সারাদিন যানজটের পর চাপ কমেছে শিমুলিয়ায়

শিমুলিয়া ঘাটে ঘরমুখো যাত্রীদের চাপ বেড়েছে। আজ মঙ্গলবার বিকেলেও এই ঘাটে পারাপারের অপেক্ষায় ছিল দুই শতাধিক যানবাহন।
শিমুলিয়া ঘাটে মঙ্গলবার সকাল থেকেই ছিল যানবাহন ও লঞ্চযাত্রীদের ভীড়। ছবি: স্টার

শিমুলিয়া ঘাটে ঘরমুখো যাত্রীদের চাপ বেড়েছে। আজ মঙ্গলবার বিকেলেও এই ঘাটে পারাপারের অপেক্ষায় ছিল দুই শতাধিক যানবাহন। তবে সময় গড়ানোর সঙ্গে সঙ্গে যানজটও কমেছে এখানে।

দক্ষিণাঞ্চলের ২১টি জেলার প্রবেশদ্বার শিমুলিয়ায় মঙ্গলবার ভোর থেকে যাত্রী ও যানবাহনের চাপ বাড়তে শুরু করে। সকাল সাড়ে ৮টার দিকে শিমুলিয়া ঘাটে ছোট-বড় ছয় শতাধিক যানবাহন ফেরির অপেক্ষায় ছিল। তিনটি রো-রো ফেরিসহ সর্বমোট ১৮টি ফেরি যানবাহন ও যাত্রী পারাপার করছে। তবে বৈরী আবহাওয়ার কারণে বেলা পৌনে ১১টা পর্যন্ত এক প্রায় ঘণ্টা ফেরি ও নৌযান চলাচল বন্ধ রাখা হয়। এতেই যানজট পরিস্থিতি জটিল হয়। তবে বেলা বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে পরিস্থিতি স্বাভাবিক হতে শুরু করে।

মাওয়া পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্য আমিনুল ইসলাম বিকেল ৪টার দিকে জানান, ঘাটে এখন দেড় থেকে ২০০ যান পারাপারের অপেক্ষায় রয়েছে। 

বিআইডব্লিউটিসির শিমুলিয়া ঘাটের ব্যবস্থাপক (বাণিজ্য) আব্দুল আলিম জানান, ভোর থেকেই ঈদে ঘরমুখো যাত্রীদের চাপ বেড়েছে। ফেরিগুলো যানবাহন ও যাত্রী পারাপারে হরদম ব্যস্ত রয়েছে। এ পর্যন্ত আজ ঘরমুখো যাত্রীদের নিয়ে দেড় সহস্রাধিক যানবাহন পারাপার হয়েছে। সেই সঙ্গে চাপও কমছে।

ফেরি ছাড়াও ৮৭ যাত্রীবাহী লঞ্চ ও পাঁচ শতাধিক স্পিডবোট এ নৌ-রুটে যাত্রী পারাপার করছে।

Comments

The Daily Star  | English

US supports a prosperous, democratic Bangladesh

Says US embassy in Dhaka after its delegation holds a series of meetings with govt officials, opposition and civil groups

1h ago