ক্রিকেট

আরও বেশি সুযোগ চান জিয়া

টি-টোয়েন্টিতে দানবীয় ব্যাটিং করার মতো ব্যাটসম্যান, বাংলাদেশে নেই বললেই চলে। সে ধারায় কিছুটা ব্যতিক্রম জিয়াউর রহমান। শেষ দিকে বিধ্বংসী ব্যাটিং করার ক্ষমতার জন্যই ডাক পেয়েছিলেন জাতীয় দলে। কিন্তু অভিষেক টি-টোয়েন্টি ম্যাচেই যা করার করলেন। এরপর আর ব্যাট জ্বলে ওঠেনি। তবে শুক্রবার শেখ জামাল ধানমন্ডি ক্লাবের হয়ে প্রিমিয়ার ডিভিশন টি-টোয়েন্টি টুর্নামেন্টে খুব প্রয়োজনীয় সময়েই জ্বলে উঠলেন। আর তাতে আক্ষেপটা বাড়লই বটে।
Ziaur Rahman
ফাইল ছবি: ফিরোজ আহমেদ

টি-টোয়েন্টিতে দানবীয় ব্যাটিং করার মতো ব্যাটসম্যান, বাংলাদেশে নেই বললেই চলে। সে ধারায় কিছুটা ব্যতিক্রম জিয়াউর রহমান। শেষ দিকে বিধ্বংসী ব্যাটিং করার ক্ষমতার জন্যই ডাক পেয়েছিলেন জাতীয় দলে। কিন্তু অভিষেক টি-টোয়েন্টি ম্যাচেই যা করার করলেন। এরপর আর ব্যাট জ্বলে ওঠেনি। তবে শুক্রবার শেখ জামাল ধানমন্ডি ক্লাবের হয়ে প্রিমিয়ার ডিভিশন টি-টোয়েন্টি টুর্নামেন্টে খুব প্রয়োজনীয় সময়েই জ্বলে উঠলেন। আর তাতে আক্ষেপটা বাড়লই বটে।

সাত নম্বরে একজন মারকুটে ব্যাটসম্যান অনেক দিন থেকেই খুঁজে আসছে বাংলাদেশ দল। যিনি ২০ বলে ৪০ রান করার মতো ক্ষমতা রাখেন। অনেক খেলোয়াড়কে দিয়ে চেষ্টা করিয়েও লাভ হয়নি। সেখানে জিয়া হতে পারতেন সেরা বিকল্প। শাইনপুকুর ক্রিকেট ক্লাবের বিপক্ষে এদিনের করা ২৯ বলে ৭২ রানের ইনিংসই তার সামর্থ্যের প্রমাণ রাখে। শুধু ঝড়ই তোলেননি এ ব্যাটসম্যান, চাপের মধ্যে থাকা দলকে জিতিয়ে দিয়েই মাঠ ছেড়েছেন।

এমন ইনিংসের পর জিয়া জানালেন তার সাফল্যের কথা। আর পূর্বের ব্যর্থতার কারণও জানালেন। ব্যাটিংয়ে সময় কম পান বলেই এতো দিন তার ব্যাট জ্বলেনি বলেই জানালেন জিয়া, ‘টি-টোয়েন্টি শর্ট ফরম্যাটের খেলা। এখানে আমি আসলে তেমন সুযোগ পাই না। আজ যেমন ১০ ওভার পেয়েছি, অন্য সময় পাই না। দুই ওভার তিন ওভার, এভাবে পেয়ে থাকি। এটা আমার জন্য কঠিন হয়ে যায়। পরিস্থিতি আমার বিপক্ষে থাকে। এখন সব কিছু মিলিয়ে আমার অনুকূলে ছিল। আমার ভাগ্য সমর্থন করেছে।’

‘আমি তো মানুষ, আমাকে তো সেট হতে হবে। ভিন্ন কন্ডিশন, ডেথে যারা বোলিং করে, টিমের বেস্ট বোলাররা কিন্তু বল করে। আপনি হিসেবে করে দেখবেন, আমি কিন্তু সেইভাবে সুযোগ কম পাই। সবাই মনে করে শেষ দুই তিন ওভারে গিয়ে জিয়া অনেক কিছু করে ফেলবে। ওইখানে গিয়ে হয়তো একদিন সফল হই কিন্তু দুই দিন হই না। যদি আমি ওপরে ব্যাট করার সুযোগ পাই, আমি অবশ্যই ভালো করার চেষ্টা করব।’ – যোগ করে আরও বলেন জিয়া।

জাতীয় দলে ফেরার স্বপ্ন এখনও দেখেন জিয়া। আর পারফর্ম করেই ফিরতে চান এ অলরাউন্ডার, ‘প্রত্যেক ক্রিকেটারের জাতীয় দলে খেলার স্বপ্ন থাকে। আমারও আছে। তো আমি আসলে ওইদিকে ফোকাস করছি না। আমি আমার পারফর্মেন্সে ফোকাস রাখছি। এই ম্যাচে ভালো করেছি, পরের ম্যাচ আমাদের ফাইনাল ম্যাচে। সেখানে যদি ভালো খেলার সুযোগ পাই তাহলে আমি চেষ্টা করব ভালো খেলার জন্য। আমি যদি পারফর্ম করি তাহলে সবাই আমাকে নিয়ে চিন্তা করবে। আমার কথা হচ্ছে পারফর্ম করা, সেটাই করছি।’

Comments

The Daily Star  | English

MV Abdullah passing through high-risk piracy area

Precautionary safety measures in place, Italian Navy frigate escorting it

45m ago