শত আঘাতেও আওয়ামী লীগকে ছিন্নভিন্ন করা যাবে না: হাসিনা

প্রধানমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগের সভাপতি শেখ হাসিনা বলেছেন, আওয়ামী লীগের শেকড় বাংলার মাটিতে এমনভাবে প্রোথিত, শত চেষ্টা করেও একে কেউ উপড়ে ফেলতে পারেনি। আর পারবেও না। শত আঘাতেও কেউ একে ছিন্নভিন্ন করতে পারেনি।
hasina
ছবি: পিআইডি

প্রধানমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগের সভাপতি শেখ হাসিনা বলেছেন, আওয়ামী লীগের শেকড় বাংলার মাটিতে এমনভাবে প্রোথিত, শত চেষ্টা করেও একে কেউ উপড়ে ফেলতে পারেনি। আর পারবেও না। শত আঘাতেও কেউ একে ছিন্নভিন্ন করতে পারেনি।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আজ বিকেলে রাজধানীর বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে আওয়ামী লীগের ৭০তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উপলক্ষে আয়োজিত আলোচনা সভায় সভাপতির ভাষণে একথা বলেন।

প্রধানমন্ত্রী দেশের জন্য ত্যাগের মানসিকতা নিয়ে আওয়ামী লীগের নেতা-কর্মীদের কাজ করে যাওয়ার আহবান জানিয়ে বলেন, “আওয়ামী লীগের নেতা-কর্মীদেরও এটাই মনে রাখতে হবে যে, আমাদের পূর্বসূরিরা যেভাবে আত্মত্যাগ করে গেছেন ঠিক সেভাবে প্রত্যেক নেতা-কর্মীকে জাতির পিতার আদর্শ নিয়ে চলতে হবে।”

শৈশবের নৈতিক শিক্ষা “সিম্পল লিভিং হাই থিংকিং” প্রসঙ্গ উল্লেখ করে বলেন, সাধারণ জীবন যাপনের মধ্য দিয়েই, ত্যাগের মধ্য দিয়েই অর্জন করা যায়। কারণ বঙ্গবন্ধু বলে গেছেন মহৎ অর্জনের জন্য মহান ত্যাগের প্রয়োজন।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, তিনি এবং তার সরকার বঙ্গবন্ধুর নীতি মেনে চলার কারণেই বাংলাদেশ আজকে উন্নয়নের উচ্চ শিখরে এগিয়ে যাচ্ছে।

প্রবৃদ্ধি ৮ দশমিক ১৩ ভাগে এবং মাথাপিছু আয় ১ হাজার ৯০৯ ডলারে উন্নীত করার পর আরও এগিয়ে নিয়ে যাওয়াই সরকারের লক্ষ্য উল্লেখ করে তিনি বলেন, যখন বাংলাদেশের মানুষের কোনো অর্জন হয় তখন তার মৃত বাবার আত্মা শান্তি পায় বলেও নিজস্ব অনুভূতি ব্যক্ত করেন।

আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা মণ্ডলীর সদস্য আমির হোসেন আমু এবং তোফায়েল আহমেদ, প্রেসিডিয়াম সদস্য বেগম মতিয়া চৌধুরী, শেখ ফজলুল করিম সেলিম এবং মোহাম্মদ নাসিম এবং অধ্যাপক মুনতাসির মামুন আলোচনা সভায় বক্তৃতা করেন।

এছাড়া, দলের যুগ্ম সম্পাদক আব্দুর রহমান ও অ্যাডভোকেট জাহাঙ্গীর কবির নানক, ঢাকা মহানগর উত্তর এবং দক্ষিণ আওয়ামী লীগের সভাপতি একেএম রহমতউল্লাহ এমপি এবং আবুল হাসনাত বক্তৃতা করেন। দলের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রী ওবায়দুল কাদের সভায় প্রারম্ভিক বক্তৃতা করেন।

আওয়ামী লীগের প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক এবং তথ্য মন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ এবং উপ-প্রচার সম্পাদক আমিনুল ইসলাম অনুষ্ঠানটি পরিচালনা করেন। এ সময় দলের সিনিয়র প্রেসিডিয়াম সদস্য সৈয়দা সাজেদা চৌধুরী সহ দলের জ্যেষ্ঠ নেতৃবৃন্দ মঞ্চে উপস্থিত ছিলেন।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, “বাংলাদেশের একটি মানুষও যদি কষ্ট পায় আমি জানি আমার বাবার আত্মা কষ্ট পাবে। কাজেই আমাদের এমনভাবে কাজ করতে হবে যাতে করে এদেশের প্রতিটা মানুষের ভাগ্যের পরিবর্তন হয়।”

ভোট দিয়ে তার সরকারকে নির্বাচিত করায় দেশের উন্নয়নের গতিধারা অব্যাহত রাখতে পেরেছেন উল্লেখ করে দেশবাসীর প্রতি কৃতজ্ঞতা জানান তিনি।

হাসিনা বলেন, “কৃতজ্ঞতা জানাই যারা আওয়ামী লীগের প্রতি বিশ্বাস রেখেছেন, ভোট দিয়েছেন, নির্বাচিত করেছেন, বার বার নির্বাচিত করে তাদের সেবা করার সুযোগ আমাদেরকে দিয়েছেন।”

Comments

The Daily Star  | English
Israel's occupation of Palestine

Israeli occupation 'affront to justice'

Arab states tell UN court; UN voices alarm as Israel says preparing for Rafah invasion

3h ago