প্রথমবারের মতো ছেলেদের ওয়ানডেতে নারী আম্পায়ার

মেয়েদের ক্রিকেটে পুরুষ আম্পায়ারের পাশাপাশি নারীদেরও দেখা যায়। কিন্তু ছেলেদের ক্রিকেটে নারী আম্পায়ার এমন দৃশ্য একেবারেই অচেনা। আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে এমনটা হয়নি কখনো। অস্ট্রেলিয়ার নারী আম্পায়ার ক্লেয়ার পোলোস্যাক তাই সেদিক থেকে গড়লেন ইতিহাস। নতুন ওয়ানডে মর্যাদা পাওয়া ওমান আর নামিবিয়ার বিপক্ষে ম্যাচে ইতিহাসের প্রথম নারী হিসেবে আম্পায়ারিং করেছেন তিনি।
Claire Polosak
ছবি: ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়া

মেয়েদের ক্রিকেটে পুরুষ আম্পায়ারের পাশাপাশি নারীদেরও দেখা যায়। কিন্তু ছেলেদের ক্রিকেটে নারী আম্পায়ার এমন দৃশ্য একেবারেই অচেনা। আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে এমনটা হয়নি কখনো। অস্ট্রেলিয়ার নারী আম্পায়ার ক্লেয়ার পোলোস্যাক তাই সেদিক থেকে গড়লেন ইতিহাস। নতুন ওয়ানডে মর্যাদা পাওয়া ওমান আর নামিবিয়ার বিপক্ষে ম্যাচে ইতিহাসের প্রথম নারী হিসেবে আম্পায়ারিং করেছেন তিনি।

শনিবার ওয়ার্ল্ড ক্রিকেট লিগের ডিভিশন টু ফাইনালে মুখোমুখি হয় নামিবিয়া আর ওমান। ওয়ানডে মর্যাদা থাকা নামিবিয়ার সঙ্গে নতুন মর্যাদা পাওয়া ওমানের ম্যাচটি তাই মর্যাদা পায় ওয়ানডের। আর এতে হয়েছে অভিষেকের ছড়াছড়ি। স্বাভাবিকভাবেই ওমানের সবারই ছিল অভিষেক, নামিবিয়ার এগারো জনেরও হয়েছে এই ম্যাচেই ওয়ানডে অভিষেক।

ছেলেদের আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে প্রথম হলেও পোলোস্যাকের অবশ্য ছেলেদের ঘরোয়া লিগ পরিচালনার অভিজ্ঞতা আছে। ২০১৭ সালে অস্ট্রেলিয়ার ঘোরোয়া ক্রিকেটে আম্পায়ারিং করেছিলেন তিনি। এবার আন্তর্জাতিক পর্যায়ে ইতিহাস গড়ে ভীষণ রোমাঞ্চিত এই অস্ট্রেলিয়ান, ‘প্রথমবারের মত একজন নারী হিসেবে ছেলেদের ওয়ানডে পরিচালনা করা ভীষণ রোমাঞ্চকর। নারী আম্পায়ারদের জন্য এটা সত্যিই গুরুত্বপূর্ণ মাইলফলক। ক্রিকেটে নারীরা আম্পায়ারিং করতে পারবে না, এই ধরনের চিন্তা থেকে বের হওয়ার সময় এসেছে। আমার এই অর্জন নারী আম্পায়ারিংয়ে  জাগরণ ঘটাতে পারে। ’

মাত্র ৩১ বছর বয়েসী পোলোস্যাক এর আগে মেয়েদের ১৫টি ওয়ানডে পরিচালনা করেছেন। আছে মেয়েদের টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের ম্যাচ পরিচালনার অভিজ্ঞতাও।

Comments

The Daily Star  | English