ইংলিশ লিগের 'টপ সিক্সের' দল বদল

ইউরোপের বাকী দেশগুলোর চেয়ে একটি আলাদা ইংল্যান্ডের দল বদল। অন্য সব দেশের চেয়ে প্রায় মাস খানেক আগেই শেষ হয়ে যায় দল বদলের সময়। সে ধারায় প্রিমিয়ার লিগের দলবদল শেষ হয়ে গেছে ৮ আগস্ট। এখন খেলোয়াড় বেচতে পারলেও নতুন করে কাউকে দলে ভেড়াতে পারবে না ইংলিশ ক্লাবগুলো। দলবদল শেষে দেখে নেওয়া যাক সেরা ছয়টি ক্লাব দলবদলের বাজারে কেমন করল?
ছবি: সংগ্রহীত

ইউরোপের বাকী দেশগুলোর চেয়ে একটি আলাদা ইংল্যান্ডের দল বদল। অন্য সব দেশের চেয়ে প্রায় মাস খানেক আগেই শেষ হয়ে যায় দল বদলের সময়। সে ধারায় প্রিমিয়ার লিগের দলবদল শেষ হয়ে গেছে ৮ আগস্ট। এখন খেলোয়াড় বেচতে পারলেও নতুন করে কাউকে দলে ভেড়াতে পারবে না ইংলিশ ক্লাবগুলো। দলবদল শেষে দেখে নেওয়া যাক সেরা ছয়টি ক্লাব দলবদলের বাজারে কেমন করল?

আর্সেনাল

৭২ মিলিয়ন পাউন্ডের বিনিময়ে নিকোলাস পেপেকে দলে নিয়েছে আর্সেনাল। পিয়ের এমেরিক অবামেয়াং, অ্যালেক্সান্ডার লাকাতেজের সঙ্গে তার জুটি দলটির জন্য অবশ্যই দারুণ কিছু। রিয়াল মাদ্রিদ থেকে ধারে এসেছেন মিডফিল্ডার দানি সেবায়োস। অবশ্য রক্ষণের সমস্যাটা থেকেই গেছে। লরেন্ট কোশেয়লনি ক্লাব ছাড়ায় ঝামেলা বেড়েছে আরও। শেষদিনে ২২ বছর বয়সী স্কটিশ লেফটব্যাক কিয়েরান টিয়ের্নিকে দলে নিয়েছে গানাররা। খরচ হয়েছে ২৫ মিলিয়ন পাউন্ড।

যারা এলেন

নিকোলাস পেপে- লিল

দাভিদ লুইজ- চেলসি

উইলিয়াম সালিবা- সেন্ট এতিয়েন

দানি সেবায়োস- রিয়াল মাদ্রিদ

কিয়েরান টিয়েরনি- সেল্টিক

যারা গেলেন

পিটার চেক- অবসর

অ্যারন রামসি- জুভেন্টাস

লরেন্ট কোশেয়েলনি- বোর্দো

ড্যানি ওয়েলবেক- ওয়াটফোর্ড

স্টেফান লিচস্টেইনার- রিলিজড

অ্যালেক্স ইওবি- এভারটন

চেলসি

দল বদলে নিষিদ্ধ চেলসি। কিছুই করার নেই নতুন কোচ ফ্রাঙ্ক ল্যাম্পার্ডের। এডেন হ্যাজার্ডের মতো খেলোয়াড় দল ছেড়েছেন। তাই আক্রমণভাগের ধার অনেকটাই কমেছে। ক্রিশ্চিয়ান পুলিসিচ চেলসিরই ছিলেন। তাকেই ফিরিয়ে এনেছে দলটি। আর ধারে আনার সময় কিনে রাখার সুযোগ থাকায় মাতেও কোভাসিচকে ধরে রেখেছে তারা। খরচ করতে হয়েছে ৪০.২ মিলিয়ন পাউন্ড। এছাড়া নতুন কাউকে কিনতে পারেনি দলটি।

যারা এলেন

ক্রিশ্চিয়ান পুলিসিচ- বরুশিয়া ডর্টমুন্ড

মাতেও কোভাসিচ- রিয়াল মাদ্রিদ

যারা গেলেন

আলভারো মোরাতা-অ্যাতলেতিকো মাদ্রিদ

দাভিদ লুইজ- আর্সেনাল

ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড

ভালো মানের কিছু খেলোয়াড় কিনতে শুরু থেকেই বেশ চেষ্টা করেছে ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড। কিন্তু দলের আহামরি কোন পরিবর্তন করতে পারেননি ওলে গানার সুলশার। ১২৫ মিলিয়ন ইউরো খরচ দুই ডিফেন্ডার কিনেছে তারা। নতুন বিশ্বরেকর্ড গড়ে লেস্টার সিটি থেকে হ্যারি ম্যাগুয়েরকে আনে। ৮০ মিলিয়ন পাউন্ড খরচ হয়েছে তাকে কিনতেই। তবে অ্যারন ওয়ান বিসাকা প্রাক মৌসুমে নজর কেড়েছেন। মিডফিল্ডার অ্যান্দের হেরেরা যাওয়ার পর তার জায়গায় নতুন কাউকে আনতে ব্যর্থ হয়েছে দলটি। আক্রমণভাগ থেকে রোমেলু লুকাকুকে ছেড়েছে তারা। অবশ্য সোয়ানসি ড্যানিয়েল জেমসকে কিনেছে ইউনাইটেড।   

