ভাঙা হচ্ছে ‘হাতিরঝিলের ক্যানসার’ বিজিএমইএ ভবন

অবশেষে ভাঙা হচ্ছে রাজধানীর হাতিরঝিলে অবস্থিত তৈরি পোশাকশিল্প মালিকদের সংগঠন বিজিএমইএ’র বহুল আলোচিত সেই ভবন।
BGMEA
১৬ এপ্রিল ২০১৯, সকাল সাড়ে ৮টা থেকে পাঁচটি বুলডোজারের মাধ্যমে বিজিএমইএ ভবন ভাঙার কাজ শুরু করেছে রাজউক। ছবি: আমরান হোসেন

অবশেষে ভাঙা হচ্ছে রাজধানীর হাতিরঝিলে অবস্থিত তৈরি পোশাকশিল্প মালিকদের সংগঠন বিজিএমইএ’র বহুল আলোচিত সেই ভবন।

আজ (১৬ এপ্রিল) সকাল সাড়ে ৮টা থেকে ভবনটি ভাঙতে প্রাথমিক কাজ শুরু করেছে রাজধানী উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ (রাজউক)।

রাজউকের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট অলিউর রহমান জানান, ভবনটি ভাঙার জন্য প্রাথমিকভাবে পাঁচটি বুলডোজার আনা হয়েছে।

এই ভবনে বেসরকারি এক্সিম ব্যাংকের একটি শাখা রয়েছে। ব্যাংকের টাকা-পয়সা অন্যত্র সরিয়ে নেওয়ার জন্য এর কর্মকর্তারা আরও সময় চাইলে, সকাল ৯টা থেকে তাদের দুই ঘণ্টা সময় দেওয়া হয় বলে জানান তিনি।

ঘটনাস্থল থেকে আমাদের সংবাদদাতা জানিয়েছেন, ভবন থেকে লোকজন সরে যেতে শুরু করেছেন। সেখানে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্যদের মোতায়েন করা হয়েছে।

উল্লেখ্য, জমির স্বত্ব না থাকা ও জলাধার আইন লঙ্ঘন করায় হাতিরঝিল প্রকল্প এলাকায় বিজিএমইএর বর্তমান ভবনটি ভেঙে ফেলার নির্দেশনা আসে উচ্চ আদালত থেকে। সে জন্য ভবনটি ছাড়তে গত ১২ এপ্রিল পর্যন্ত বিজিএমইএ কর্তৃপক্ষকে সময় দিয়েছিলেন আদালত।

২০১১ সালের ৩ এপ্রিল হাইকোর্ট এক রায়ে ওই ভবনটিকে ‘হাতিরঝিল প্রকল্পে একটি ক্যানসারের মতো’ উল্লেখ করে রায় প্রকাশের ৯০ দিনের মধ্যে ভেঙে ফেলতে নির্দেশ দেন। এর বিরুদ্ধে বিজিএমইএ লিভ টু আপিল করে, যা ২০১৬ সালের ২ জুন আপিল বিভাগে খারিজ হয়।

ভবনের কার্যক্রম সরিয়ে নিতে উত্তরা তৃতীয় পর্বে ১১০ কাঠা জমির ওপর বিজিএমইএ নতুন ভবন নির্মাণ করছে। ইতিমধ্যে ১৩ তলা ভবনের ৬ তলার কাজ শেষ হয়েছে। গত ৩ এপ্রিল ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে নির্মাণাধীন ভবনটি উদ্বোধন করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

Comments

The Daily Star  | English
Energy security crisis in Bangladesh

How can Bangladesh enhance its energy security?

Continuous gas exploration and exploitation of renewable energy should be the two pillars of energy security in the country.

29m ago