বাংলাদেশ

ট্রুডোর নামে ভুয়া জন্মসনদ: ওই ইউনিয়নের জন্ম নিবন্ধন কার্যক্রম বন্ধ

এ ঘটনা অনুসন্ধানে পাবনা জেলা প্রশাসন স্থানীয় সরকারের উপ-পরিচালক (ডিডিএলজি) মো. সাইফুর রহমানকে প্রধান করে একটি উচ্চ পর্যায়ের তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে।
পাবনার সুজানগর উপজেলার আহমেদপুর ইউনিয়ন পরিষদ থেকে দেওয়া জাস্টিন ট্রুডোর নামে জন্ম নিবন্ধনের কপি ও কানাডার প্রধানমন্ত্রী জাস্টিন ট্রুডো। ছবি: সংগৃহীত

কানাডার প্রধানমন্ত্রী জাস্টিন ট্রুডোর নামে ভুয়া জন্ম নিবন্ধনটি সার্ভার থেকে সরিয়ে ফেলা হয়েছে। জন্ম নিবন্ধন কার্যক্রমে ভয়াবহ অনিয়মের অভিযোগ উঠে আসায় পাবনার সুজানগর উপজেলার আহমেদপুর ইউনিয়নের জন্ম নিবন্ধন কার্যক্রম সাময়িক বন্ধ রাখা হয়েছে।

সুজানগর উপজেলার আহম্মদপুর ইউনিয়ন পরিষদ (ইউপি) থেকে জাস্টিন ট্রুডোর নামে জন্মসনদটির নিবন্ধন হয়েছে। বৃহস্পতিবার সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে জন্মসনদের ছবি ছড়িয়ে পড়লে আলোচনা-সমালোচনা তৈরি হয়। 

গণমাধ্যমের হাতে আসা ওই জন্ম সনদ থেকে জানা গেছে, জাস্টিন ট্রুডো'র বাবার নাম পিয়ারে ট্রুডো ও মায়ের নাম মার্গারেট ট্রুডো। তারা দুজনই বাংলাদেশি। জাস্টিন ট্রুডো'র জন্ম ১৯৭১ সালের ২৫ ডিসেম্বর। জন্ম নিবন্ধন নম্বর ১৯৭১৭৬১৮৩১৭০৩৫৫০৯।

এ ঘটনা অনুসন্ধানে পাবনা জেলা প্রশাসন স্থানীয় সরকারের উপ-পরিচালক (ডিডিএলজি) মো. সাইফুর রহমানকে প্রধান করে একটি উচ্চ পর্যায়ের তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে। কমিটি ইতোমধ্যেই কাজ শুরু করেছে বলে জানিয়েছেন তদন্ত কমিটির প্রধান ডিডিএলজি। 

তিনি জানান, সরকারি সার্ভারে কীভাবে জালিয়াতি ঘটানো হয়েছে প্রযুক্তির সহায়তায় তা খুঁজে বের করতে বিশেষজ্ঞরা কাজ করছেন। আগামী তিন কার্যদিবসের মধ্যে তদন্ত শেষ হবে। 

এদিকে ভুয়া ওই জন্ম নিবন্ধন সনদটি সার্ভারে ব্লক করা হয়েছে। এছাড়া ওই ইউনিয়নে জন্ম নিবন্ধনের কাজ বন্ধ রাখা হয়েছে বলেও জানান তিনি। তদন্ত শেষে জড়িতদের খুঁজে বের করে আইনি ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলে জানিয়েছেন তদন্ত কমিটির প্রধান।

উল্লেখ্য, আহমেদপুর ইউনিয়ন পরিষদের স্থানীয় বাসিন্দা নিলয় পারভেজ ইমন ইউনিয়ন পরিষদে জন্ম নিবন্ধন এর কাজ করতেন। টাকার বিনিময়ে বিভিন্ন সময় জন্ম নিবন্ধনের কাজের অভিযোগও রয়েছে তার বিরুদ্ধে।

আমিনপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা হারুনুর রশিদ জানান, ইতোমধ্যে পুলিশ নিলয়কে আটকের জন্য অভিযান পরিচালনা করছে। ঘটনার পর থেকেই তিনি পলাতক আছেন।

Comments

The Daily Star  | English

The bond behind the fried chicken stall in front of Charukala

For close to a quarter-century, a business built on mutual trust and respect between two people from different faiths has thrived in front of Dhaka University's Faculty of Fine Arts

10m ago