দলে ভারসাম্য আসায় সন্তুষ্টি প্রধান নির্বাচকের

ঘরের মাঠে টানা দুই সিরিজ খেলে হোম সিজন শেষ করেছে বাংলাদেশ। জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে টেস্ট সিরিজ জেতা যায়নি, ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে হেরেছে টি-টোয়েন্টি সিরিজ। কিন্তু দুদলের বিপক্ষেই ওয়ানডেতে বাংলাদেশ জিতেছে অনায়াসে, ওয়েস্ট ইন্ডিজকে টেস্টেও হারিয়েছে সহজে। মাস তিনেকের ব্যস্ততার পর সাফল্য-ব্যর্থতার খতিয়ান নিয়ে বসে আশার আলো দেখছেন প্রধান নির্বাচক মিনহাজুল আবেদিন নান্নু।
minhajul abedin
ফাইল ছবি: বিসিবি

ঘরের মাঠে টানা দুই সিরিজ খেলে হোম সিজন শেষ করেছে বাংলাদেশ। জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে টেস্ট সিরিজ জেতা যায়নি, ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে হেরেছে টি-টোয়েন্টি সিরিজ। কিন্তু দুদলের বিপক্ষেই ওয়ানডেতে বাংলাদেশ জিতেছে অনায়াসে, ওয়েস্ট ইন্ডিজকে টেস্টেও হারিয়েছে সহজে। মাস তিনেকের ব্যস্ততার পর সাফল্য-ব্যর্থতার খতিয়ান নিয়ে বসে আশার আলো দেখছেন প্রধান নির্বাচক মিনহাজুল আবেদিন নান্নু। 

এই দুই সিরিজের আগে ওয়ানডেতে টপ অর্ডার নিয়ে চিন্তা ছিল বাংলাদেশের, চিন্তা ছিল পেস অলরাউন্ডার নিয়ে। এসব জায়গায় মিলেছে প্রত্যাশিত সমাধান। দলকে তাই এখন অনেক ভারসাম্যপূর্ণ মনে হচ্ছে মিনহাজুলের,  ‘দেশে তো আমরা দুইটা সিরিজ খেললাম। অনেক দিন পর পর দুইটা সিরিজ খেলা হলো। সব কিছু মিলিয়ে পারফর্মেন্স অবশ্যই সন্তোষজনক। আমরা খুব সন্তুষ্ট যে এমনকি একটা ভারসাম্য এসেছে, ব্যাটিং, বোলিং, ফিল্ডিং সব দিক থেকে। আগামীতে যে সিরিজ গুলো আছে সেখানে এখানের অভিজ্ঞতা কাজে লাগবে।’

নিউজিল্যান্ডে বাংলাদেশ খেলবে তিনটি করে ওয়ানডে ও টেস্ট। ১৩ ফেব্রুয়ারি ওয়ানডে দিয়ে শুরু হবে সিরিজ। খেলা চলবে মার্চের মাঝামাঝি পর্যন্ত। সফরে নেই কোন টি-টোয়েন্টি ম্যাচ। সব মিলিয়ে দল ছন্দে থাকায় বিরূপ কন্ডিশনে এবার ভিন্ন কিছুর আশা দেখছেন প্রধান নির্বাচক, ‘সামনে আমাদের নিউজিল্যান্ড সিরিজ আছে। যেহেতু আমাদের আগের বারের নিউজিল্যান্ড সিরিজে খারাপ অভিজ্ঞতা ছিল। আমি মনে করি এখন খেলোয়াড়রা অনেক পরিণত, অনেক দিন পর আমরা তিনটা টেস্ট ম্যাচ খেলতে যাব, এটাও একটা বড় চ্যালেঞ্জ। তিনটা টেস্ট ম্যাচ তো আমরা সবসময় খেলতে পাই না, এটা খেলোয়াড়দের জন্য চ্যালেঞ্জের হবে। আমি আশাবাদী যে এই অভিজ্ঞতা কাজে লাগাতে পারব। ’

কদিনের বিশ্রামের পর ৫ জানুয়ারি শুরু হবে ঘরোয়া টি-টোয়েন্টি আসর বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগ (বিপিএল)। তবে নিউজিল্যান্ডে টি-টোয়েন্টি না থাকায় এই টুর্নামেন্টের পারফরম্যান্স দল ঘোষণায় খুব বেশি প্রভাব ফেলবে না বলে ইঙ্গিত দিলেন মিনহাজুল, ‘নিউজিল্যান্ডের জন্য তো অবশ্যই আমাদের মাথায় আছে। আমরা টিম ম্যানেজমেন্টের সঙ্গে বসে আলাপ করব। আমাদের একটা পরিকল্পনা আছে আমরা এটা নিয়ে বসব। যে কন্ডিশনে যেভাবে খেলতে ওইভাবেই কিন্তু আগাতে হবে। আমাদের মাথায় পরিকল্পনা আছে সেটা নিয়ে কাজ করব। আগামী জানুয়ারির ১৫ তারিখের মধ্যেই আমরা দল ঘোষণা করব।’

‘বিপিএলের ফরম্যাটটা আলাদা। আমরা নিউজিল্যান্ডের জন্য এই ফরম্যাটটা নিয়ে চিন্তা করব না। এটা আমাদের ঘরোয়া টুর্নামেন্ট। অবশ্যই সব খেলাই গুরুত্বপূর্ণ, খেলোয়াড়দের জন্য প্রতিটা ম্যাচই গুরুত্বপূর্ণ। বিপিএল, প্রিমিয়ার লীগ সব গুলো ম্যাচই গুরুত্বপূর্ণ। পারফর্মেন্স অবশ্যই বিবেচনায় আসবে। যেহেতু খুব ঠাসা সূচি যাচ্ছে খেলোয়াড়দের জন্য। ফিটনেস ধরে রাখা, এছাড়া অনেক কিছুর ব্যাপার আছে। সব কিছুর মূল্যায়ন করা হবে।’

 

Comments

The Daily Star  | English

Old, unfit vehicles running amok

The bus involved in yesterday’s accident that left 14 dead in Faridpur would not have been on the road had the government not caved in to transport associations’ demand for allowing over 20 years old buses on roads.

10h ago