করিনি। তিনি বোঝেননি যে এই সেতু কীভাবে তৈরি হয়েছে', বলেন তিনি।

আবুল হাসান মাহমুদ আলী বলেন, 'ওই একইসময়ে আমরা প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে ঠাকুরগাঁও গিয়েছিলাম। তার দুদিন আগে বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল একটা কমেন্ট করেছিলেন- "আওয়ামী লীগ সরকারের আমলে দেশে উন্নয়ন হয়েছে নাকি, আমি তো কিছু দেখি না"। আমি ১০-১২ বছর পর ঠাকুরগাঁও গিয়েছি। ঠাকুরগাঁওয়ের যে উন্নয়ন, রাস্তা-ঘাট, এতো বিল্ডিং দেখে আমি চিনতেই পারিনি। আমি তখন সেখানকার লোকজনের উদ্দেশে বলেছিলাম, আপনাদের ছেলের চোখ খারাপ হয়ে গেছে, কিছুই দেখতে পারছে না। আপনারা তাড়াতাড়ি বড় চোখের ডাক্তার দেখান। আর দামি চশমা কিনে দেন, যাতে তিনি সব পরিষ্কার দেখতে পান।'

'এই ধরনের কথাবার্তা বলে তারা কত খেলো করে ফেলে নিজেকে। উন্নয়ন হয়েছে, আপনার চশমা যদি ঠিক থাকে, তাহলে দেখতে পারবেন। কিন্তু চশমা যদি ঠিক না থাকে, তাহলে আমার কিছুই করার নেই। আপনার চোখটা পরীক্ষা করান, ভালো ডাক্তার দেখিয়ে চশমা নিন, তাহলে সবই পরিষ্কার দেখতে পারবেন', বলেন তিনি। 

অর্থমন্ত্রী বলেন, 'উন্নয়ন সম্পর্কে যাদের এরকম ধারণা। তারা কী করবে, তারা তো কিছু করতে পারেনি।' 

তিনি বলেন, 'কিছুদিন আগে প্রধানমন্ত্রী মেট্রোরেল উদ্বোধন করেছেন। মানুষ যে কতো উপকৃত এবং খুশি হয়েছে আমি সেটা বললাম। সেসময় উপস্থিত বিশ্বব্যাংকের ভাইস প্রেসিডেন্টও বললেন, "এটা একদম সত্যি কথা। আমি দেখেছি যে, মানুষ কত খুশি হয়েছে, বিশেষ করে মহিলারা"। আর একটা কথা তিনি বলেছেন, মেগাপ্রজেক্ট নিয়ে অনেক ক্রিটিসিজম করেছে বিএনপি।' 

আবুল হাসান মাহমুদ আলী বলেন, 'ভাইস প্রেসিডেন্ট এলিভেটেড এক্সপ্রেসওয়ের কথাও বলেছেন। তিনি বলেছেন, "আমি তো অবাক হয়ে গেলাম এটা দেখে। এত সুন্দর এক্সপ্রেসওয়ে"।'

'মেগাপ্রজেক্ট করব কী করব না, করলে কী হবে? চট্টগ্রামে বঙ্গবন্ধু টানেল, সেটার কথাও বলেছি। এই জিনিসটা বুঝতে হবে। শুধু ক্রিটিসিজম করলেই হবে না। এগুলো শেখ হাসিনা বানিয়েছেন ঠিক কথা। কিন্তু বানিয়েছেন একটা দৃষ্টিভঙ্গি ও চিন্তা নিয়ে, বর্তমান এবং উজ্জ্বল ভবিষ্যতের কথা চিন্তা করে এবং জনগণ এটাকে গ্রহণ করেছে, অ্যাপ্রিশিয়েট করেছে', যোগ করেন তিনি।

Comments