স্মিথকে দেখে এখন শচিন বলে ভ্রম হচ্ছে ল্যাঙ্গারের

বল টেম্পারিং কেলেঙ্কারিতে এক বছর নিষিদ্ধ ছিলেন স্টিভ স্মিথ, হারিয়েছেন নেতৃত্ব। বিশ্বকাপের ঠিক আগে নিষেধাজ্ঞা কাটিয়ে ফেরা এই ব্যাটসম্যানই এবার বিশ্বকাপে অস্ট্রেলিয়ার সবচেয়ে বড় আশা-ভরসার নাম। কোচ জাস্টিন ল্যাঙ্গার স্মিথকে পেয়ে আর স্মিথের প্রস্তুতি দেখে এতটাই মুগ্ধ যে, তাকে তুলনা করছেন ভারতীয় কিংবদন্তী শচিন টেন্ডুলকারের সঙ্গে।
Steven Smith
স্টিভ স্মিথ, ফাইল ছবি: এএফপি

বল টেম্পারিং কেলেঙ্কারিতে এক বছর নিষিদ্ধ ছিলেন স্টিভ স্মিথ, হারিয়েছেন নেতৃত্ব। বিশ্বকাপের ঠিক আগে নিষেধাজ্ঞা কাটিয়ে ফেরা এই ব্যাটসম্যানই এবার বিশ্বকাপে অস্ট্রেলিয়ার সবচেয়ে বড় আশা-ভরসার নাম। কোচ জাস্টিন ল্যাঙ্গার স্মিথকে পেয়ে আর স্মিথের প্রস্তুতি দেখে এতটাই মুগ্ধ যে, তাকে তুলনা করছেন ভারতীয় কিংবদন্তী শচিন টেন্ডুলকারের সঙ্গে। 

বিশ্বকাপ প্রস্তুতি ক্যাম্পে যোগ দিয়ে এরমধ্যে নিউজিল্যান্ড একাদশের বিপক্ষে ব্রিসবেনে তিনটি প্রস্তুতি ম্যাচ খেলেছে অস্ট্রেলিয়া। তাতে স্মিথ ছড়িয়েছেন আলো। প্রথম ম্যাচে ২২ রানে আউট হলেও পরের দুই ম্যাচে ৮৯ ও ৯১ রানে অপরাজিত দুই ইনিংস খেলে মুগ্ধতা ছড়িয়েছেন কোচের।

প্রস্তুতি ম্যাচ আর অনুশীলনে স্মিথের ব্যাটিং এতটাই মুগ্ধতা জাগানিয়া, তাকে দেখে শচিন বলেই নাকি  ভ্রম হচ্ছে ল্যাঙ্গারের, ‘নিউজিল্যান্ড একাদশের বিপক্ষে তিনটা প্রস্তুতি ম্যাচে ওর ব্যাটিং দেখলাম। সত্যি সে মাস্টার ব্যাটসম্যান। তাকে ফিরে পাওয়া দারুণ কিছু। সে ব্যাটিং করতে ভালোবাসে। এমনকি মনে হয় সারাক্ষণই শ্যাডো করে।’

‘ব্রিসবেনে গেল সপ্তাহে অনুশীলনেও  দারুণ ব্যাট করেছে। নাথান কাটার নাইলকে অবিশ্বাস্য কিছু শট মেরেছে। মনে হচ্ছিল শচিন ব্যট করছে। সে দারুণ ছন্দে আছে।’

স্মিথ- ডেভিড ওয়ার্নার ফেরায় অস্ট্রেলিয়ার ব্যাটিং লাইনআপটা এখন বেশ শক্তিশালী। কিন্তু মিচেল স্টার্ক, কাটার নেইল, ন্যাথান লায়নদের নিয়ে গড়া বোলিং আক্রমণও যে প্রভাবশালী অসি কোচ মনে করিয়ে দিয়েছেন তা,  ‘সাদা বলের খেলায় ব্যাটিং নিয়েই অনেক কথা হচ্ছে কিন্তু আমাদের বোলিংও মারাত্মক।’

স্মিথ-ওয়ার্নারের নিষেধাজ্ঞার পর গেল এক বছর ধরে বেশ ছন্নছাড়া ছিল অস্ট্রেলিয়া। মনে হচ্ছিল শক্তির বিচারে তারা পিছিয়ে গেছে অনেকটাই। কিন্তু বিশ্বকাপ ঘনাতেই ফর্মে ফিরেছে রেকর্ড পাঁচবারের বিশ্ব চ্যাম্পিয়নরা। ল্যাঙ্গার বিশ্বকাপে তাদের গৌরবময় রেকর্ড মনে করিয়েই নিজেদের অহং দেখালেন অস্ট্রেলিয়ান কোচ,  ‘যখন সবাই বলে তোমরা এখন ইংল্যান্ড, নিউজিল্যান্ড বা ভারতের মতো খেলছ। তখন বলি, না। আমরা অস্ট্রেলিয়া, অস্ট্রেলিয়ার মতই খেলছি। কারণ গত পাঁচ বিশ্বকাপের চারটাই আমরা জিতেছি। খেলোয়াড়রা সবাই এই ব্যাপারে অবগত আছে। অস্ট্রেলিয়ার মত খেলতে পারলে ইতিহাস বলে আমরা কতটা ভালো।’

Comments

The Daily Star  | English

$7b pledged in foreign funds

When Bangladesh is facing a reserve squeeze, it has received fresh commitments for $7.2 billion in loans from global lenders in the first seven months of fiscal 2023-24, a fourfold increase from a year earlier.

3h ago