ট্রেনের অ্যাপের টিকিট কাউন্টারে পাওয়া যাবে: রেলমন্ত্রী

স্মার্টফোনে অ্যাপের মাধ্যমে ঈদুল ফিতরের আগাম টিকিট বিক্রিতে সমস্যার কথা স্বীকার করে রেলমন্ত্রী নুরুল ইসলাম সুজন বুধবার বলেছেন, যদি অ্যাপের মাধ্যমে মানুষ ট্রেনের টিকিট কিনতে ব্যর্থ হয় তাহলে বাকি টিকিট ২৭ মে থেকে কাউন্টারে বিক্রি করা হবে।
ঈদের আগাম টিকিট বিক্রির প্রথম দিনে আজ বুধবার কমলাপুর স্টেশনের কাউন্টারে ভিড় করে লোকজন। ছবি: আমরান হোসেন

স্মার্টফোনে অ্যাপের মাধ্যমে ঈদুল ফিতরের আগাম টিকিট বিক্রিতে সমস্যার কথা স্বীকার করে রেলমন্ত্রী নুরুল ইসলাম সুজন বুধবার বলেছেন, যদি অ্যাপের মাধ্যমে মানুষ ট্রেনের টিকিট কিনতে ব্যর্থ হয় তাহলে বাকি টিকিট ২৭ মে থেকে কাউন্টারে বিক্রি করা হবে।

আজ বুধবার কমলাপুর রেলস্টেশন পরিদর্শনে গিয়ে সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে মন্ত্রী এ কথা বলেন।

তিনি বলেন, “এটা যারা অ্যাপ তৈরি করেছে সেই সিএনএস এর ব্যর্থতা এবং আমাদেরও ব্যর্থতা।”

সুজন বলেন, “মানুষ অ্যাপের মাধ্যমে যদি টিকিট কাটতে ব্যর্থ হয় তাহলে আমরা ইতিমধ্যেই অন্য ব্যবস্থা হাতে নিয়েছি। অ্যাপের জন্য বরাদ্দ থাকা অবিক্রিত টিকিট ২৭ মে থেকে কাউন্টারে বিক্রি করা হবে।”

সিএনএস এর অবহেলার প্রমাণ পাওয়া গেলে তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলেও জানান তিনি।

সকালে মন্ত্রী বলেন, অনলাইনে ১৪ হাজার ৭৫৪টি এবং অ্যাপের মাধ্যমে ৫ হাজার ২৪২টি টিকিট বিক্রি করা হয়েছে।

উল্লেখ্য, ঈদুল ফিতর উপলক্ষে বুধবার থেকে ট্রেনের আগাম টিকিট বিক্রি শুরু হয়েছে। প্রথম দিনে ৩১ মের আগাম টিকিট বিক্রি করা হয়েছে। এবার স্টেশন থেকে ৫০ শতাংশ ও বাকি টিকিট অনলাইনে বিক্রির ব্যবস্থা থাকার কথা জানিয়েছিল রেল কর্তৃপক্ষ।

ঈদের বেশ কয়েকদিন আগের টিকিট হলেও আগাম টিকিট পেতে শত শত মানুষ রাজধানীর কমলাপুরসহ আরও চারটি স্টেশনে ভিড় জমিয়েছেন। তবে গত বছরগুলোর তুলনায় এবার কমলাপুর স্টেশনের কাউন্টারগুলোতে কম ভিড় লক্ষ্য করা গেছে।

এ বছর রেলের ভিন্ন ভিন্ন গন্তব্যের টিকিট পাঁচটি স্টেশনে ভাগ করে দেওয়া হয়েছে। কমলাপুর স্টেশন থেকে শুধুমাত্র পশ্চিমাঞ্চলের টিকিট বিক্রি করা হচ্ছে। যারা চট্টগ্রাম ও নোয়াখালীর টিকিট নিবেন, তাদের বিমানবন্দর স্টেশন থেকে টিকিট সংগ্রহ করতে হবে। ময়মনসিংহ ও জামালাপুরের টিকিট তেজগাঁও স্টেশনে, নেত্রকোনা, মোহনগঞ্জ এবং হাওর এক্সপ্রেসের টিকিট বনানী স্টেশনে এবং সিলেট ও কিশোরগঞ্জের টিকিট ফুলবাড়িয়ার পুরাতন রেলভবনে পাওয়া যাবে।

পূর্ব ঘোষিত সূচি অনুসারে, ২৩ মে ১ জুনের, ২৪ মে ২ জুনের, ২৫ মে ৩ জুনের এবং ২৬ মে ৪ জুনের আগাম টিকিট বিক্রি করা হবে।

এছাড়া আগামী ২৯ মে ৭ জুনের, ৩০ মে ৮ জুনের, ৩১ মে ৯ জুনের, ১ জুন ১০ জুনের ও ২ জুন ১১ জুনের ফিরতি টিকিট বিক্রি হবে।

প্রতিদিন সকাল ৯টা থেকে বিকেল ৫টা পর্যন্ত এ আগাম টিকিট বিক্রি করা হবে এবং একজন ব্যক্তি সর্বোচ্চ চারটি টিকিট নিতে পারবেন।

ঈদুল ফিতর উপলক্ষে অতিরিক্ত যাত্রী পরিবহন করতে আটটি বিশেষ ট্রেনের ব্যবস্থা করেছে রেলওয়ে কর্তৃপক্ষ।

Comments

The Daily Star  | English

Hasina writes back to Biden

Prime Minister Sheikh Hasina has written back to US President Joe Biden

23m ago