দুর্নীতি বৃদ্ধির কারণ জানাতে না পারলে টিআই’র প্রতিবেদন গ্রহণযোগ্য নয়: দুদক

বাংলাদেশে দুর্নীতি পরিস্থিতি নিয়ে ট্রান্সপারেন্সি ইন্টারন্যাশনালের সর্বশেষ প্রতিবেদন সম্পর্কে দুর্নীতি দমন কমিশনের চেয়ারম্যান ইকবাল মাহমুদ বলেছেন, বাংলাদেশে দুর্নীতি বৃদ্ধির কারণ জানাতে না পারলে এই প্রতিবেদন তারা গ্রহণ করবেন না।
দুদকের চেয়ারম্যান ইকবাল মাহমুদ। ফাইল ছবি

বাংলাদেশে দুর্নীতি পরিস্থিতি নিয়ে ট্রান্সপারেন্সি ইন্টারন্যাশনালের সর্বশেষ প্রতিবেদন সম্পর্কে দুর্নীতি দমন কমিশনের চেয়ারম্যান ইকবাল মাহমুদ বলেছেন, বাংলাদেশে দুর্নীতি বৃদ্ধির কারণ জানাতে না পারলে এই প্রতিবেদন তারা গ্রহণ করবেন না।

দুর্নীতিবিরোধী আন্তর্জাতিক এই সংস্থাটির সর্বশেষ প্রতিবেদনে বলেছে, দুর্নীতি সূচকে বাংলাদেশের অবনতি হয়েছে। এর ফলে বিশ্ব র‍্যাংকিংয়ে বাংলাদেশের অবস্থান ছয় ধাপ নিচে নেমে গেছে।

এই প্রতিবেদন নিয়ে প্রতিক্রিয়া জানাতে গিয়ে দুদক চেয়ারম্যান বলেন, প্রতিবেদনটি আমি এখনও হাতে পাইনি। কিন্তু প্রতিবেদনে যদি গবেষণার পদ্ধতি ও দুর্নীতি বৃদ্ধির কারণ উল্লেখ করতে ট্রান্সপারেন্সি ইন্টারন্যাশনাল ব্যর্থ হলে এই প্রতিবেদন গ্রহণযোগ্য হবে না।

দুদক চেয়ারম্যান আজ তার কার্যালয়ে সাংবাদিকদের বিভিন্ন প্রশ্নের জবাবে এসব কথা বলেন।  ট্রান্সপারেন্সি ইন্টারন্যাশনালের প্রতিবেদন অনুযায়ী, দুই পয়েন্ট কমে দুর্নীতিতে বিশ্বে বাংলাদেশের অবস্থান এখন ১৪৯ তম যা তালিকার শেষ দিক থেকে ১৩ তম। ২০১৭ সালে বাংলাদেশের অবস্থান ছিল ১৪৩ তম।

দুদক চেয়ারম্যান বলেন, আমি এ ধরনের প্রতিবেদন সব সময়ই স্বাগত জানাই। কোন কোন সেক্টরে দুর্নীতি বেড়েছে সেটি উল্লেখ করলে আমরা সে অনুযায়ী ব্যবস্থা নিব।

Comments

The Daily Star  | English

Why do you need Tk 1,769.21cr for consultancy?

The Planning Commission has asked for an explanation regarding the amount metro rail authorities sought for consultancy services for the construction of a new metro line.

17h ago