আবেগের তাড়নায় অতিরিক্ত শট খেলেন ব্যাটসম্যানরা

যখন প্রয়োজন টিকে থাকার, যখন হাতে সময় আছে আবারিত। এসব পরিস্থিতিতেও স্ট্রোক খেলার নেশায় পেয়ে যায় বাংলাদেশের ব্যাটসম্যানদের। প্রতি ইনিংসের পরই নিজেদের ভুলটা ধরতে পারেন তারা। কিন্তু পরের ইনিংসই দেখা যায় একই ভুল। এই চক্রে পড়ার কারণ হিসেবে নিজেদের আবেগকে দায়ি করলেন মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ।
Imrul Kayes
ভুল শট নির্বাচনে স্টাম্প গেল ইমরুল কায়েসের। ছবি: ফিরোজ আহমেদ

যখন প্রয়োজন টিকে থাকার, যখন হাতে সময় আছে আবারিত। এসব পরিস্থিতিতেও স্ট্রোক খেলার নেশায় পেয়ে যায় বাংলাদেশের ব্যাটসম্যানদের। প্রতি ইনিংসের পরই নিজেদের ভুলটা ধরতে পারেন তারা। কিন্তু পরের ইনিংসই দেখা যায় একই ভুল। এই চক্রে পড়ার কারণ হিসেবে নিজেদের আবেগকে দায়ি করলেন মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ।

গত আট ইনিংসে দুশো স্পর্শ করা যায়নি। দেড়শোই পেরুনো গেছে মাত্র দুবার। এসব ইনিংসে মাহমুদউল্লাহকে সবচেয়ে হতাশ করেছে অতিরিক্ত শট খেলার প্রবনতা, ‘আমার মনে হয় আমাদের স্ট্রোক মেকিংটা মাত্রাতিরিক্ত। এই জিনিসটা আমরা হয়তো আবেগী হয়ে করছি। এখানে নিজেদের নিয়ন্ত্রণ করতে হবে। আরেকটু চুজি হতে হবে। আমরা কোন বোলারকে কখন কিভাবে খেলতে পারি এটা দেখতে হবে।’

টেস্টে ইনিংস বড় করতে দরকার লম্বা জুটি। সেটি হচ্ছে না বাংলাদেশের। সিলেট টেস্টে দুই ইনিংস মিলিয়ে মাত্র একটা পঞ্চাশ রানের জুটি গড়তে পেরেছে  বাংলাদেশ। এসব কাটিয়ে ঢাকা টেস্টে নিজেদের ভিন্নভাবে দেখানোর পণ মাহমুদউল্লাহর, ‘সবথেকে বেশি গুরুত্বপূর্ণ মনে হয়, আমরা  ছোট ছোট জুটিও তৈরি করতে পারছি না। আগাগোড়া সবাই ফেইল করছি। এই জিনিসটা ঠিক করতে পারলে ঢাকা টেস্টে ভিন্ন বাংলাদেশ দেখতে পাবেন।’

সিলেটের উইকেট কিংবা নিজেদের বোলিং। কোথাও কোন খামতি দেখছেন না অধিনায়ক। তার চোখে ব্যর্থতার দায়ভার পুরোপুরি দলের ব্যাটসম্যানদের, ‘আমি শুধু ব্যাটিংটা নিয়ে বলতে পারি। আপনি উইকেটের দোষ দিতে পারবেন না। বোলারদের বিরুদ্ধেও অভিযোগ করতে পারবেন না। কারণ তাঁরা ধারাবাহিকভাবে পারফর্ম করছে।’

Comments

The Daily Star  | English

Small businesses, daily earners scorched by heatwave

After parking his motorcycle and removing his helmet, a young biker opened a red umbrella and stood on the footpath.

1h ago