১১ ছক্কায় মাশরাফি-সৌম্যের রেকর্ডে সাইফ হাসান

লিগের শুরু থেকেই দারুণ খেলছিলেন সাইফ হাসান। মাঝে খানিকটা ছন্দের গড়মিল হলেও শেষ দিকেও রান ফোয়ারা তার ব্যাটে। শেখ জামাল ধানমন্ডিকে হারাতে ১৪৮ রানের বিস্ফোরক ইনিংস খেলেছেন তিনি। মেরেছেন ১১টি ছক্কা। লিস্ট-এ ক্রিকেটে বাংলাদেশিদের মধ্যে এক ইনিংসে সবচেয়ে বেশি ছক্কা মারার রেকর্ডে স্পর্শ করেছেন মাশরাফি মর্তুজা আর সৌম্য সরকারকে। এতে করে সর্বোচ্চ রান করায় মোহামেডানের রকিবুল হাসানের সঙ্গে সমান তালে পাল্লা দিচ্ছেন এই তরুণ।
Saif Hasan
সেঞ্চুরির পর সাইফ হাসান। ফাইল ছবি: ফিরোজ আহমেদ

লিগের শুরু থেকেই দারুণ খেলছিলেন সাইফ হাসান। মাঝে খানিকটা ছন্দের গড়মিল হলেও শেষ দিকেও রান ফোয়ারা তার ব্যাটে। শেখ জামাল ধানমন্ডিকে হারাতে ১৪৮ রানের বিস্ফোরক ইনিংস খেলেছেন তিনি। মেরেছেন ১১টি ছক্কা। লিস্ট-এ ক্রিকেটে বাংলাদেশিদের মধ্যে এক ইনিংসে সবচেয়ে বেশি ছক্কা মারার রেকর্ডে স্পর্শ করেছেন মাশরাফি মর্তুজা আর সৌম্য সরকারকে।  এতে করে সর্বোচ্চ রান করায় মোহামেডানের রকিবুল হাসানের সঙ্গে সমান তালে পাল্লা দিচ্ছেন এই তরুণ।

রোববার বিকেএসপিতে ঢাকা প্রিমিয়ার লিগের সুপার লিগের ম্যাচে শেখ জামাল ধানমন্ডি ক্লাবলে ৭ উইকেটে হারিয়েছে প্রাইম দোলেশ্বর। তবে জিতলেও শিরোপার দৌঁড়ে আর নেই তারা। মিরপুরে প্রাইম ব্যাংককে ৭ উইকেটে সহজেই হারিয়েছে মোহামেডান। শিরোপার দৌঁড়ে নেই তারাও। 

বিকেএসপিতে আগে ব্যাট করে তানবীর হায়দারের ৬৯ রানে ২৪৩ রানে গুটিয়ে যায় শেখ জামাল। ওই রান তাড়ায় প্রতিপক্ষ বোলারদের পাত্তাই দিলেন না সাইফ। ১১৬ বলে ১০ চার আর ১১ ছক্কায় সাইফ খেলেছেন হার না মানা ১৪৮ রানের ইনিংস। তাতে ১১ ওভার ৩ বল বাকি থাকতেই জিতেছে দোলেশ্বর।

২৪৪ রান তাড়ায় ৩০ রানেই আসলাম হোসেন আর সৈকত আলির উইকেট হারিয়ে বসে দোলেশ্বর। এরপরই ফরহাদ হোসেনের সঙ্গে ১৮৮ রানের জুটি গড়ে তুলেন সাইফ। ৮০ বলে ৭৮ করে ফরহাদ ফিরলেও সাইফের তাণ্ডব থেমেছে দলকে একদম জিতিয়ে।

১৪৮ রানের ইনিংসে সাইফ বাউন্ডারি থেকেই নিয়ে নেন ১০৬ রান। এতে ১১টি ছক্কা মেরে রেকর্ড বইয়ে নাম উঠে সাইফের। ২০১৬ সালে ফতুল্লায় শেখ জামালের বিপক্ষে কলাবাগান ক্রীড়া চক্রের হয়ে ১১ ছক্কা মেরেছিলেন মাশরাফি, করেছিলেন ৫০ বলে সেঞ্চুরি। গত বছর অগ্রনী ব্যাংকের হয়ে ব্রাদার্স ইউনিয়নের বিপক্ষে ১২৭ বলে ১৫৪ রানের ইনিংসে ১১ ছক্কা মারেন সৌম্য।

এমন তান্ডবের দিনে ধারাবাহিকতারও ছাপ রেখেছেন সাইফ। এই নিয়ে লিগে ১৫ ম্যাচে ৩ সেঞ্চুরি আর ৩ ফিফটিতে সাইফের সংগ্রহ ৭৫৯ রান। সমান ম্যাচ খেলে রকিবুলও করেছেন ৭৫৯ রান।

এদিন প্রাইম ব্যাংকের বিপক্ষে মোহামেডানকে জেতাতে ৫২ রানে অপরাজিত থাকেন রকিবুল। আগে ব্যাট করে প্রাইম ব্যাংক অলআউট হয়ে যায় মাত্র ১৭৪ রানে। ৪৯ রানে ৫ উইকেট হারানোর পর অলক কাপালীর ৪৩ আর টেল এন্ডারদের দৃঢ়তায় দেড়শো পার করে তারা। ১৭৫ রানের লক্ষ্যে আগ্রাসী শুরু করেছিলেন লিটন দাস। ২০ বলে ৩২ করে তিনি ফেরার পর আব্দুল মজিদ ও রকিবুলের ফিফটিতে ৭ উইকেটে জিতেছে মোহামেডান।

তবে জিতলেও ছয় নম্বরেই আছে ঐতিহ্যবাহী ক্লাবটি।

Comments

The Daily Star  | English

Record job vacancies hurt govt services

More than a quarter of the 19 lakh posts in the civil administration are now vacant mainly due to the authorities’ reluctance to initiate the recruitment process.

9h ago