খেলার মধ্যে সম্পৃক্ত থাকলে ঠাণ্ডাটা আর গায়ে লাগে না: সাকিব

দেশে তীব্র গরম থেকে আয়ারল্যান্ডে গিয়েই বাংলাদেশ পেয়েছে প্রচণ্ড শীতের আক্রমণ। হাড় কাঁপানো ওই শীতে নিজেদের মানিয়ে নেওয়া সম্ভবই না বলেছিলেন অধিনায়ক মাশরাফি মর্তুজা। তবে ত্রিদেশীয় সিরিজের প্রথম ম্যাচে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে দেখা গেল না শীতের দাপট। বরং শীতকে পাত্তা না দিয়ে বাংলাদেশ কাবু করেছে ক্যারিবিয়ানদের। সেই ম্যাচে দলের সেরা পারফর্মারদের একজন সাকিব আল হাসান জানালেন, আসলে খেলার মধ্যে তীব্রভাবে সম্পৃক্ত হয়ে গেল শীতটা আর গায়ে লাগে না।
Shakib-Miraz

দেশে তীব্র গরম থেকে আয়ারল্যান্ডে গিয়েই বাংলাদেশ পেয়েছে প্রচণ্ড শীতের আক্রমণ। হাড় কাঁপানো ওই শীতে নিজেদের মানিয়ে নেওয়া সম্ভবই না বলেছিলেন অধিনায়ক মাশরাফি মর্তুজা। তবে ত্রিদেশীয় সিরিজের প্রথম ম্যাচে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে দেখা গেল না শীতের দাপট। বরং শীতকে পাত্তা না দিয়ে বাংলাদেশ কাবু করেছে ক্যারিবিয়ানদের। সেই ম্যাচে দলের সেরা পারফর্মারদের একজন সাকিব আল হাসান জানালেন, আসলে খেলার মধ্যে তীব্রভাবে সম্পৃক্ত হয়ে গেল শীতটা আর গায়ে লাগে না। 

মঙ্গলবার আগে ব্যাট করা ওয়েস্ট ইন্ডিজকে ২৬১ রানে আটকে ৮ উইকেটে অনায়াসে জিতে বাংলাদেশ। পুরো ১০ ওভার বল করে মাত্র ৩৩ রান দিয়ে সাকিব নেন ১ উইকেট। ব্যাট করতে নেমে ৬১ বলে ৬১ করে দলকে জিতিয়ে মাঠ ছাড়েন তিনি।

খেলার আগে আইরিশ শীতের তীব্রতা নিয়ে আওয়াজ উঠলেও খেলায় তার প্রভাব না পড়ার ব্যাখ্যায় সাকিব জানালেন কীভাবে পথ বের করেছেন তারা, ‘কঠিন (এমন শীতে খেলা)। কিন্তু পথ বের করা যায় যে কীভাবে আমি নিজেকে গরম রাখতে পারি। যদি ম্যাচের ভেতর তীব্রভাবে সম্পৃক্ত থাকা যায় তাহলে ঠাণ্ডাটা ওইভাবে গায়ে লাগে না। যেটা আমি চেষ্টা করেছি এটাই করতে, জানি না অন্যরাও হয়ত তাই করেছে। যেটা বললাম ম্যাচের মধ্যে জড়িয়ে থাকলে এই ঠাণ্ডাও মাননসই।’

উইন্ডিজের দুই ওপেনার শুরুটা করেছিলেন দারুণ। ৮৯ রানে প্রথম ব্রেক থ্রো আনেন মেহেদী হাসান মিরাজ, সাকিবও উইকেট ফেলেন খানিক পর। দুজনেই মিলে চেপে ধরে রান আটকে রাখেন ক্যারিবিয়ানদের। সাকিব বলছেন এটাই ম্যাচেরই টার্নিং পয়েন্ট, ‘ম্যাচের টার্নিং পয়েন্টটা আমাদের দুজনের মানে আমি আর মিরাজের বোলিংটা ছিল। কম রান দিয়ে দুইটা উইকেট নেওয়া আমার মনে হয় ওদের চাপে ফেলেছে।’

বিপিএলের পর থেকেই চোটে পড়েছিলেন সাকিব। খেলতে পারেননি নিউজিল্যান্ড সফরে। এরপর চোট সেরে ফিরে আইপিএলে ৩ ম্যাচ খেলেছিলেন। কিন্তু জাতীয় দলের হয়ে নামেন দীর্ঘদিন পর। নেমে যা নৈপুণ্য দেখিয়েছেন তাতে মনের ভেতর থেকে কেটে গেছে সব অস্বস্তি,  ‘অবশ্যই ভালো লাগে। কত? ছয় মাস পরে ম্যাচ খেললাম জাতীয় দলের হয়ে কাজেই নার্ভাসনেস তো কাজ করতেই পারে। কিন্তু ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে, এরকম বোলিং আক্রমণের বিপক্ষে ভাল করা অনেকখানি নির্ভার থাকার ব্যাপার। ’

 

Comments

The Daily Star  | English

Death came draped in smoke

Around 11:30pm, there were murmurs of one death. By then, the fire had been burning for over an hour.

10h ago