ফর্ম যেমনই হোক না কেন, পাকিস্তান খুবই ভয়ঙ্কর: ফিঞ্চ

টানা ১০ ম্যাচ হেরে বিশ্বকাপে পা রেখেছিল পাকিস্তান। এরপর আসরে নিজেদের প্রথম ম্যাচে ওয়েস্ট ইন্ডিজের কাছে নাস্তানাবুদ হয় তারা। ওই হারের পর বিশ্বকাপে পাকিস্তানের ভরাডুবিরই আশঙ্কা করা হচ্ছিল। কিন্তু পরের ম্যাচেই অবিশ্বাস্যভাবে ঘুরে দাঁড়িয়ে ওয়ানডের এক নম্বর দল ইংল্যান্ডকে হারিয়ে দেয় তারা। এতেই পাল্টে গেছে হিসাব-নিকাশ। সরফরাজ আহমেদের দলকে সহজ প্রতিপক্ষ ভাববার উপায় নেই বাকিদের। অস্ট্রেলিয়ার অধিনায়ক অ্যারন ফিঞ্চও তাই কঠিন প্রতিদ্বন্দ্বিতা প্রত্যাশা করছেন পাকিস্তানের কাছ থেকে।
aaron finch
ছবি: রয়টার্স

টানা ১০ ম্যাচ হেরে বিশ্বকাপে পা রেখেছিল পাকিস্তান। এরপর আসরে নিজেদের প্রথম ম্যাচে ওয়েস্ট ইন্ডিজের কাছে নাস্তানাবুদ হয় তারা। ওই হারের পর বিশ্বকাপে পাকিস্তানের ভরাডুবিরই আশঙ্কা করা হচ্ছিল। কিন্তু পরের ম্যাচেই অবিশ্বাস্যভাবে ঘুরে দাঁড়িয়ে ওয়ানডের এক নম্বর দল ইংল্যান্ডকে হারিয়ে দেয় তারা। এতেই পাল্টে গেছে হিসাব-নিকাশ। সরফরাজ আহমেদের দলকে সহজ প্রতিপক্ষ ভাববার উপায় নেই বাকিদের। অস্ট্রেলিয়ার অধিনায়ক অ্যারন ফিঞ্চও কঠিন প্রতিদ্বন্দ্বিতা প্রত্যাশা করছেন পাকিস্তানের কাছ থেকে।

বুধবার (১২ জুন) টনটনের কাউন্টি গ্রাউন্ডে মুখোমুখি হচ্ছে বর্তমান বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন অস্ট্রেলিয়া ও সাবেক চ্যাম্পিয়ন পাকিস্তান। তাদের দ্বৈরথ শুরু বাংলাদেশ সময় বিকাল সাড়ে তিনটায়।

গেল মার্চে সংযুক্ত আরব আমিরাতের মাটিতে পাঁচ ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজ খেলেছিল পাকিস্তান ও অস্ট্রেলিয়া। কোনো প্রতিদ্বন্দ্বিতার আভাস ছিল না ওই সিরিজে। অসিরা ৫-০ ব্যবধানে হোয়াইটওয়াশ করেছিল পাকিস্তানকে। সবমিলিয়ে দুদলের সবশেষ ১৫ ওয়ানডের ১৪টিতেই জিতেছে অস্ট্রেলিয়া। অর্থাৎ, এ ম্যাচে তারাই স্পষ্ট ফেভারিট। তবে এই পরিসংখ্যান মাথায় রেখে নির্ভার থাকতে চান না ফিঞ্চ। বড় মঞ্চে পাকিস্তানের জ্বলে ওঠার অতীত ইতিহাস তার ভালোই জানা। এই ইংল্যান্ডের মাটিতেই ২০১৭ আইসিসি চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফিতে শেষ দল (আইসিসি র‍্যাঙ্কিংয়ের তাদের অবস্থান ছিল আট নম্বরে) হিসেবে খেলতে গিয়ে শিরোপা জিতে নিয়েছিলেন সরফরাজ-আমির-ফখররা।

পাকিস্তানকে নিয়ে সতর্ক অসি ওপেনার ফিঞ্চ ম্যাচের আগের দিন সংবাদ সম্মেলনে জানান, ‘হ্যাঁ, আমি মনে করি পাকিস্তান খুবই ভয়ঙ্কর দল। আমরা ধারাবাহিকভাবে দেখেছি, বিশেষ করে আইসিসির প্রতিযোগিতাগুলোতে, তারা অনেক ম্যাচ জেতে এবং শিরোপা জেতার মতো একটা অবস্থানে চলে যায়। চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফিতে তারা দারুণ করেছিল। তাই পাকিস্তানের ফর্ম যেমনই হোক না কেন, তারা খুবই ভয়ঙ্কর দল।’

ফিঞ্চ মনে করেন, ম্যাচে পার্থক্য গড়ে দেওয়ার মতো একাধিক তারকা আছে পাকিস্তান দলে, ‘তাদের কিছু বিশ্বমানের খেলোয়াড় আছে। অবশ্যই, বাবর আজম তিন নম্বর পজিশনে ভালো খেলছেন এবং ব্যাটিং লাইনআপকে একসঙ্গে ধরে রাখছেন। তাদের বেশ কিছু বিশ্বমানের বোলারও রয়েছে। মোহাম্মদ আমির ফিরে এসেছেন এবং দেখা যাচ্ছে, তিনি সেরা ফর্মে ফিরছেন। তিনি বল সুইং করাতেও পারছেন। ওয়াহাব রিয়াজ অনেক জোরে বল করেন এবং তিনি আক্রমণাত্মক। শাদাব খানও দারুণ। হাসান আলীর চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফিটা ভালো কেটেছিল।’

তিন ম্যাচে ৪ পয়েন্ট নিয়ে অসিরা রয়েছে পয়েন্ট তালিকার চারে। প্রথম দুই ম্যাচে টানা জয়ের পর ভারতের কাছে সবশেষ ম্যাচে হেরেছে তারা। অন্যদিকে, প্রথম ম্যাচ হারের পর দ্বিতীয় ম্যাচে জয় পায় পাকিস্তান। লঙ্কানদের বিপক্ষে তাদের শেষ ম্যাচটি অবশ্য ভেসে গেছে বৃষ্টিতে। ফলে তিন ম্যাচে তাদের অর্জন ৩ পয়েন্ট। তারা রয়েছে তালিকার আটে। তাই জয়ের ক্ষুধা রয়েছে দুদলেরই।

Comments