যারা এলেন

ড্যানিয়েল জেমস- সোয়ানসি সিটি

অ্যারন ওয়ান বিসাকা- ক্রিস্টাল প্যালেস

হ্যারি ম্যাগুয়ের- লেস্টার সিটি

যারা গেলেন

অ্যান্টোনিও ভ্যালেন্সিয়া- কিতো

অ্যান্দার হেরেরা- পিএসজি

জেমস উইলসন- রিলিজড

রোমেলু লুকাকু- ইন্টার মিলান

টটেনহ্যাম হটস্পার

গত দুই মৌসুমে কোনো খেলোয়াড়ই দলে ভেড়ায়নি টটেনহ্যাম। তবে এবার বেশ নড়েচড়ে বসে দলটি। বেশ কিছু দারুণ সাইনিং করেছে ডেডলাইন ডেতেও। মুসা ডেম্বেলের ঘাটতি পোষাতে রেকর্ড ভেঙেছে দলটি। ৫৫.৫ পাউন্ড খরচ করে ২২ বছর বয়সী টাঙ্গুয়ে এনদম্বেলেকে কিনেছে তারা। যার মধ্যে অনেকেই পল পগবার ছায়া দেখছেন। রিয়াল বেটিস থেকে শেষ দিনে ধারে আরেক ২২ বছর বয়সী মিডফিল্ডার জিওভানি লো সেলসোওকে দলভুক্ত করেছে তারা। এছাড়া ফুলহামকে প্রিমিয়ার লিগে তোলার মৌসুমে চ্যাম্পিয়নশিপের সেরা খেলোয়াড় নির্বাচিত হওয়া রায়ান সেসিনিয়োনকেও এনেছে টটেনহাম। সবমিলিয়ে গ্রীষ্মের দলবদলটা দারুণই হয়েছে তাদের

যারা এলেন

টাঙ্গুয়ে এনদম্বেলে - লিঁও

জিওভানি লো সেলসো- বেটিস

রায়ান সেসিনিয়োন- ফুলহাম

জ্যাক ক্লার্ড- লিডস ইউনাইটেড

যারা গেলেন

ফার্নান্দো ইয়োরেন্তে- রিলিজড

কিয়েরান ট্রিপিয়ের (অ্যাতলেতিকো মাদ্রিদ)

লিভারপুল

দল বদলে এবার প্রায় নীরব ছিলেন ইয়ুর্গেন ক্লপ। গত মৌসুমে অবশ্য বিশাল খরচ করেছিলেন। তাতে সাফল্যও পেয়েছেন। চ্যাম্পিয়ন্স লিগ যেতে তারা। এবারও ধরে রেখেছেন প্রায় সে দলটিই। সায়মোন মিনিওলের জায়াগায় ওয়েস্টহাম থেকে এসেছেন আদ্রিয়ান। আর দুইজন ১৭ বছর বয়সী নেদারল্যান্ডসের ডিফেন্ডার সেপ ভ্যান ডেন বার্গ ও ১৬ বছর বয়সী ইংলিশ উইঙ্গার হার্ভি ইলিয়টকে দলে নিয়েছে তারা। যদিও তাদের মূল দলে খেলার সম্ভাবনা নেই বললেই চলে।

যারা এলেন

আদ্রিয়ান-ওয়েস্টহাম

সেপ ভ্যান ডেন বার্গ- পিইসি জোল

হার্ভি ইলিয়ট-ফুলহাম

যারা গেলেন

সায়মোন মিনিওলে- ক্লাব ব্রুজ

আলবার্তো মরেনো, অ্যাডাম বোগদান, ড্যানিয়েল স্টারিজ- রিলিজড

হ্যারি উইলসন-বোর্নমাউথ

ম্যানচেস্টার সিটি

বেশ নীরবেই কাজটা করেছে ম্যানচেস্টার সিটি। অথচ দলে এসেছেন মোট চারজন নতুন খেলোয়াড়। ৫২.৬ মিলিয়ন পাউন্ড খরচে আনা রদ্রি দলের সেরা সাইনিং। ফলে দম নেওয়ার সুযোগ পাবেন ফের্নান্দিনহো। এ স্প্যানিশ মিডফিল্ডারের খেলায় আছে সের্জিও বুস্কেটসের ছায়াও। এছাড়া হোয়াও সান্সেলোর প্রাপ্তিটাও দারুণ। ম্যাচে প্রায় সাইডলাইনেই বসে থাকতেন দানিলো। তার জায়গায় মাত্র ২৭ মিলিয়ন পাউন্ড খরচ করে সান্সেলোর মতো খেলোয়াড় পাওয়া নিঃসন্দেহে দারুণ কিছু।

যারা এলেন

রদ্রি- অ্যাতলেতিকো মাদ্রিদ

অ্যাঞ্জেলিনো- পিএসজি আইন্দোভেন

হুয়াও সান্সেলো-জুভেন্টাস

স্কট কার্সন- ডার্বি

যারা গেলেন

ভিনসেন্ট কোম্পানি- অ্যান্ডারলেখট

ফাবিয়ান ডেলফ- এভারটন

দানিলো-জুভেন্টাস

Comments

The Daily Star  | English

Lifting curfew depends on this Friday

The government may decide to reopen the educational institutions and lift the curfew in most places after Friday as the last weekend saw large-scale violence over the quota-reform protest.

13h ago