শীর্ষ খবর

চাঁদপুরে বিএনপির প্রার্থীর ওপর হামলার অভিযোগ

চাঁদপুর-৩ (সদর ও হাইমচর) আসনের বিএনপির প্রার্থী শেখ ফরিদ আহমেদ মানিকের ওপর আওয়ামী লীগের কর্মী সমর্থকদের হামলার অভিযোগ উঠেছে। এ সময় উভয় পক্ষের সংঘর্ষে পুলিশসহ ২০ জন আহত হয়েছেন। রোববার দুপুরে চাঁদপুর শহরের পুরানবাজার মধ্য শ্রীরামদি এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।
চাঁদপুর-৩ আসনের গণসংযোগের সময় বিএনপি প্রার্থীর ওপর হামলার পর দুপক্ষের মধ্যে সংঘর্ষ শুরু হলে পুলিশ গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। ছবি: স্টার

চাঁদপুর-৩ (সদর ও হাইমচর) আসনের বিএনপির প্রার্থী শেখ ফরিদ আহমেদ মানিকের ওপর আওয়ামী লীগের কর্মী সমর্থকদের হামলার অভিযোগ উঠেছে। এ সময় উভয় পক্ষের সংঘর্ষে পুলিশসহ ২০ জন আহত হয়েছেন। রোববার দুপুরে চাঁদপুর শহরের পুরানবাজার মধ্য শ্রীরামদি এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, আজ রোববার সকাল ১১টায় চাঁদপুর-৩ (সদর ও হাইমচর) আসনের বিএনপি প্রার্থী শেখ ফরিদ আহমেদ দলীয় নেতা-কর্মীদের নিয়ে পুরানবাজার ১নং ও ২ নং ওয়ার্ডে গণসংযোগ করতে যান। গণসংযোগকালে বেলা ১২টায় পুরানবাজারের নতুন রাস্তায় গেলে আওয়ামী লীগের নেতা-কর্মীরা বিএনপির লোকজনের ওপর হামলা চালায়। এ সময় উভয় পক্ষের ধাওয়া পাল্টা ধাওয়া ইটপাটকেল ও কাচের বোতল নিক্ষেপে পুরানবাজার পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ আব্দুর রশিদসহ উভয় দলের ২০ জন আহত হন। এদের মধ্যে দেলু হাওলাদার (৪২) নামের এক যুবলীগ নেতাকে চাঁদপুর সদর হাসপাতালে ভর্তি করা রয়েছে। বাকিরা প্রাথমিক চিকিৎসা নিয়েছেন।

মো. ওলি নামে একজন প্রত্যক্ষদর্শী জানান, বিএনপি প্রার্থী শেখ ফরিদ আহমেদ তার লোকজন নিয়ে ২নং ওয়ার্ডে আসলে স্থানীয় আওয়ামী লীগ ও যুবলীগ কর্মীরা বাধা দেন। এ সময় দুপক্ষের মধ্যে ধাওয়া পাল্টা ধাওয়া ও ইটপাটকেল নিক্ষেপ শুরু হয়। দুপুর ১টা পর্যন্ত তাদের মধ্যে সংঘর্ষ চলে। পরে অতিরিক্ত পুলিশ এসে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে।

বিএনপি প্রার্থী শেখ ফরিদ আহমেদের অভিযোগ, নির্বাচনী প্রচারণায় পুরানবাজার গেলে সেখানকার আওয়ামী লীগ ও যুবলীগের লোকজন তাদের ওপর হামলায় চালায়। এতে অন্তত ১০/১২জন নেতা-কর্মী আহত হন। এ ব্যাপারে থানায় মামলা করবেন বলেও তিনি জানান।

অন্যদিকে জেলা যুবলীগের যুগ্ম সম্পাদক মো. আলী মাঝি বলেন, বিএনপি প্রার্থীর লোকজনের ওপর আওয়ামী লীগ বা যুবলীগের কেউই হামলা চালায়নি। সেখানে অন্য কোনো তৃতীয় পক্ষ হামলা চালিয়ে তাদের বিতর্কিত করতে চাইছে।

চাঁদপুর সদর পুলিশ সুপার সার্কেল মো.জাহেদ পারভেজ জানান, ঘটনার খবর পেয়ে আমরা তাদের ছত্রভঙ্গ করে দেই। চাঁদপুর মডেল থানার ওসি মো. নাছিম জানান, এঘটনায় কোনো পক্ষই থানায় কোনো অভিযোগ করেনি। এবং কেউ গ্রেপ্তারও হননি।

Comments

The Daily Star  | English

13 killed in bus-pickup collision in Faridpur

At least 13 people were killed and several others were injured in a head-on collision between a bus and a pick-up at Kanaipur area in Faridpur's Sadar upazila this morning

1h ago