ভারতীয় গণমাধ্যমের সংবাদ

ভারত ২১ ‘বাংলাদেশি’ ফেরত পাঠিয়েছে

বাংলাদেশের প্রতিবেশী ভারতের আসাম রাজ্য থেকে ২১ জন ‘বাংলাদেশি’ নাগরিককে ফেরত পাঠিয়েছে দেশটির কর্তৃপক্ষ।
Bangladeshis
‘দ্য হিন্দু’ থেকে নেওয়া ছবিটির ক্যাপশনে বলা হয়- ‘বাড়ি ফেরা: শনিবার সুতারকান্দি চেকপয়েন্ট দিয়ে বাংলাদেশি অভিবাসীদের ফেরত পাঠানো হচ্ছে।’

বাংলাদেশের প্রতিবেশী ভারতের আসাম রাজ্য থেকে ২১ জন ‘বাংলাদেশি’ নাগরিককে ফেরত পাঠিয়েছে দেশটির কর্তৃপক্ষ।

গতকাল ও আজ (২০ জানুয়ারি) ‘দ্য হিন্দু’, ‘টাইমস অব ইন্ডিয়া’, ‘দ্য ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস’, ‘এনডিটিভি’-সহ ভারতের প্রথম সারির সংবাদমাধ্যমগুলো এ নিয়ে সচিত্র প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে।

‘দ্য হিন্দু’-র শিরোনাম ছিলো: ‘টোয়েন্টি ওয়ান বাংলাদেশি ন্যাশনালস ডিপোর্টেড ফ্রম আসাম’, ‘টাইমস অব ইন্ডিয়া’-র শিরোনাম- ‘বাংলাদেশ টেকস ব্যাক টোয়েন্টি ওয়ান লিভিং ইললিগ্যালি ইন আসাম’, ‘দ্য ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস’-এর শিরোনাম- ‘টোয়েন্টি ওয়ান বাংলাদেশি ন্যাশনালস ডিপোর্টেড ফ্রম আসাম’ এবং ‘এনডিটিভি’-র শিরোনাম- ‘টোয়েন্টি ওয়ান বাংলাদেশিস ডিপোর্টেড ফ্রম আসাম ফর ইললিগ্যাল এনটারিং ইন্ডিয়া’।

তারা জানায়, অবৈধভাবে প্রবেশকারী ২১ বাংলাদেশিকে আসামের করিমগঞ্জ জেলা থেকে আটক করে ভারতের সীমান্ত পুলিশ গতকাল বাংলাদেশে ফেরত পাঠানো হয়েছে।

সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাদের বরাত দিয়ে গণমাধ্যমগুলো আরও জানায়, আটককৃতদের মধ্যে দুজন নারী রয়েছেন। ভারতের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রণালয়ের অনুমতিক্রমে তাদেরকে সুতারকান্দি সীমান্ত চেকপয়েন্ট দিয়ে বাংলাদেশ কর্তৃপক্ষের কাছে হস্তান্তর করা হয়।

খবরে বলা হয়, বাংলাদেশ কর্তৃপক্ষ নিশ্চিত করেছে যে ফেরত পাঠানো ব্যক্তিরা সিলেট এবং কিশোরগঞ্জের অধিবাসী।

আরও পড়ুন: ভারতের ‘অভ্যন্তরীণ’-‘বাংলাদেশি’ ইস্যু!

ফেরত পাঠানোর প্রক্রিয়ার সঙ্গে সংশ্লিষ্ট একজন ভারতীয় পুলিশ কর্মকর্তা দ্য হিন্দু’কে বলেন, “বিতাড়িত বাংলাদেশিরা গত কয়েক মাস থেকে ভারতের পাসপোর্ট আইন অমান্য করে আসছিলো। তাদেরকে আটক করে শিলচর কেন্দ্রীয় কারাগারের  ডিটেনশন ক্যাম্পে রাখা হয়।”

“এদের মধ্যে ছয়জনকে কাছাড় এবং ১১ জনকে করিমগঞ্জ জেলা থেকে আটক করা হয়েছে,” যোগ করেন সেই কর্মকর্তা।

টাইমস অব ইন্ডিয়া জানায়, ফেরত পাঠানো বাংলাদেশিরা দুই থেকে চার বছর অবৈধভাবে ভারতে বসবাস করছিলো। আসাম সীমান্ত পুলিশ এবং বিএসএফ তাদেরকে বাংলাদেশের বিজিবি’র কাছে হস্তান্তর করে।

এছাড়াও, গত জুলাইয়ে ৫২ বাংলাদেশিকে আসামের মানকাচর থেকে ফেরত পাঠানে হয় বলে ভারতীয় গণমাধ্যমগুলোতে বলা হয়।

উল্লেখ্য, আসামে ‘বাঙালি খেদাও’ আন্দোলন বহু বছরের পুরনো। সেই আন্দোলনের প্রেক্ষাপটে সেখানে নাগরিকপঞ্জি বা নাগরিকদের তালিকা তৈরি করার বিতর্কিত কর্মকাণ্ড চলছে। ভারতীয় রাজনীতিতে তা নিয়ে চলছে তুমুল হইচই। নাগরিকপঞ্জির তালিকায় নাম উঠেনি লাখ লাখ ভারতীয় বাঙালি অধিবাসীর। বিজেপি সরকার তাদেরকে ‘বাংলাদেশি’ হিসেবে চিহ্নিত করে বাংলাদেশে ফেরত পাঠাতে চাইছে। পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়সহ ভারতীয় নেতারা বিজেপির নীতির বিরুদ্ধে অবস্থান নিয়েছে।

বাংলাদেশ বরাবরই অস্বীকার করে আসছে যে বাংলাদেশের কোনো মানুষ আসামে নেই। এমন সময়  ডিটেনশন ক্যাম্পে আটক থাকা এই ‘বাংলাদেশি’দের ফেরত নেওয়ার খবর ভারতীয় সংবাদমাধ্যমে প্রকাশিত হলো।

Read more: Not just India's 'internal' issue

Comments

The Daily Star  | English
national election

Human rights issues in Bangladesh: US to keep expressing concerns

The US will continue to express concerns on the fundamental human rights issues in Bangladesh including the freedom of the press and freedom of association and urge the government to uphold those, said a senior US State Department official

6m ago