গতি ফিরে পেয়েছেন মোস্তাফিজ, স্বস্তিতে মাশরাফি

ভারতের বিপক্ষে বাংলাদেশের প্রস্তুতি ম্যাচের শুরুতেই ছিল চমক। মোস্তাফিজুর রহমানের হাতে বল তুলে দিয়েছিলেন মাশরাফি বিন মর্তুজা। নতুন বলে কার্ডিফের উইকেটে কাটার মাস্টারও তুলেছিলেন গতির ঝড়। লাইন-লেংথও ছিল পাক্কা। এক কথায়, মোস্তাফিজ দেখাচ্ছিলেন তার পুরনো চেহারা। যা স্বস্তি দিচ্ছে টাইগার দলনেতা মাশরাফিকে, জানিয়েছে জনপ্রিয় ক্রিকেট বিষয়ক ওয়েবসাইট ক্রিকইনফো।
mustafizur rahman
ফাইল ছবি

ভারতের বিপক্ষে বাংলাদেশের প্রস্তুতি ম্যাচের শুরুতেই ছিল চমক। মোস্তাফিজুর রহমানের হাতে বল তুলে দিয়েছিলেন মাশরাফি বিন মর্তুজা। নতুন বলে কার্ডিফের উইকেটে কাটার মাস্টারও তুলেছিলেন গতির ঝড়। লাইন-লেংথও ছিল পাক্কা। এক কথায়, মোস্তাফিজ দেখাচ্ছিলেন তার পুরনো চেহারা। যা স্বস্তি দিচ্ছে টাইগার দলনেতা মাশরাফিকে, জানিয়েছে জনপ্রিয় ক্রিকেট বিষয়ক ওয়েবসাইট ক্রিকইনফো।

মঙ্গলবার (২৮ মে) ভারতের কাছে ৯৫ রানের বড় ব্যবধানে হেরেছে বাংলাদেশ। তবে জয়-পরাজয় ছাপিয়ে ‘প্রাপ্তি’গুলোর দিকে নজর দিচ্ছেন মাশরাফি। তার বিচারে, ‘প্রাপ্তি’র ঝুলিতে অন্যতম নামটি মোস্তাফিজ।

রোহিত শর্মা, শিখর ধাওয়ান ও বিরাট কোহলিকে নিয়ে গড়া ভারতের টপ অর্ডারের বিপক্ষে দুর্দান্ত বোলিং করেন মোস্তাফিজ। শুরুর স্পেলে ৫ ওভার বোলিং করে দেন মাত্র ১৯ রান। এলবিডাব্লিউয়ের ফাঁদে ফেলেন ধাওয়ানকে। তার বেশ কয়েকটি ডেলিভারি ছাড়িয়েছে ১৪০ কিলোমিটার গতিবেগও। এই গতির ঝড় প্রতিপক্ষের জন্য অশান্তির, মাশরাফির জন্য শান্তির। যেমনটা বলেছেন তিনি, ‘মোস্তাফিজকে পুরনো গতিতে বল করতে দেখে আমি খুব স্বস্তি পেয়েছি।’

ক্যারিয়ারের শুরুতে নিয়মিত ১৪০ কিলোমিটার গতিতে বোলিং করতেন মোস্তাফিজ। কিন্তু বারবার চোটের কারণে মাঠের বাইরে ছিটকে যেতে হয়েছে তাকে। যার প্রভাব পড়েছে গতিতেও। সবশেষ সিরিজগুলোতে ১৩৫ কিলোমিটারের আশেপাশে বোলিং করেছেন তিনি। তাছাড়া নতুন বলেও সুবিধা আদায় করে নিতে পারছিলেন না তিনি। আয়ারল্যান্ডের মাটিতে ত্রিদেশীয় সিরিজে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে এক ম্যাচে ৪ উইকেট নিলেও প্রচুর রান দেন তিনি।

তাই মোস্তাফিজকে নিয়ে বেশ দুশ্চিন্তার মধ্যে ছিল বাংলাদেশ। তবে ভারতের বিপক্ষে ম্যাচে সব শঙ্কার মেঘ উড়িয়ে দেওয়ার ইঙ্গিত দিয়েছেন তিনি। কাটার মাস্টারের এমন পারফরম্যান্সে ভরসা পাচ্ছেন মাশরাফি।

বাংলাদেশের পেস আক্রমণের সেরা শক্তি মোস্তাফিজ। ইংল্যান্ড বিশ্বকাপে তাকে ঘিরে দলের প্রত্যাশা অনেক। সেই সুরে মাশরাফিও জানিয়েছেন, ‘সে (মোস্তাফিজ) ভালো বোলিং করেছে। ওর কয়েকটি ডেলিভারির গতি ছিল ১৪০ কিলোমিটারের আশেপাশে। সে যখন তার ছন্দ ধরে রেখে বোলিং করে, তখন আমাদের বোলিংয়ের চেহারাই পাল্টে যায়।’

Comments

The Daily Star  | English

Consumers brace for price shocks

Consumers are bracing for multiple price shocks ahead of Ramadan that usually marks a period of high household spending.

45m ago