আবার ক্ষমতায় আসছে বিজেপি? কী বলছে সমীক্ষা

ভারতে টাইমস নাও এবং ভিএমআর-এর যৌথ সমীক্ষা জানিয়ে দিলো ফের দেশটির কেন্দ্রে সরকার গঠন করতে চলেছে বিজেপি নেতৃত্বাধীন এনডিএ জোট। মূলত মোদি হাওয়ায় ভর করেই ফের কেন্দ্রে ফিরতে চলেছে বিজেপি। তবে এনডিএ সরকারে এলেও তাদের অন্যতম শরিক দল বিজেপি কটা আসন পাবে সেকথা উল্লেখ করা হয়নি সমীক্ষাটিতে।
Lok Sabha election
ছবি: সংগৃহীত

ভারতে টাইমস নাও এবং ভিএমআর-এর যৌথ সমীক্ষা জানিয়ে দিলো ফের দেশটির কেন্দ্রে সরকার গঠন করতে চলেছে বিজেপি নেতৃত্বাধীন এনডিএ জোট। মূলত মোদি হাওয়ায় ভর করেই ফের কেন্দ্রে ফিরতে চলেছে বিজেপি। তবে এনডিএ সরকারে এলেও তাদের অন্যতম শরিক দল বিজেপি কটা আসন পাবে সেকথা উল্লেখ করা হয়নি সমীক্ষাটিতে।

ভারতে আসন্ন লোকসভা নির্বাচনের প্রথম দফার ভোট গ্রহণের দুদিন আগেই গতকাল (৮ এপ্রিল) সন্ধ্যায় টাইমস নাও-ভিএমআর-এর সমীক্ষা জানিয়ে দিলো এবারের লোকসভা নির্বাচনে এগিয়ে রয়েছে বিজেপি। সমীক্ষায় দাবি করা হয়েছে, ভারতের এবারের লোকসভা নির্বাচনে জিততে চলেছে বিজেপি নেতৃত্বাধীন এনডিএ জোট। এই জোট পেতে পারে ২৭৯টি আসন।

ভারতের লোকসভায় মোট আসন ৫৪৩টি। সরকার গড়ার জন্য ম্যাজিক ফিগারের সংখ্যা ২৭২টি। টাইমস নাও-ভিএমআর-এর সমীক্ষা অনুযায়ী- সেই ম্যাজিক ফিগারের থেকেও বেশ কয়েকটি আসন বেশিই পেতে চলেছে বিজেপি নেতৃত্বাধীন এনডিএ জোট।

উল্লেখ্য, এর আগে যে কয়টি মন্তব্যভিত্তিক সমীক্ষা হয়েছে তাদের প্রতিটিতেই বিজেপি এবং এনডিএ জোটের দিকে বেশি সমর্থনের কথা বলা হয়েছিলো। এদিন টাইমস নাও-ভিএমআর-এর সমীক্ষাও একই তথ্য জানালো। তবে এই সমীক্ষায় স্পষ্ট করে বলা হয়নি, বিজেপি ঠিক কতোগুলি আসন পেতে পারে। বিজেপি নেতৃত্বাধীন এনডিএ জোট ২৭৯টির মতো আসন পেলেও বিজেপির আসন সংখ্যা গতবারের তুলনায় ৫০ থেকে ৬০টি কমে যেতে পারে বলে মনে করছেন দেশটির রাজনৈতিক মহল।

অন্যদিকে, এই সমীক্ষায় বলা হয়েছে যে ভারতের জাতীয় কংগ্রেস এবং এর নেতৃত্বাধীন ইউপিএ জোট গতবারের চেয়ে অনেক ভালো ফল করতে চলছে। উল্লেখ্য, ২০১৪ সালের লোকসভা নির্বাচনে কংগ্রেস পেয়েছিলো ৪৪টি আসন। আর ইউপিএ জোট পেয়েছিলো ৬০টি আসন।

এবারে টাইমস নাও-ভিএমআর-এর সমীক্ষা অনুযায়ী ইউপিএ জোট পেতে চলেছে ১৪৯টির মতো আসন। পাশাপাশি ভারতের অন্যান্য আঞ্চলিক দলগুলো সব মিলিয়ে পেতে পারে ১১৫টির মতো আসন। আঞ্চলিক দলগুলো ২০১৪ সালের লোকসভা নির্বাচনে পেয়েছিলো ১৪৭টি আসন।

