রিকশাচালকদের সড়ক অবরোধ, ভোগান্তিতে যাত্রীরা

দ্বিতীয় দিনের মতো ঢাকায় বেশ কয়েকটি সড়কে অবস্থান নিয়েছেন নগরীর রিকশাচালকরা। রাজধানীর তিনটি প্রধান সড়কে রিকশা চলাচল বন্ধ করার যে সিদ্ধান্ত ঢাকা (উত্তর ও দক্ষিণ) সিটি করপোরেশন নিয়েছে তা তুলে না নেওয়া পর্যন্ত তাদের আন্দোলন চলবে বলেও জানিয়েছেন তারা।
Rickshaw pullers
৯ জুলাই ২০১৯, রাজধানীর সড়কে রিকশাচালকদের প্রতিবাদ। ছবি: প্রবীর দাশ

দ্বিতীয় দিনের মতো ঢাকায় বেশ কয়েকটি সড়কে অবস্থান নিয়েছেন নগরীর রিকশাচালকরা। রাজধানীর তিনটি প্রধান সড়কে রিকশা চলাচল বন্ধ করার যে সিদ্ধান্ত ঢাকা (উত্তর ও দক্ষিণ) সিটি করপোরেশন নিয়েছে তা তুলে না নেওয়া পর্যন্ত তাদের আন্দোলন চলবে বলেও জানিয়েছেন তারা।

ঢাকা মহানগর পুলিশের (ডিএমপি) উপকমিশনার (মতিঝিল বিভাগ) আনোয়ার হোসেন বলেন, রিকশাচালকরা আজ (৯ জুলাই) সকাল সাড়ে ৮টার দিকে মানিকনগর, মুগদা, গুলবাগ এবং সায়দাবাদ এলাকায় অবস্থান নেন। তারা দুপুর ১টা পর্যন্ত সেখানে অবস্থান করার ঘোষণাও দিয়েছে বলে জানান তিনি।

মুগদা এলাকায় আন্দোলনরত একজন রিকশাচালক নূর উদ্দিন দ্য ডেইলি স্টারকে বলেন, “আমরা বিভিন্ন জায়গায় শান্তিপূর্ণ বিক্ষোভ করতেছি। যতোদিন পর্যন্ত এই নিষেধাজ্ঞা তুলে না নেয় ততোদিন এই আন্দোলন চলবে।”

সড়ক অবরোধের সময় বেশ কয়েক হাজার রিকশাচালককে মুগদা, খিলগাঁও বিশ্বরোড এবং মালিবাগ এলাকায় অবস্থান করতে দেখা যায়।

রিকশাচালকদের এই অবরোধের ফলে ভোগান্তিতে পড়েছেন যাত্রীরা। মগবাজার এলাকার একজন বাসিন্দা আফজাল হোসেন বলেন, “সকাল ৯টার দিকে আমি একটি বাসে উঠেছিলাম। কিন্তু, বাসটি মালিবাগ রেলগেটে এসে আটকে রয়েছে।”

“এখন যাত্রাবাড়ী হেঁটে যেতে হবে যা প্রায় ৭ কিলোমিটার দূরে,” যোগ করেন তিনি।

আফজালের মতো ভোগান্তিতে পড়েছেন শত শত যাত্রী। নারী ও শিশুদেরও সড়কে ভোগান্তির মধ্যে পড়তে হয়।

Comments

The Daily Star  | English

$7b pledged in foreign funds

When Bangladesh is facing a reserve squeeze, it has received fresh commitments for $7.2 billion in loans from global lenders in the first seven months of fiscal 2023-24, a fourfold increase from a year earlier.

7h ago