শীর্ষ খবর

২১ ফেব্রুয়ারিতে ঢাকায় ১৬ হাজার পুলিশ, শহীদ মিনারে ৪ স্তরের নিরাপত্তা: ডিএমপি

ঢাকা মহানগর পুলিশ (ডিএমপি) কমিশনার আছাদুজ্জামান মিয়া বলেছেন, “আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস নির্বিঘ্নে পালনে ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের পক্ষ থেকে সবধরনের প্রস্তুতি নেওয়া হয়েছে। একুশে ফেব্রুয়ারি ঘিরে কোন নিরাপত্তার হুমকি নেই, সর্বোচ্চ সতর্ক রয়েছে ডিএমপি। কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারকে ঘিরে নেওয়া হয়েছে চার স্তরের নিরাপত্তা ব্যবস্থা।”
ডিএমপি কমিশনার আছাদুজ্জামান মিয়া ও ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর গোলাম রাব্বানী শহীদ মিনার এলাকার নিরাপত্তা ব্যবস্থা পর্যবেক্ষণ করেন। ছবি: স্টার

ঢাকা মহানগর পুলিশ (ডিএমপি) কমিশনার আছাদুজ্জামান মিয়া বলেছেন, “আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস নির্বিঘ্নে পালনে ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের পক্ষ থেকে সবধরনের প্রস্তুতি নেওয়া হয়েছে। একুশে ফেব্রুয়ারি ঘিরে কোন নিরাপত্তার হুমকি নেই, সর্বোচ্চ সতর্ক রয়েছে ডিএমপি। কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারকে ঘিরে নেওয়া হয়েছে চার স্তরের নিরাপত্তা ব্যবস্থা।”

আজ (১৯ ফেব্রুয়ারি) সকালে শহীদ মিনার এলাকা পরিদর্শন শেষে এক ব্রিফিংয়ে ডিএমপি কমিশনার এ কথা বলেন।

আছাদুজ্জামান মিয়া বলেন, “একুশে ফেব্রুয়ারি উপলক্ষে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের আশপাশের এলাকায় বসানো হবে চেকপোস্ট। ২০ ফেব্রুয়ারি সন্ধ্যা ৬টা থেকে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের আইডি কার্ড ব্যতীত কেউ বিশ্ববিদ্যালয় এলাকায় প্রবেশ করতে পারবেন না।”

ডিএমপি কমিশনার বলেন, “একুশে ফেব্রুয়ারির নিরাপত্তায় ঢাকা শহরে ১৬ হাজার পুলিশ সদস্য মোতায়েন করা হবে। এর মধ্যে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ও শহীদ মিনার এলাকায় থাকবে ৬ হাজার পুলিশ। প্রস্তুত থাকবে সোয়াট ও বোমা নিষ্ক্রিয়করণ ইউনিটের সদস্যরা।”

তিনি আরও বলেন, “একুশে ফেব্রুয়ারিকে ঘিরে ডিএমপি’র ট্রাফিক বিভাগের পক্ষ থেকে বিভিন্ন পয়েন্টে ডাইভারশন থাকবে। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের গাড়ি ব্যতীত ২০ তারিখ সন্ধ্যা ৬টার পর ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় এলাকায় কোন গাড়ি প্রবেশ করতে পারবে না। এছাড়া ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রবেশ গেটে বসানো হবে তল্লাশি চৌকি। বহিরাগত কেউ ২০ তারিখ সন্ধ্যা ৬টার পর ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় এলাকায় প্রবেশ করতে পারবে না।”

আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস ঘিরে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় এলাকায় ডিএমপির ট্রাফিক নির্দেশনা

২১ ফেব্রুয়ারি উপলক্ষে গমনাগমন ও ট্রাফিক নির্দেশনা:

আজ ডিএমপি থেকে দেওয়া এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, ২০ ফেব্রুয়ারি রাত ৮টা থেকে ২১ ফেব্রুয়ারি প্রথম প্রহরে রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রী কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে পুষ্পস্তবক অর্পণের পর ফিরে না যাওয়া পর্যন্ত ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাস এলাকায় বিশ্ববিদ্যালয়ের কার্ডধারী শিক্ষক, ছাত্র, কর্মচারী ছাড়া কেউ প্রবেশ করতে পারবেন না।

২০ ফেব্রুয়ারি রাত ৮টা থেকে ২১ ফেব্রুয়ারি দুপুর পর্যন্ত বিশ্ববিদ্যালয় এলাকায় যত্রতত্র প্রবেশ বন্ধে নীলক্ষেত, পলাশী, ফুলাররোড, বকশীবাজার, চানখারপুল, শহীদুল্লাহ হল, দোয়েল চত্বর, জিমনেশিয়াম, হাইকোর্ট, টিএসসি, শাহবাগ মোড়ে রোড ব্লক দিয়ে গাড়ি ডাইভারশন ব্যবস্থা কার্যকরী করা হবে।

১৯ ফেব্রুয়ারি রাত ৮টা থেকে ২০ ফেব্রুয়ারি ভোর ৬টা পর্যন্ত রাস্তায় আলপনা আঁকার জন্য কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারের সামনের রাস্তা বন্ধ থাকবে। এ লক্ষ্যে শিববাড়ী, জগন্নাথ হল ক্রসিংগুলো হতে গাড়ি ডাইভারশন দেওয়া হবে।

একুশের প্রথম প্রহরে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে জিমনেশিয়াম মাঠে ভিআইপি গাড়ি পার্কিং এর ব্যবস্থা থাকবে।

রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রী এবং ভিআইপিদের শ্রদ্ধা নিবেদনের পরে সর্বসাধারণ শ্রদ্ধা নিবেদনের জন্য পলাশী, জগন্নাথ হল হয়ে কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে আসতে বলা হয়েছে।

শ্রদ্ধা নিবেদনের সময় যারা গাড়ি নিয়ে আসবেন তাদের পলাশী ক্রসিংয়ে গাড়ি থেকে নেমে পায়ে হেঁটে শহীদ মিনার পর্যন্ত গিয়ে শ্রদ্ধা নিবেদন করতে বলা হয়েছে।

সর্বসাধারণ নীলক্ষেত-পলাশী, পলাশী- ঢাকেশ্বরী সড়ক সমূহে তাদের গাড়ি পার্ক করতে পারবেন বলে জানানো হয়।

পলাশী হতে শহীদ মিনার পর্যন্ত পায়ে হেঁটে যাওয়ার সময় জগন্নাথ হলের সামনে আর্চওয়ে দিয়ে তল্লাশি করে প্রবেশ করানো হবে।

সংশ্লিষ্ট সকলকে ব্যাগ বা সন্দেহজনক কোন জিনিস সঙ্গে না আনতে ও শ্রদ্ধা নিবেদনের সময় শহীদ মিনার প্রাঙ্গণে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষের প্রচার মাইকের নির্দেশনা মেনে চলতে বলা হয়েছে।

Comments

The Daily Star  | English

PM to take responsibility of families of deceased: Quader

Awami League General Secretary Obaidul Quader today said Prime Minister Sheikh Hasina will take responsibility of the families of the people killed in the recent nationwide unrest

33m ago