প্রসঙ্গত, টাইমস নাও-ভিএমআর-এর প্রথম সমীক্ষা থেকে এবারের দ্বিতীয় সমীক্ষায় এনডিএ জোট ম্যাজিক ফিগার পেলেও তাদের প্রথম সমীক্ষার নিরিখে কমেছে আসন সংখ্যা। দ্বিতীয় সমীক্ষায় বেড়েছে ইউপিএর আসন সংখ্যা। তবে আসন সংখ্যা কমেছে অন্যান্যদের।

টাইমস নাও-ভিএমআর তাদের প্রথম সমীক্ষায় এনডিএ জোটকে দিয়েছিলো ২৮৩টি, এবং ইউপিএ-কে ১৩৫টি আসন এবং অন্যান্যদের দিয়েছিলো ১২৫টি আসন। ২০১৪ সালের লোকসভা নির্বাচনে এনডিএ পেয়েছিলো ৩৩৬টি আসন। যার মধ্যে বিজেপি একাই পেয়েছিলো ২৮৩টি আসন। ইউপিএ পেয়েছিলো ৬০টি আসন, যার মধ্যে কংগ্রেস পেয়েছিলো মাত্র ৪৪টি আসন। অন্যান্যদের দখলে গিয়েছিলো ১৪৭টি আসন।

এদিকে, টাইমস নাও-ভিএমআর-এর  দ্বিতীয় সমীক্ষা অনুযায়ী পশ্চিমবঙ্গ রাজ্যে আসন সংখ্যা কমতে চলেছে রাজ্যটির শাসকদল তৃণমূলের।

পশ্চিমবঙ্গে মোট ৪২টি লোকসভা আসনের মধ্যে গতবার তৃণমূল কংগ্রেস পেয়েছিলো ৩৪টি আসন। টাইমস নাও-ভিএমআর-এর দ্বিতীয় সমীক্ষা বলছে, এবারে তৃণমূল পেতে চলেছে ৩১টি আসন। প্রথম সমীক্ষায় সংস্থাটি পশ্চিমবঙ্গে বিজেপি ১১টি আসন পেতে পারে বলে জানালেও দ্বিতীয় সমীক্ষায় তারা জানিয়েছে পশ্চিমবঙ্গে বিজেপি পেতে চলেছে ৯টি আসন।

২০১৪ সালে পশ্চিমবঙ্গে বিজেপি পেয়েছিলো মাত্র ২টি আসন। এবারে সেই আসন সংখ্যা বিজেপির প্রায় সাড়ে চারগুণ বাড়তে চলেছে বলে সমীক্ষায় প্রকাশ।

টাইমস নাও-ভিএমআর-এর দ্বিতীয় সমীক্ষা অনুযায়ী পশ্চিমবঙ্গে কংগ্রেস পেতে পারে ২টি আসন। প্রথম সমীক্ষায় অবশ্য বলা হয়েছিলো কংগ্রেস একটিও আসন পাবে না।

তবে এই সমীক্ষায় উল্লেখযোগ্যভাবে পশ্চিমবঙ্গ থেকে মুছে যেতে চলেছে বামফ্রন্ট। প্রথম সমীক্ষা এবং দ্বিতীয় সমীক্ষাতেও পশ্চিমবঙ্গে বামফ্রন্টের জন্য কোনও আসন দেয়নি সংস্থাটি। টাইমস নাও-ভিএমআর-এর সমীক্ষায় প্রকাশ, ভোট শতাংশের হারে পশ্চিমবঙ্গে বিরাট উত্থান ঘটতে চলেছে বিজেপির।

টাইমস নাও-ভিএমআর-এর দ্বিতীয় সমীক্ষা অনুযায়ী, বিজেপি এই রাজ্যে ৩১.৩ শতাংশ ভোট পেতে পারে। শাসকদল তৃণমূল পেতে পারে ৩৭.৫ শতাংশ ভোট। এছাড়াও, বামফ্রন্ট পেতে পারে ১৫.৯৬ শতাংশ ভোট।  কংগ্রেস পেতে পারে ১০.৪ শতাংশ এবং অন্যান্যরা পেতে পারে ৪.৮৪ শতাংশ ভোট।

Comments

The Daily Star  | English

Electric vehicles etching their way into domestic automobile industry

The automobile industry of Bangladesh is seeing a notable shift towards electric vehicles (EVs) with BYD Auto Co Ltd, the world’s biggest EV maker, set to launch its Seal model on the domestic market.

7h ago