নভেম্বর থেকে রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসন শুরু

রোহিঙ্গা শরণার্থীদের আগামী নভেম্বর মাস থেকে ফিরিয়ে নিতে শুরু করবে বলে জানিয়েছে মিয়ানমার। আজ (৩০ অক্টোবর) দ্বিপাক্ষিক এক শীর্ষ বৈঠকে বাংলাদেশের কর্মকর্তাদের বিষয়টি জানায় তারা।
rohingya refugee camps
২০১৭ সালের আগস্টে সেনাবাহিনীর নিষ্ঠুর নির্যাতনের শিকার হয়ে মিয়ানমার ছেড়ে নতুন করে অন্তত ৮ লাখ রোহিঙ্গা কক্সবাজারের বিভিন্ন আশ্রয় কেন্দ্রে অবস্থান করছে। ছবি: এএফপি

রোহিঙ্গা শরণার্থীদের আগামী নভেম্বর মাস থেকে ফিরিয়ে নিতে শুরু করবে বলে জানিয়েছে মিয়ানমার। আজ (৩০ অক্টোবর) দ্বিপাক্ষিক এক শীর্ষ বৈঠকে বাংলাদেশের কর্মকর্তাদের বিষয়টি জানায় তারা।

মিয়ানমারের পররাষ্ট্রসচিব মিন্ট থোয়ে বলেন, “রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসনে আমরা রাজনৈতিক সদিচ্ছা দেখিয়েছি। আগামী মাস থেকেই এই প্রক্রিয়া শুরু হবে।”

বৈঠক শেষে এক যৌথ প্রেস ব্রিফিংয়ে বহুল প্রত্যাশিত রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসন ইস্যু নিয়ে কথা বলার এক পর্যায়ে তিনি এসব বলেন।

প্রথম ধাপে ঠিক কত সংখ্যক রোহিঙ্গাকে ফিরিয়ে নেবে এবং কোন দিন থেকে এই প্রত্যাবাসন প্রক্রিয়া শুরু হবে সে সম্পর্কে সুনির্দিষ্ট কোনো তথ্য দেয়নি মিয়ানমার। তবে প্রত্যাবাসন প্রক্রিয়া সুষ্ঠু, সহজ ও নিরাপদ করার ব্যাপারে বেশকিছু পদক্ষেপ নেওয়ার কথা জানিয়েছে তারা।

সাংবাদিকদের মিন্ট থোয়ে বলেন, “পুলিশ ও অন্যান্য আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীকে নিয়ে আমরা কর্মশালা করেছি। বৈষম্যের বিরুদ্ধে তাদের উদারতার শিক্ষা দিয়েছি।”

উল্লেখ্য, ২০১৭ সালের আগস্টে সেনাবাহিনীর নিষ্ঠুর নির্যাতনের শিকার হয়ে মিয়ানমার ছেড়ে পালিয়ে আসা অন্তত ৮ লাখ রোহিঙ্গা কক্সবাজারের বিভিন্ন আশ্রয় কেন্দ্রে অবস্থান করছে।

রোহিঙ্গারা স্বেচ্ছায় ফিরে যাবে কিনা এবং নিজ দেশে তাদের প্রত্যাবাসন কতটুকু সম্মানজনক হবে, সে ব্যাপারে এখনও উদ্বেগ রয়েছে আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের।

Comments