প্রথম ম্যাচের দুই গোলদাতাকে সেমিতে পাচ্ছে না বাংলাদেশ!

আরব আমিরাতের বিপক্ষে বাংলাদেশ দলের জয়ের মূল নায়িকা ছিলেন দুই ফরোয়ার্ড কৃষ্ণা রানী সরকার ও সিরাত জাহান স্বপ্না। এ দুই খেলোয়াড়ই শেষ ম্যাচে কিরগিজস্তানের বিপক্ষে ইনজুরিতে পড়েছেন। ফলে বঙ্গমাতা অনূর্ধ্ব-১৯ আন্তর্জাতিক গোল্ড কাপের সেমিফাইনালের মতো গুরুত্বপূর্ণ ম্যাচে এ দুই তারকাকে নাও পেতে পারে বাংলাদেশ। সংবাদ সম্মেলনে এমনটাই জানালেন দলের কোচ গোলাম রব্বানি ছোটন।
ছবি: ফিরোজ আহমেদ

আরব আমিরাতের বিপক্ষে বাংলাদেশ দলের জয়ের মূল নায়িকা ছিলেন দুই ফরোয়ার্ড কৃষ্ণা রানী সরকার ও সিরাত জাহান স্বপ্না। এ দুই খেলোয়াড়ই শেষ ম্যাচে কিরগিজস্তানের বিপক্ষে ইনজুরিতে পড়েছেন। ফলে বঙ্গমাতা অনূর্ধ্ব-১৯ আন্তর্জাতিক গোল্ড কাপের সেমিফাইনালের মতো গুরুত্বপূর্ণ ম্যাচে এ দুই তারকাকে নাও পেতে পারে বাংলাদেশ। সংবাদ সম্মেলনে এমনটাই জানালেন দলের কোচ গোলাম রব্বানি ছোটন।

আসরে এখন পর্যন্ত ৪টি গোল করেছে বাংলাদেশ। যার দুটিই এসেছে কৃষ্ণার কাছ থেকে। অপর দুটির একটি করেছেন স্বপ্না ও সানজিদা আক্তার। অথচ সেরা এ দুই তারকাকে নিয়েই শঙ্কা। কিরগিজস্তানের বিপক্ষেই চোট পান তারা। ডান পায়ের হাঁটুতে চোট পেয়ে সে ম্যাচের মাত্র ২৫ মিনিটে খেলতে পেরেছিলেন স্বপ্না। আর ৭৩তম মিনিটে চোট পেয়ে মাঠ ছাড়েন কৃষ্ণা। ছোটনের ভাষায়, ‘স্বপ্না বলে শট করছিল,গোললক্ষক এসে প্রথমে তার পায়ে আঘাত করে। স্বপ্না যখন পড়ে যায়,তখন তার উপর গোলরক্ষক পড়ে যায়। তাতে পায়ের হাঁটু মোচড় খেয়েছে। আর দ্বিতীয়ার্ধে শট করতে যাওয়ার সময় কৃঞ্চাকে ট্যাকল করে প্রতিপক্ষ ডিফেন্ডার।’

আগামী মঙ্গলবার ফাইনালে ওঠার লড়াইয়ে মঙ্গোলিয়ার বিপক্ষে খেলবে বাংলাদেশ। এ ম্যাচের আগে দলের সেরা দুই তারকাকে পাওয়া সম্ভাবনা নিয়ে ছোটন বললেন, ‘কৃঞ্চা ও স্বপ্নাকে এই (সেমি-ফাইনালে) ম্যাচে পাওয়ার সম্ভাবনা খুবই কম। গতকাল থেকে রিহ্যাব চলছে। বরফ দেওয়া হচ্ছে। এমআরআই করা হয়েছে। আজ রিপোর্ট পাওয়ার কথা। কৃঞ্চার চেয়ে স্বপ্নার চোটটা একটু বেশি। সেমিফাইনালে তাদের পাওয়াটা এখনো সময়ের ব্যাপার। দেখা যাক কী হয়।’

শেষ ম্যাচে মার্জিয়া ও তহুরা খাতুন এ দুই খেলোয়াড়ের জায়গায় বদলী খেলোয়াড় হিসেবে নেমে দারুণ ফুটবল উপহার দিয়েছেন। তাই স্বপ্না ও কৃষ্ণার না পাওয়া নিয়ে খুব একটা দুশ্চিন্তায় নেই ছোটন, ‘আশার কথা হলো মার্জিয়া এবং তহুরা বদলি নেমে যে খেলাটা খেলেছে তাতে কৃঞ্চা-স্বপ্না না থাকলেও সমস্যা হওয়ার কথা নয়। কৃঞ্চা এবং স্বপ্না খুবই গুরুত্বপূর্ণ খেলোয়াড়। আমাদের জন্য খুশির সংবাদ হলো যে ভালমানের বিকল্প আছে।’

Comments

The Daily Star  | English

Death came draped in smoke

Around 11:30, there were murmurs of one death. By then, the fire, which had begun at 9:50, had been burning for over an hour.

3h ago