কিছুক্ষণ আগে মহাসচিব পরিবর্তনের বিষয়টি জেনেছি, আমি কিছুই জানতাম না: জি এম কাদের

জাতীয় পার্টির প্রেসিডিয়াম সদস্য মসিউর রহমান রাঙ্গাকে দলের মহাসচিবের দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে। এবিএম রুহুল আমিন হাওয়াদারের মনোনয়নপত্র বাতিল হওয়ার পর দলের পক্ষ থেকে এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হলো।
জিএম কাদের
জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান জিএম কাদের। ছবি: ফাইল ফটো

জাতীয় পার্টির প্রেসিডিয়াম সদস্য মসিউর রহমান রাঙ্গাকে দলের মহাসচিবের দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে। এবিএম রুহুল আমিন হাওয়াদারের মনোনয়নপত্র বাতিল হওয়ার পর দলের পক্ষ থেকে এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হলো।

মনোনয়ন বাণিজ্যের অভিযোগে রুহুল আমিন হাওলাদার ব্যাপকভাবে সমালোচিত হচ্ছিলেন গত কয়েকদিন। মনোনয়ন বাতিল না মনোনয়ন বাণিজ্য, কোন কারণে তাকে আকস্মিকভাবে মহাসচিবের পদ থেকে সরিয়ে দেওয়া হলো, তা নিয়ে প্রশ্ন উঠেছে।

আজ (৩ ডিসেম্বর) গণমাধ্যমে পাঠানো এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, ইতোমধ্যে পার্টির চেয়ারম্যান হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ এ সংক্রান্ত চিঠিও পাঠিয়েছেন মসিউর রহমান রাঙ্গাকে। এতে লেখা হয়, “আপনাকে জাতীয় পার্টির মহাসচিব হিসেবে দায়িত্ব প্রদান করা হলো। পার্টির প্রেসিডিয়াম সদস্যের পাশাপাশি আপনি এই অতিরিক্ত দায়িত্ব পালন করবেন।”

Moshiur Rahman Ranga and ABM Ruhul Amin Hawlada
জাতীয় পার্টির প্রেসিডিয়াম সদস্য মসিউর রহমান রাঙ্গা এবং এবিএম রুহুল আমিন হাওয়াদার। ছবি: ফেসবুক থেকে নেওয়া

জাপা চেয়ারম্যানের রাজনৈতিক সচিব ও দলের প্রেসিডিয়াম সদস্য সুনীল শুভ রায় স্বাক্ষরিত এক বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, জাতীয় পার্টির গঠনতন্ত্রের ২০/১/ক ধারা মোতাবেক এ সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে এবং অবিলম্বে তা কার্যকর করা হবে।

“আমি কিছুক্ষণ আগে মহাসচিব পরিবর্তনের বিষয়টি জেনেছি। এর আগে আমি কিছুই জানতাম না। তাই জাতীয় পার্টির মহাসচিব পরিবর্তনের বিষয়ে আমি কোনো মন্তব্য করতে চাই না,” দ্য ডেইলি স্টার অনলাইনের পক্ষ থেকে ফোন করে কোনো প্রশ্ন করার আগেই জাতীয় পার্টির প্রেসিডিয়াম সদস্য ও কো-চেয়ারম্যান জিএম কাদের এ কথা বলেন।

Comments

The Daily Star  | English
national election

Human rights issues in Bangladesh: US to keep expressing concerns

The US will continue to express concerns on the fundamental human rights issues in Bangladesh including the freedom of the press and freedom of association and urge the government to uphold those, said a senior US State Department official

6m ago