বিশ্বকাপের আগে কোন ঘাটতি রাখতে চায় না বাংলাদেশ

বাংলাদেশের বিশ্বকাপ প্রস্তুতি শুরু হয়েছে সেই আয়ারল্যান্ডে ত্রিদেশীয় সিরিজ থেকে। ওই টুর্নামেন্টে অপরাজিত চ্যাম্পিয়ন হওয়ার পর ইংল্যান্ডে শুরু হয়েছে বিশ্বকাপের আসল প্রস্তুতি। এবার অফিসিয়াল প্রস্তুতি ম্যাচে নামছে মাশরাফি মর্তুজার দল। পাকিস্তান ও ভারতের বিপক্ষে দুই প্রস্তুতি ম্যাচ থেকে দল চায় নিজেদের সব খুঁটিনাটি ঝালাই করে নিতে।
Bangladesh Cricket Team
কার্ডিফে অনুশীলনে বাংলাদেশ দল। ছবি: বিসিবি

বাংলাদেশের বিশ্বকাপ প্রস্তুতি শুরু হয়েছে সেই আয়ারল্যান্ডে ত্রিদেশীয় সিরিজ থেকে। ওই টুর্নামেন্টে অপরাজিত চ্যাম্পিয়ন হওয়ার পর ইংল্যান্ডে শুরু হয়েছে বিশ্বকাপের আসল প্রস্তুতি। এবার অফিসিয়াল প্রস্তুতি ম্যাচে নামছে মাশরাফি মর্তুজার দল। পাকিস্তান ও ভারতের বিপক্ষে দুই প্রস্তুতি ম্যাচ থেকে দল চায় নিজেদের সব খুঁটিনাটি ঝালাই করে নিতে।

রোববার কার্ডিফের সোফিয়া গার্ডেনে নিজেদের প্রথম প্রস্তুতি ম্যাচে পাকিস্তানের বিপক্ষে খেলবে বাংলাদেশ। মঙ্গলবার একই ভেন্যুতে নামবে ভারতের বিপক্ষে।

এই দুই ম্যাচ তাই বড় মঞ্চে নামার আগে শেষ মুহূর্তের প্রস্তুতি। অলরাউন্ডার মেহেদী হাসান মিরাজ জানালেন হাতে থাকা অল্প সময়ের সবটাই কাজে লাগাতে মরিয়া তারা,  ‘আমাদের হাতে খুব অল্প সময় আছে। আর পাঁচদিন বোধহয়। প্রস্তুতি ম্যাচ দুটো খুব গুরুত্বপূর্ণ কারণ এখানে আসলে কন্ডিশনটা কেমন হয় তা বুঝতে সময় লেগে যায়। কাজেই প্রস্তুতি ম্যাচ থেকে যদি আমরা এটা আয়ত্ত করতে পারি তাহলে আমাদের জন্য কাজটা সহজ হয়। নিজেদের শতভাগ দেওয়ার জন্য এবং ঘাটতিগুলো মেটানোর জন্য দরকার (ম্যাচ খেলা)।

বাকি আট-দশটা প্রস্তুতি ম্যাচের থেকে বিশ্বকাপের অফিসিয়াল প্রস্তুতি ম্যাচের অ্যাপ্রোচে কিছুটা তফাৎ আছে। অনেকটা মূল ম্যাচের মতই এখানে সিরিয়াস থাকে দলগুলো। নামে প্রস্তুতি ম্যাচ হলেও পেশাদার মনোভাবের বাইরে যাওয়ার সুযোগ তাই কম, ‘গা ছাড়া ভাব না। সব সময় সব ম্যাচেই আমাদের জন্য গুরুত্বপূর্ণ কারণ ভালো খেললে আত্মবিশ্বাস বাড়ে। বিশ্বকাপের ম্যাচে অনেক চাপ থাকবে, অনেক হাইভোল্টেজের ম্যাচ হবে। এখানে নিজেদের সর্বোচ্চ দিতে পারলে পথটা সহজ হয়।’

নিজেদের সর্বশেষ খেলা দশ ওয়ানডেতেই হেরেছে পাকিস্তান। আফগানিস্তানের কাছে প্রস্তুতি ম্যাচেও হেরেছে সরফরাজ আহমেদরা। মিরাজ জানালেন বাংলাদেশও চায় পাকিস্তানিদের হারিয়ে নিজেদের ছুটে চলার গতিটা ধরে রাখতে , ‘আসলে ম্যাচ জিতলে অনেক আত্মবিশ্বাস পাওয়া যায়। প্রস্তুতি ম্যাচ এটা আসলে আমাদের মাথায় নেই।’

Comments

The Daily Star  | English

Inadequate Fire Safety Measures: 3 out of 4 city markets risky

Three in four markets and shopping arcades in Dhaka city lack proper fire safety measures, according to a Fire Service and Civil Defence inspection report.

7h ago