দুই ম্যাচ পিছিয়ে থেকেও ঘুরে দাঁড়িয়ে সিরিজ জিতল অস্ট্রেলিয়া

উসমান খাওয়াজার সেঞ্চুরি আর পিটার হ্যান্ডসকম্বের ফিফটিতে অস্ট্রেলিয়া পেয়েছিল লড়াইয়ের পূঁজি। তবে ভারতের শক্তিশালী ব্যাটিং লাইনআপের কাছে সেটাও খুব কঠিন ছিল না। কিন্তু অসি বোলারদের সম্মিলিত প্রয়াস আটকে রাখে ভারতীয়দের। দুই ম্যাচ পিছিয়ে থেকে টানা তিন জয়ে সিরিজ জিতে নিয়েছে অস্ট্রেলিয়া।
Australia
ফাইল ছবি: এএফপি

উসমান খাওয়াজার সেঞ্চুরি আর পিটার হ্যান্ডসকম্বের ফিফটিতে অস্ট্রেলিয়া পেয়েছিল লড়াইয়ের পূঁজি। তবে ভারতের শক্তিশালী ব্যাটিং লাইনআপের কাছে সেটাও খুব কঠিন ছিল না। কিন্তু অসি বোলারদের সম্মিলিত প্রয়াস আটকে রাখে ভারতীয়দের। দুই ম্যাচ পিছিয়ে থেকে টানা তিন জয়ে সিরিজ জিতে নিয়েছে অস্ট্রেলিয়া। 

বুধবার দিল্লিতে সিরিজ নির্ধারণী ম্যাচে আগে ব্যাট করে খাওয়াজার শতরানে অস্ট্রেলিয়া করেছিল ২৭২ রান। ওই রান তাড়ায় গিয়ে ২৩৭ রানেই থেমে যায় ভারতের চাকা। ৩৫ রানে জিতে তাই পাঁচ ম্যাচ সিরিজ ৩-২ ব্যবধানে জিতে নিয়েছে অ্যারন ফিঞ্চের দল। ভারতের বিপক্ষে পাঁচ ম্যাচ সিরিজে প্রথম দুটিতে পিছিয়ে বাকি তিনটি জিতে নেওয়ার নজির এই প্রথম। 

বছরের শুরুতে অস্ট্রেলিয়ায় ওয়ানডে সিরিজ জিতেছিল ভারত, এবার ভারতে এসে সিরিজ জিতে তার শোধ তুলল  অস্ট্রেলিয়া। 

অসিদের জয়ে সেঞ্চুরি করা ব্যাট হাতে অবদান সেঞ্চুরি করা খাওয়াজা। কিন্তু বোলিংয়ে কৃতিত্ব  একা কারো নয়। ৪৬ রানে ৩ উইকেট নেন লেগ স্পিনার জাম্পা। তিন পেসার কামিন্স, রিচার্ডসন, স্টয়নিকস নিয়েছেন দুটি করে উইকেট। 

টস জিতে ব্যাট করতে গিয়ে জুতসই শুরু পায় অসিরা। ৭৬ রানের ওপেনিং জুটির পর আউট হন ২৭ করা অধিনায়ক ফিঞ্চ। কিন্তু এরপর দ্বিতীয় উইকেটে দারুণ জুটি গড়েন খাওয়াজা আর হ্যান্ডসকম্ব। তাদের ৯৯ রানের জুটিতে দল পায় বড় সংগ্রহের ভিত। কিন্তু ১০৬ বলে ঠিক ১০০ রান করে খাওয়াজা ফেরার পর পথ হারায় অস্ট্রেলিয়া। খানিক পর ম্যাক্সওয়েল আর ৫২ রান করা হ্যান্ডসকম্বও বিদায় নেন। 

মার্কাস স্টয়নিক্স, অ্যাস্টন টার্নার এই ম্যাচে থিতু হয়েও শেষ করতে পারেননি। শেষ দিকে জো রিচার্ডসন আর প্যাট কামিন্সের ব্যাটে চ্যালেঞ্জিং স্কোর পায় অসিরা। 

২৭৩ রান তাড়ায় নেমে শুরুতেই শিখর ধাওয়ানকে হারায় ভারত। বরাবরই দারুণ ফর্মে থাকা অধিনায়ক বিরাট কোহলি এই ম্যাচে থিতু হয়ে বিদায় নেন। মহেন্দ্র ধোনীর বিশ্রামে সুযোগ পাওয়া ঋষভ পান্ত প্রমাণ করতে পারেননি চাপে খেলার সামর্থ্য। হুটহাট কিছু মেরে তড়িঘড়ি বিদায় নিলে সব চাপ গিয়ে পড়ে রোহিতের ঘাড়ে। এই ম্যাচে ব্যর্থ বিজয় শঙ্করও। অনেকটা সময় নিয়ে খেলে ফিফটি তুলা রোহিতকে অ্যডাম জাম্পা তুলে নিলে ভীষণ বিপদ বাড়ে ভারতের। 

রবীদ্র জাজেদাও কোন রান না করে ফিরলে একা হয়ে পড়েন কেদার যাদব। ১৩২ রানে ৬ উইকেট খুইয়ে দল তখন হারের মুকেহ।  এরপর ভুবনেশ্বর কুমারের সঙ্গে দারুণ জুটিতে মোড় ঘুরিয়ে দিচ্ছিলেন কেদার। সপ্তম উইকেটে ৯১ রানের এই জুটি ভাঙার পর আর টেকেনি ভারত। বাকিটা আনুষ্ঠানিকতা সেরে উৎসবে মেতেছে অস্ট্রেলিয়া। 

Comments

The Daily Star  | English

The taste of Royal Tehari House: A Nilkhet heritage

Nestled among the busy bookshops of Nilkhet, Royal Tehari House is a shop that offers students a delectable treat without burning a hole in their pockets.

1h ago