হারিসের ঝড়ো ব্যাটিংয়ে পাকিস্তানের বড় সংগ্রহ

এবারের বিশ্বকাপের প্রথম ম্যাচে সুযোগ পেয়ে কাজে লাগাতে না পারায় দল থেকে বাদ পড়েছিলেন হারিস সোহেল। ফের জায়গা পেলেন দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে। তবে এবার সে সুযোগ লুফে নিয়েছেন দারুণভাবে। ঝড়ো ব্যাটিংয়ে পাকিস্তানকে লড়াইয়ের পুঁজি এনে দেন তিনি। নির্ধারিত ৫০ ওভারে ৩০৮ রান তুলেছে দলটি।
ছবি: রয়টার্স

এবারের বিশ্বকাপের প্রথম ম্যাচে সুযোগ পেয়ে কাজে লাগাতে না পারায় দল থেকে বাদ পড়েছিলেন হারিস সোহেল। ফের জায়গা পেলেন দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে। তবে এবার সে সুযোগ লুফে নিয়েছেন দারুণভাবে। ঝড়ো ব্যাটিংয়ে পাকিস্তানকে লড়াইয়ের পুঁজি এনে দেন তিনি। নির্ধারিত ৫০ ওভারে ৩০৮ রান তুলেছে দলটি।

টস জিতে এদিন ব্যাট করার সিদ্ধান্ত নেয় পাকিস্তান। শুরুটাও করে তারা দুর্দান্ত। ওপেনিং জুটিতেই আসে ৮১ রান। এ জুটি ভাঙেন ইমরান তাহির। দুই ওপেনার ইমাম-উল-হক ও ফখর জামান দুইজনকেই বিদায় করেন তিনি। ফলে কিছুটা চাপে পড়ে পাকিস্তান। তৃতীয় উইকেটে অভিজ্ঞ মোহাম্মদ হাফিজকে নিয়ে দলের হাল ধরেন বাবর আজম। ৪৫ রানের জুটিতে সে চাপ সামলে নেন তারা।

দলীয় ১৪৩ রানে হাফিজের বিদায়ে হারিস সোহেলকে নিয়ে রানের গতি বাড়ানোর কাজে নামেন বাবর। উইকেটে নেমেই হাত খুলে ব্যাট করতে থাকেন হারিস। খোলস ছেড়ে বেড়িয়ে আসেন বাবরও। ৬৮ বলে স্কোরবোর্ডে ৮১ রান যোগ করেন এ দুই ব্যাটসম্যান। ফেলুকাওয়োর বলে ছক্কা হাঁকাতে গিয়ে বাবর ভাঙে এ জুটি।

বাবরকে আউট হলেও রানের গতি বাড়ানোর দায়িত্বটা ইমাদ ওয়াসিমকে নিয়ে নেন হারিস। দুই জনই আগ্রাসী ব্যাট করতে থাকেন। ৪০ বলে ৭১ রানের জুটি গড়েন এ দুই ব্যাটসম্যান। তাতে বড় সংগ্রহের ভিত পেয়ে যায় দলটি। ৭ উইকেট হারিয়ে ৩০৮ রান সংগ্রহ করে পাকিস্তান।

দলের পক্ষে সর্বোচ্চ ৮৯ রান করেছেন হারিস। ৫৯ বলে ৯টি চার ও ৩টি ছক্কার সাহায্যে র রান করেছেন তিনি। ৮০ বলে ৬৯ রান করেছেন বাবর। এছাড়া দুই ওপেনার ইমাম ও ফখর দুই জনই করেন ৪৪ রান করে। শেষ দিকে ১৫ বলে ২৩ রানের কার্যকরী একটি ইনিংস খেলেন ইমাদ। দক্ষিণ আফ্রিকার পক্ষে ৬৪ রানের খরচায় ৩টি উইকেট পান লুঙ্গি এনগিডি। ২টি উইকেট নেন তাহির।

সংক্ষিপ্ত স্কোর:

পাকিস্তান: ৫০ ওভারে (ইমাম ৪৪, ফখর ৪৪, বাবর ৬৯, হাফিজ ২০, হারিস ৮৯, ইমাদ ২৩, ওয়াহাব ৪, সরফরাজ ২*, সাদাব ১*; রাবাদা ০/৬৫, এনগিডি ৩/৬৪, মরিস ০/৬১, ফেলুকাওয়ো ১/৪৯, তাহির ২/৪১, মার্করাম ১/২২)।

Comments

The Daily Star  | English

Death came draped in smoke

Around 11:30, there were murmurs of one death. By then, the fire, which had begun at 9:50, had been burning for over an hour.

1h ago