ওয়ার্নের বিচারে স্টার্ক পেলেন ৫, ফিঞ্চ-ওয়ার্নার ৪!

অস্ট্রেলিয়া বিশ্বকাপের সেমি-ফাইনালে হেরে বাদ পড়বে, আর শেন ওয়ার্ন কিছু বলবেন না তা কি হয়! চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী ইংল্যান্ডের কাছে একপেশে ম্যাচে অসিদের অসহায় আত্মসমর্পণের পর দলটির অধিকাংশ ক্রিকেটারদের এক কথায় শূলে চড়িয়েছেন দেশটির কিংবদন্তি সাবেক স্পিনার।
warne
ছবি: এএফপি

অস্ট্রেলিয়া বিশ্বকাপের সেমি-ফাইনালে হেরে বাদ পড়বে, আর শেন ওয়ার্ন কিছু বলবেন না তা কি হয়! চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী ইংল্যান্ডের কাছে একপেশে ম্যাচে অসিদের অসহায় আত্মসমর্পণের পর দলটির অধিকাংশ ক্রিকেটারদের এক কথায় শূলে চড়িয়েছেন দেশটির কিংবদন্তি সাবেক স্পিনার।

এবারের আসরে ব্রিটিশ গণমাধ্যম স্কাই স্পোর্টসের হয়ে ধারাভাষ্য দিচ্ছেন ওয়ার্ন। পাশাপাশি ম্যাচের পর খেলোয়াড়দের পারফরম্যান্স বিচার-বিবেচনা করে রেটিং পয়েন্ট (১০ এর মধ্যে) দেন তিনি। তার চুলচেরা বিশ্লেষণে, ইংল্যান্ডের বিপক্ষে ম্যাচে মিচেল স্টার্ক পেয়েছেন ৫ পয়েন্ট। আর অ্যারন ফিঞ্চ ও ডেভিড ওয়ার্নার পেয়েছেন ৪ পয়েন্ট করে।

চলতি আসরের সর্বোচ্চ উইকেটশিকারি স্টার্ক। পেয়েছেন ২৭ উইকেট। তিনি ভেঙেছেন স্বদেশী পেসার গ্লেন ম্যাকগ্রার এক আসরে সবচেয়ে বেশি উইকেট নেওয়ার রেকর্ড। ৬৪৭ রান নিয়ে ওয়ার্নার এবার দ্বিতীয় সর্বোচ্চ রান সংগ্রাহক। অধিনায়ক ফিঞ্চের নামের পাশে ৫০৭ রান। অসিদের সেমিফাইনালে তোলার ক্ষেত্রে তাদের তিনজনের সবচেয়ে বেশি অবদান ছিল। কিন্তু সেমিতে তারা সবাই ছিলেন উল্টো পথে।

ওয়ার্নার ১১ বলে করেন ৯ রান। ফিঞ্চ প্রথম বলেই সাজঘরে ফেরেন। স্টার্ক ১ উইকেট নিতে খরচ করেন ৭০ রান। তাদের ব্যর্থতার দিনে প্রথমবারের মতো বিশ্বকাপের সেমিফাইনালে হারের স্বাদ নেয় অস্ট্রেলিয়া। তাই স্বাভাবিকভাবেই স্টার্ক-ওয়ার্নার-ফিঞ্চকে কাঠগড়ায় দাঁড় করিয়েছেন ওয়ার্ন।

তবে অধিনায়ক ফিঞ্চের প্রতি কিছুটা সহানুভূতিও প্রকাশ করেছেন তিনি, ‘একটা দারুণ ডেলিভারিতে কেউ যখন প্রথম বলেই আউট হয়ে যায়, তখন তাকে বিচার করা কঠিন। সে ভালো অধিনায়কত্ব করেছে এবং অনেক চেষ্টা করেছে। এটা তার জন্য ভালো দিন ছিল না এবং সে অবশ্যই হতাশ। তবে সে অন্তত টসটা তো জিতেছে।’

জেসন বেহরেনডর্ফ ও মার্কাস স্টয়নিসকেও ৪ পয়েন্ট দিয়েছেন লেগ স্পিন জাদুকর ওয়ার্ন। তবে অ্যালেক্স ক্যারে ও স্টিভ স্মিথের পারফরম্যান্সের প্রশংসা করেছেন তিনি। উইকেটরক্ষক-ব্যাটসম্যান ক্যারে ৭ ও সাবেক দলনেতা স্মিথ ৮ পয়েন্ট পেয়েছেন।

বিশ্বকাপ দিয়ে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে ফেরা স্মিথ এক প্রান্ত আগলে রেখে ১১৯ বলে ৮৫ করেন ইংলিশদের বিপক্ষে। চাপের মুখে খেলা তার এই ইনিংস নজর কেড়েছে ওয়ার্নের, ‘স্মিথ দুর্দান্ত ছিল। সে না থাকলে অস্ট্রেলিয়া ১৫০ রান করতে পারত কি না সন্দেহ। আমি মনে করি, সে খুব ভালো ব্যাটিং করেছে।’

শন মার্শ চোট পাওয়ায় বিশ্বকাপের শেষভাগে অসি স্কোয়াডে অন্তর্ভুক্ত হন পিটার হ্যান্ডসকম্ব। সেমিফাইনালে করেন ১২ বলে ৪ রান। তার ব্যাটিং দেখে চূড়ান্ত মাত্রায় অসন্তুষ্ট ওয়ার্ন। দিয়েছেন মাত্র ৩ পয়েন্ট। আর হ্যান্ডসকম্বকেই সবচেয়ে বড় তোপটা হজম করতে হচ্ছে, ‘তার দলে থাকাই উচিত না। দেখে মনে হয়নি যে, সে রান করতে পারবে। ওইটুক ইনিংসে সে তিন-চারবার আউট হতে পারত।’

Comments

The Daily Star  | English

Dhaka air: A winter hazard

Almost every morning this past winter, media outlets reported on Dhaka’s air quality. Of the first 53 days of the year, Dhaka had the worst air quality in the world on 19 days.

15m ago